শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭
হোম / জীবনযাপন / সম্পর্কে প্রতারণা
১২/০৮/২০১৬

সম্পর্কে প্রতারণা

-

পুরুষ সবচাইতে ঘৃণা করে যৌন প্রতারণা। আর নারী সবচাইতে বেশি ঈর্ষাকাতর হয় আবেগীয় প্রতারণায়। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় এরকম তথ্যই পাওয়া গেছে।

জীবনসঙ্গী অন্য কারো সঙ্গে যৌনমিলনে জড়িয়ে পড়লে সেটা প্রতারণা। অন্যদিকে জীবনসঙ্গীর সঙ্গে অন্য কারো গভীর ব্যক্তিগত সম্পর্ক তৈরি হলে সেটাও প্রতারণা। সেখানে শারীরিক সম্পর্ক বা ঘনিষ্ঠতা না থাকলেও তা একই বিষয়।

গবেষকদের মতে, বিভিন্ন ধরনের প্রতারণার প্রতি নারী-পুরুষ ভিন্নভাবে সাড়া দিয়ে থাকে এবং সম্ভবত বিবর্তনবাদ মনোবিজ্ঞানে এ-পার্থক্যের কারণ ব্যাখ্যা করা যাবে।

নরওয়েজিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজির সহযোগী অধ্যাপক মোন্স বেনডিক্সেন বলেন, ‘বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই পুরুষ ও নারীর মনস্তত্ত একই, তবে প্রজননের ক্ষেত্রে তা ভিন্ন।’ যদিও বিবর্তনবাদী মনোবিজ্ঞানীরা ধারণা করেছিলেন যে, প্রতারণা এবং ঈর্ষাবিষয়ক প্রশ্নে নারী ও পুরুষের উত্তর ভিন্ন হবে, তবে এই ভিন্নতার পরিমাণ দেখে তারা নিজেরাও আশ্চর্য হন।

ঈর্ষা বা ঘৃণা নিয়ে করা সাম্প্রতিক গবেষণায় দুই ধরনের প্রতারণা বিবেচনায় আনা হয়।

সম্পর্কের বাইরে শারীরিক সম্পর্ক এবং সঙ্গী ব্যতীত অন্য কারো সঙ্গে আবেগঘন সম্পর্কে জড়ানো। গবেষণার জন্য ১ হাজার অংশগ্রহণকারীর প্রত্যেককে ঈর্ষাবিষয়ক চার সেট প্রশ্নের মধ্য থেকে এলোমেলোভাবে এক সেট প্রশ্ন দেওয়া হয়।

গবেষকরা বলেন, “কোন ধরনের প্রতারণা বেশি কষ্টদায়ক চিহ্নিত করতে বলা হলে তাদের মধ্যে ঈর্ষার প্রতি সাড়া দেওয়ার ক্ষেত্রে লিঙ্গভেদে পরিষ্কার পার্থক্য লক্ষ্য করেছি আমরা।” তবে বিবর্তনবাদ প্রেক্ষাপটটি ভিন্ন। এই প্রেক্ষাপট অনুযায়ী, প্রায় হাজার বছর ধরে পুরুষ ও নারীদের বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়েছে যার সঙ্গে প্রজননের সম্পর্ক ছিল।

এমনই এক চ্যালেঞ্জ প্রতারণা। বিবর্তনবাদ মনোবিজ্ঞানের ব্যাখ্যা অনুযায়ী, যৌনপ্রতারণার ক্ষেত্রে পুরুষদের অনুভুতি অত্যন্ত তীব্র। তারা এ-ধরনের পরিস্থিতিতে অত্যন্ত ঈর্ষাকাতর হয়ে থাকে। পুরুষদের এই ঈর্ষার কারণে অনেক ক্ষেত্রেই তার সঙ্গী এ-ধরনের প্রতারণা থেকে দূরে থাকে। কারণ পুরুষ এ-ধরনের পরিস্থিতিতে খুবই সতর্ক দৃষ্টি রেখে থাকেন তার সঙ্গীর উপর। গবেষকরা বলেন, “অন্যদিকে বর্তমান যুগের নারীরা, পুরুষ সঙ্গীটি যদি তার প্রতি কম মনোযোগী হয় তবে ঈর্ষাকাতর হয়ে পড়ে। মূলত সঙ্গীর মনোযোগ এবং ভালোবাসাই নারীদের জন্য বেশি জরুরী।”

বিবর্তনবাদী বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস, সঙ্গী পুরুষটি অন্য নারীকে বেশি সময় ও মনোযোগ দিচ্ছে এমন পরিস্থিতিতে নারীরা বিশেষভাবে সংবেদনশীল।

- অদ্বিতী