রবিবার,২০ অগাস্ট ২০১৭
হোম / ভ্রমণ / একদিনের রিসোর্টে ভ্রমণ
১১/১১/২০১৬

একদিনের রিসোর্টে ভ্রমণ

-

হাতে সময় কম কিন্তু ঘরে বসে থাকতে মন চায় না। চিন্তা নেই। দূরে কোথাও না যাওয়া গেলেও, আছে একদিনের ভ্রমণের জন্য অনেক গন্তব্য। ব্যস্ত নগরজীবনে একটু বিরতি নিয়ে পরিবার কিংবা বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে কোথাও ঢুঁ মেরে এলে মন-মেজাজ ভালো হয়ে যাবে এবং শরীরও লাগবে হালকা। জেনে নেয়া যাক কিছু রিসোর্টের খবর যেখানে আপনি সাপ্তাহিক ছুটিতে সহজেই ঘুরে আসতে পারবেন।

রিসোর্টের নাম ‘ছুটি’

ছুটি কাটানোর জন্যই আপনার গন্তব্য হতে পারে এই ‘ছুটি রিসোর্ট’। ঢাকার খুব কাছে, গাজিপুরের সুকুন্দি গ্রামে বানানো হয়েছে গাছপালায় ঘেরা এই রিসোর্ট। ভাওয়াল বনের মাঝে প্রায় ৫০ বিঘা জমি আপনাকে দীঘিতে নৌকা চড়া থেকে শুরু করে মাঠে ফুটবল খেলার অভিজ্ঞতা একসঙ্গে উপহার দেবে। সম্পূর্ণ গ্রামের আমেজে কিংবা পাকাবাড়ি ঘরে থেকে আপনার ভ্রমণ সেরে আসতে পারবেন এখান থেকে খুশিমনে।

পদ্মা রিসোর্ট

মুন্সিগঞ্জের পদ্মারপাড়ে লৌহজং এলাকারয় অবস্থিত বর্তমান সময়ের অন্যতম অবকাশের স্পট পদ্মা রিসোর্ট। বাউন্ডারি দিয়ে ঘেরা এই সুবিশাল রিসোর্টটি পরিবার-পরিজন নিয়ে একদিনের জন্য ঘুরে আসার জন্য বেশ ভালো। পদ্মার টাটকা ইলিশ দিয়ে দুপুরে গরম ভাত, বিকালে নৌকায় করে নদীভ্রমণ। সব মিলিয়ে পদ্মা রিসোর্টের আকর্ষণ অনেক। ১৬টি কাঠের তৈরি বাংলো আছে এই রিসোর্টে। মন চাইলে সেখানে জ্যোৎস্নার আলো দেখতে দেখতে রাত কাটানোর ব্যবস্থাও আছে।

এলেঙ্গা রিসোর্ট

টাঙ্গাইল জেলার কালিহাতি উপজেলায় এলেঙ্গা এলাকায় গড়ে উঠেছে এই রিসোর্ট। ঢাকা থেকে ২ ঘণ্টার পথ। গাড়ি যাবে গ্রামের মধ্যে দিয়ে, তবে পৌঁছালে হঠাৎ মনে হবে কোথায় এসে পড়লাম! দেশি, চিনা, ভারতীয় কিংবা কন্টিনেন্টাল খাবারের রেস্তোরাঁ, ইন্টারনেট ও টেলিযোগাযোগের ব্যবস্থা, আর ঠিক তার পাশেই সারি সারি গাছে ঘেরা নিঝুম প্রকৃতি। গ্রামীণ পরিবেশ আর আধুনিক সুযোগ-সুবিধার এক চমৎকার মেলবন্ধন দেখতে পাবেন এই রিসোর্টে। ইচ্ছা করলে ঘোড়ার পিঠে চড়েও রিসোর্টটি ঘুরে দেখতে পারবেন। নৌভ্রমণের ব্যবস্থাও আছে।

নক্ষত্রবাড়ি

শিল্পীদম্পতি তৌকির আর বিপাশা গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় তাদের শৈল্পিক মনের মাধুরী মিশিয়ে গড়ে তুলেছেন নক্ষত্রবাড়ি রিসোর্ট। শালবনের সবুজের পাশে আধুনিক কলাকৌশলের সংমিশ্রণে তৈরি এই রিসোর্টে আছে দীঘি, কৃত্রিম ঝরনা, সুইমিং পুল,
রেস্তোরাঁ এবং একটি প্রদর্শনী কক্ষ। বাচ্চাদের খেলার জন্য আছে বিশেষ ব্যবস্থা। পরিবার নিয়ে রাত কাটানোর জন্য কটেজও ভাড়া নেওয়া যাবে এই রিসোর্টে।

উৎসব রিসোর্ট

গাজীপুরের হোতাপাড়া এলাকায় অবস্থিত এই উৎসব রিসোর্ট। ১২ বিঘা জমির মধ্যে ৪টির ৩টি কটেজই টুরিস্ট পার্টির জন্য উন্মুক্ত। ফুল ও ফল গাছে সাজানো, গ্রামীণ ধাঁচে তৈরি এই রিসোর্টে আপনি প্রকৃতি ও নির্জনতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করে আসতে পারবেন। বহু পাখির অবাধ বিচরণ রয়েছে এইসব গাছের মধ্যে। ফাঁকা জায়গা আছে অনেক। খোলামেলা পরিবেশে ভালো সময় কাটিয়ে আসতে পারবেন।

যমুনা রিসোর্ট

পদ্মার মতোই যমুনা নদীর পাড়েও গড়ে তোলা হয়েছে জনসাধারণের জন্য উনু¥ক্ত একটি রিসোর্ট। সুইমিং পুল, ইনডোর গেমসের জন্য রুম, ফুটবল-ক্রিকেটের জন্য মাঠ, কটেজ, জিম সব পাবেন এই রিসোর্টে। দলবল নিয়ে ঈদের ছুটিতে ঘুরে আসতে পারবেন সহজেই। ঢাকা থেকে যেতে লাগবে দুই ঘণ্টার একটু বেশি সময়।

যান্ত্রিক জীবন থেকে দূরে গিয়ে আপনজনদের সঙ্গে ভালো সময় কে না কাটাতে চায়। প্ল্যান করে বেরিয়ে পড়ুন একদিন, সপ্তাহ শেষের ছুটিতেই।

যোগাযোগ :
পদ্মা রিসোর্ট ০১৭১২-১৭০৩৩০,
ছুটি রিসোর্ট ০১৭৭৭-১১৪৪৮৮,
নক্ষত্রবাড়ি ০১৭৭১-৭৯৯৪১০,
উৎসব রিসোর্ট ০১৭১৩-০১৪৪৫৯১,
যমুনা রিসোর্ট ০১৭১৪-৪০৪৯০২


- কাজী মাহদী আমিন