মঙ্গলবার,২২ অগাস্ট ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / শীত সব্জির রকমারি
১২/০৮/২০১৬

শীত সব্জির রকমারি

-

ফুলকপি, বাঁধাকপি, টম্যাটো - শীতের বাজারে আসে কত না মজাদার সব্জি, শাক। সুস্বাদু, মজাদার সব পদ তৈরি করা যায় এইসব শীত স্পেশাল উপকরণ দিয়ে। নিয়াজ আসাদুল্লাহ এবার দিয়েছেন শীতের উপকরনে তৈরি বেশ কিছু উপাদেয় রেসিপি।

কড়াইশুঁটির কচুরি

উপকরনঃ
ময়দা ১ কাপ
তেল ১ টেবিল চামচ
গরম পানি ১/৪ কাপ
লবন ১/৪ চামচ

পুরের জন্য-
কড়াইশুঁটি ১ কাপ
লালমরিচ গুঁড়ো ১/৪ চা চামচ
হলুদ গুঁড়ো ১/৪ চা চামচ
ধনে গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
মৌরি গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
চাট মশলা ১/২ চা চামচ
আমচুর গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
কাঁচামরিচ ১/২টি
আদা আধা ইঞ্চি
আস্ত জিরা ১/৪ চা চামচ
তেল ২ টেবিল চামচ
লবন পরিমান মতো

ভাজার জন্য
তেল ২/৩ কাপ

প্রনালিঃ

ময়দা, তেল ও লবন দিয়ে প্রথমে মেখে নিন।

এরপর পানি দিয়ে ভাল করে ঠেসে মেখে নিয়ে ময়দা মাখা ৩০ থেকে ৪৫ মিনিট চাপা দিয়ে রাখুন।

ফুড প্রসেসরে প্রথমে কাঁচা মরিচ ও আদা দিন। এরপর কড়াইশুঁটি দিয়ে একসঙ্গে ভাল করে গ্রাইন্ড করে নিন। পানি দেবেন না।

এবারে একটা ফ্রাইংপ্যানে তেল গরম করে আস্ত জিরা ফোড়ন দিন। কিছুক্ষণ পর বাটা কড়াইশুটি দিয়ে দিন।

লবন মিশিয়ে ভাল করে নেড়ে ঝুরঝুরে করে নিন।

এর মধ্যে অল্প গুঁড়ো মশলা ও বেসন দিয়ে ভাল করে নেড়েচেড়ে নামিয়ে নিন।
কড়াইশুঁটি থেকে হাতের চাপে গোল গোল বল তৈরি করে নিন। ময়দা মাখা থেকে ছোট ছোট লেচি গড়ে নিয়ে হাতের চাপে চ্যাপ্টা করে ভেতরে কড়াইশুঁটির পুর দিয়ে লেচির মুখ বন্ধ করে নিন। ছোট ছোট কচুরি বেলে নিয়ে ছাঁকা তেলে ভেজে তুলুন।

ছোলার ডাল বা শুকনো আুর দমের সঙ্গে পরিবেশন করুন গরম গরম কড়াইশুঁটির কচুরি।

বাধাকপি রোল

উপকরণ
বাঁধাকপির পাতা ৮/১০টি (ভাপিয়ে নেওয়া)
রান্না করা কিমা ১ কাপ
ময়দা ১ কাপ
ডিম ১টি
ভাজার জন্য তেল।

কিমার রান্নার উপকরণ
কিমা ১ কাপ
পেঁয়াজ কুচি ১/২ কাপ
কাঁচামরিচ কুচি ১ চা চামচ
আদা বাটা ১ চা চামচ
রসুন বাটা ১/২ চা চামচ
হলুদ সামান্য
তেল ২ টেবিল চামচ
লবণ স্বাদমতো
এলাচ ১টি
দারুচিনি ২ টুকরো

প্রণালী

কড়াইয়ে তেল দিয়ে পেঁয়াজ একটু ভেজে কিমা দিয়ে ভেজে নিন।

সব মসলা দিয়ে কষাতে থাকুন।

সামান্য পানি দিয়ে সেদ্ধ করে নামানোর আগে ১ চা চামচ টমেটো সস দিয়ে নামিয়ে নিন।

ময়দা, ডিম, একটু পানি ও লবণ দিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে রাখুন আলাদা একটি পাত্রে।

বাধাকপির একটি পাতা নিয়ে তার মধ্যে কিমার পুর ভরে রোল করুন।

এবার ময়দার মিশ্রণে চুবিয়ে ডুবোতেলে ভেজে নিন মচমচে করে।

সস এর সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন।

ফুলকপি মুরগি ভুনা

উপকরনঃ

মুরগি ১টি (ছোট পিস করে কাটা)

ফুলকপি ১টি (বড় টুকরা করে কাটা)

পেঁয়াজ কুচি ৩টি
টমেটো ১/২ কাপ (টুকরো করে কাটা)
হলুদ+মরিচ+ধনিয়া+জিরা গুঁড়ো ১ ১/২ চা চামচ
আদা-রসুন বাটা ২ চা চামচ
মেথি ১/২ চা চামচ
আস্ত সরিষা ১/২ চা চামচ
লবণ স্বাদমত
তেল ৩ টেবিল চামচ
কাঁচা মরিচ ৩/৪টি ফালি করে কাটা

প্রণালিঃ
হাঁড়িতে তেল দিয়ে তাতে মেথি এবং সরিষা ফোড়ন দিন।

এবার পেয়াজ কুচি দিয়ে লাল করে ভাজুন।

সমস্ত মশলা আর টমেটো দিয়ে কষিয়ে নিন।

এবার এতে মুরগির মাংস দিয়ে কষাতে থাকুন আরো ১০ মিনিট।

এবার ফুলকপির টুকরোগুলি দিন।

নেড়েচেড়ে করে ১ কাপ গরম পানি দিয়ে উপরে কাঁচা মরিচ ফালি দিন।

রান্না করুন আরো ২০ মিনিট।

নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন।

ক্যারট টমেটো স্যুপ

উপকরণ

গাজর বড় ২টি (খোসা ছাড়িয়ে বড় করে টুকরো কাটা)
টমেটো ২টি (টুকরো করা)
জিরে গুঁড়ো ১ চা চামচ
লবন স্বাদ অনুযায়ী
গোলমরিচ ১/২ চা চামচ
মাখন বা মার্জারিন ৩৫ গ্রাম
ধনেপাতা ২ টেবিল চামচ কুচনো
ক্রিম বা গ্রীক ইয়গার্ট সাজানোর জন্য

প্রণালী

আধ কাপ পানি দিন প্রেসার কুকারে।

এতে টমেটো এবং গাজর একসঙ্গে দিয়ে দিন।

প্রেসার কুকারে ২টি সিটি পড়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

এবার প্রেসার কুকার খুলে দিন।

গাজর ও টমেটো একটি বাটিতে নিন।

তাতে ২ কাপ পানি দিন।

লবন ও গোলমরিচ দিন।

জিরে গুঁড়ো দিন আর একটি ধনে পাতা দিন।

এবার একটি হ্যান্ড ব্লেন্ডারের সাহায্যে মসৃণ করে বেটে নিন।

একটি সস প্যানে প্রথমে মাখন দিন।

মাখন গলে গেলে তাতে এই পুরো মিশ্রণটা দিয়ে দিন।

মিশ্রণটি ফুটে ওঠা পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

ভাল করে ফুটে গেলে নামিয়ে ক্রিম বা গ্রীক ইয়গার্ট এবং ধনেপাতা কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।

বীট-নারকেল স্যুপ

উপকরণ

বীট ১টি (কুচনো)
পেঁয়াজ ২টি (স্লাইস করা)
অলিভ অয়েল ২ টেবিল চামচ
গাজর ১ টি (কুচনো)
আদাবাটা ১/২ চা চামচ
কাঁচামরিচ ১ টি (কুচনো)
লেমনগ্রাস ১টি (কুচনো)
লেবু পাতা ৫/৬টি
রাইস ভিনিগার ১ টেবিলচামচ
ভেজিটেবল স্টক ২৫০ মিলিলিটার
লবন ও গোলমরিচ স্বাদমতো
নারকেল দুধ ২০০ মিলিলিটার
ফ্রেশ ক্রিম ১ টেবিলচামচ

প্রণালী

একটি পাত্রে অলিভ অয়েল গরম করে তাতে পেঁয়াজের স্লাইস দিন।

এতে গাজর, আদা দিয়ে ভাল করে নাড়াচাড়া করুন।

এবার কাঁচালঙ্কা, লেমনগ্রাস, লেবুপাতা দিয়ে ভাল করে মেশান।

কুচনো বীট দিয়ে বাকি উপকরণগুলির সঙ্গে ভাল করে মেশান।

এতে রাইস ভিনিগার ছিটিয়ে দিন।

এবার সবজি অনুযায়ী ভেজিটেবল স্টক দিন।

স্বাদমতো লবন ও গোলমরিচ দিন। এবার এতে নারকেলের দুধটা ঢেলে দিন।

হাল্কা আঁচে ১০ মিনিট স্যুপ রান্না হতে দিন।

এই গোটা মিশ্রণটি একটি ব্লেন্ডারে দিয়ে ভাল করে ব্লেন্ড করে নিন।

প্রয়োজনে ছেঁকে নিতে পারেন।

ক্রিম উপর থেকে ঢেলে পরিবেশন করুন।

পালং শাকের স্যুপ

উপকরণ:

পালং শাকের কুচি ৩ কাপ
টমেটো ১ টা
লবন পরিমানমতো
হাঁড় ছাড়া ছোট করে কাটা মুরগী ১ কাপ
স্টক ৪ কাপ
ধনেপাতা পেষ্ট ১ টেবিল চামচ
কাঁচা মরিচ পেষ্ট পরিমানমতো
লেবুর রস ১ টেবিল চামচ
মাখন ১/২ টেবিল চামচ


প্রণালী:

একটি প্যানে পালং শাক কুচি এবং কাটা টমেটো ৫ কাপ পানিতে পরিমাণমতো লবন দিয়ে বসান।

সিদ্ধ হয়ে গেলে শাক আর টমেটো ছেঁকে শুধু পানিটা রাখুন।

আরেকটা প্যানে বাটার দিয়ে তার মধ্যে চিকেনগুলো হালকা ভেজে নিন।

সামান্য লবন দিয়ে নেড়ে নামিয়ে ফেলুন।

পালং শাকের পানিটা চুলায় বসিয়ে তাতে চিকেন এবং স্টক দিয়ে নাড়তে থাকুন।

চিকেন সিদ্ধ হয়ে এলে তাতে ধনে পাতা পেষ্ট ,কাঁচা মরিচ পেষ্ট এবং লেবুর রস দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

গরম পরিবেশন করুন।