বুধবার,২৩ অগাস্ট ২০১৭
হোম / বিজ্ঞান-প্রযুক্তি / সেলফি তোলার টুকিটাকি
১২/১৮/২০১৬

সেলফি তোলার টুকিটাকি

-

চলো একটা সেলফি তুলি! এখনকার দিনে এই বাক্যের সঙ্গে পরিচিতি নেই এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল। সেলফি তোলা অনেকের কাছেই দিনের অবশ্য করণীয় কাজ, কারো কারো কাছে আবার নেহাতই আদিখ্যেতা। তবে যে-যাই বলুন - তরুণ সমাজের পাশাপাশি আজকাল বায়োজ্যেষ্ঠদের মাঝেও সেলফি-প্রবণতা বেড়ে চলেছে বৈকি। আর এই সেলফি তোলার জন্য সবার আগে দরকার যুতসই একটা হ্যান্ডসেট। তবে শুধু স্মার্টফোন কিনলেই হবে না, এর পাশাপাশি সুন্দর সেলফি তোলার কৌশলও রপ্ত করতে হবে।

সেলফির জন্য কোন হ্যান্ডসেট কিনবেন?
মোবাইল ফোনে নিয়মিত সেলফি তুলতে চাইলে তার ক্যামেরা ফিচার ভালো হতে হবে। এক্ষেত্রে সেলফি তোলাটাই মুখ্য হলে সবচেয়ে বেশি মনোযোগ দিতে হবে হ্যান্ডসেটের ক্যামেরা ফিচারের উপর। সেলফি তোলার কথা মাথায় রেখে হ্যান্ডসেটের ফ্রন্ট ক্যামেরার দিকে বেশি খেয়াল রাখতে হবে। বর্তমানে বাংলাদেশের প্রযুক্তি বাজারে অসংখ্য ব্র্যান্ডের ভালো ফ্রন্ট ক্যামেরার হ্যান্ডসেট পাওয়া যায়। এদের মধ্যে শাওমি এমআই ৫, নেক্সাস ৫পি, স্যামসাং গ্যালাক্সি এস৭ এজ, ওয়ান প্লাস ২ কিংবা এইচটিসি ডিজায়ার আই সেলফি তোলার জন্য বেশ ভালো বলা চলে। এছাড়া বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সেলফি সিরিজের হ্যান্ডসেট যেমন - ওপো সেলফি এক্সপার্ট কিংবা আসুস জেনফোন সেলফিও কিনে নিতে পারেন।

সেলফি তোলার টিপস

হ্যান্ডসেট যত ভালোই হোক না কেন, যদি তা তোলার নিয়মে ভুল থাকে, তবে ছবি ভালো আসবে না। এক্ষেত্রে নিম্নোক্ত টিপসগুলো অনুসরণ করা যেতে পারে।

- একেবারে সামনে থেকে ছবি তুললে মুখ স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা বড় এবং গোল দেখায়। এক্ষেত্রে ভালো সেলফির জন্য সামান্য কাত হয়ে ছবি তোলা উচিত। সেলফি স্ট্যান্ড এর সাহায্যেও তুলতে পারেন ছবি।

- ঠোঁট অল্প পরিমাণে ফাঁক করে হাসিমুখের ছবি তুললে তা ভালো দেখায়। এভাবে আপনার চেহারার খুশি এবং নিশ্চিন্ত ভাবটাও ফুটে ওঠে। মুখ বন্ধ করে ছবি তুললে আপনাকে অনমনীয় এবং চিন্তিত দেখাবে। উপযুক্ত প্রেক্ষাপট ছাড়া সব দাঁত বের করে হাসিমুখের ছবি তুললেও তা বেমানান লাগবে।

- স্মার্টফোনে সেলফি বা অন্য ছবি তোলার সময় বেশি জুম না করাই ভালো। এর কারণ, অধিকাংশ লো এবং মিড রেঞ্জের স্মার্টফোনে ডিজিটাল জুমিং ব্যবহার করা হয় এবং এতে কোনো প্রকার মুভিং ফিজিক্যাল লেন্স থাকে না। ডিজিটাল জুম তাই অনেকটা ছবি ক্রপ করে নেয়ার মতো ব্যাপার এবং এতে ছবির গুরুত্বপূর্ণ ডিটেইলস হারিয়ে যেতে পারে।

- ফ্ল্যাশ ফিচার আছে বলেই তা সবখানে ব্যবহার করবেন এমন ধারণা ভুল। এর বদলে যতটা সম্ভব প্রাকৃতিক আলোয় ছবি তোলা উচিত। ফ্ল্যাশের উজ্জ্বল আলো মূলত অন্ধকার স্থানের ছবি তুলতে কাজে লাগে এবং প্রাকৃতিক আলোর মাঝে তা প্রায়ই কৃত্রিম মনে হয়।

- সেলফি-প্রীতি বেশি থাকলে এক্সপ্রেশনের উপর জোর দিন। তবে কখনোই তা যেন বাড়াবাড়ি পর্যায়ে না যায়। ছবি তুলতে ক্লিক করার পর কিছুক্ষণ এক্সপ্রেশন ধরে রাখার চেষ্টা করুন। না হলে চোখবন্ধ কিংবা ঝাপসা ছবি আসবে।

- যাদের মুখ বড়, তারা ক্যামেরা উপরের দিকে তুলে মুখটা উঁচু করে ধরে তারপর সেলফি তুলুন। আবার যারা চিকন, তারা ক্যামেরা নিচে ধরে সেলফি তুলুন। উভয়ক্ষেত্রেই তুলনামূলক ভালো সেলফি আসবে।

- কাপল সেলফি বা অনেকজন একসঙ্গে সেলফি তুলতে চাইলে ফ্রেমের দিকে খেয়াল রাখতে হবে। এক্ষেত্রে সবার এক্সপ্রেশন একরকম বা কাছাকাছি হলে ছবি প্রাণবন্ত দেখাবে।

সেলফি ব্যাপারটা সবসময়ই নিছক মজার ব্যাপার নয়। অনেক সময় তা আপনার ব্যক্তিত্বের প্রাথমিক পরিচায়কও বটে। তাই সেলফি বা অন্যান্য ছবি তোলার ক্ষেত্রে উপরোক্ত বিষয়গুলো খেয়াল রাখা উচিত।

- নাইব