শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭
হোম / জীবনযাপন / ফিরিয়ে আনুন দাম্পত্য জীবনের প্যাশন
১১/০২/২০১৬

ফিরিয়ে আনুন দাম্পত্য জীবনের প্যাশন

- আতিফ হাসান

সুখী দাম্পত্য জীবনের অন্যতম প্রধান অনুষঙ্গ হলো সুস্থ এবং স্বাভাবিক শারীরিক সম্পর্ক। সঙ্গীর প্রতি আকর্ষণ কিংবা নিয়মিত শারীরিক সম্পর্ক জৈবিক চাহিদার মধ্যেই পড়ে। তবে একই ছাদের নিচে অনেকদিন বসবাস করতে করতে একটা সময় অনেক দম্পতির মধ্যেই এ-ব্যাপারে অনাগ্রহ কিংবা একঘেয়েমি কাজ করতে শুরু করে। শারীরিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে পারস্পরিক বোঝাপড়ার অভাব এবং আগের মতো একে-অপরের প্রতি শারীরিকভাবে আকর্ষণ অনুভব না করাকে দাম্পত্য-জীবনে অশান্তির একটি কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রের বিশেষজ্ঞরা। তবে একটু সচেতন থাকলেই দাম্পত্য-জীবনের হঠাৎ হারিয়ে যাওয়া প্যাশন ফিরিয়ে আনা সম্ভব।

নিজেদের ‘সিক্রেট কোড’ শেয়ার করুন

প্রত্যেক দম্পতিরই নিজেদের মধ্যে কিছু গোপনীয় এবং স্পর্শকাতর কথা থাকে। কখনো কখনো তা কোনো বিশেষ ইশারা-ইঙ্গিতও হতে পারে। এই ‘সিক্রেট কোডগুলো’ পুনরায় শেয়ার করতে থাকুন। এই কথা বা ইশারাগুলো কেবল আপনাদের দ’ুজনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে। কাজের ফাঁকে এ ধরনের সিক্রেট কোড শেয়ার করুন এবং সঙ্গীকে জানিয়ে দিন আপনি কী চাইছেন অথবা দিনের শেষে একান্তে সময় কাটাবেন দু’জনে। এক্ষেত্রে এই সিক্রেট কোড যে সবসময় শারীরিক সম্পর্কের দিকে ইঙ্গিত করবে তা নয়, এর সঙ্গে সঙ্গে বরং নিজেদের অনুভূতি, ভালো লাগা-মন্দ লাগাগুলোও শেয়ার করতে পারবেন। এই সাধারণ অভ্যাসটাই হারিয়ে যাওয়া রোমান্স ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করবে।

পছন্দের গান শুনুন

দু’জনের পছন্দের ভিত্তিতে প্রেমের গানের প্লেলিস্ট তৈরি করুন। সঙ্গীর সঙ্গে মিলনের ক্ষেত্রে এ ধরনের মিউজিক আপনাকে মানসিক ও শারীরিকভাবে প্রস্তুত হতে সাহায্য করবে। এ-ধরনের গানের মাধ্যমে যে আবহ তৈরি হবে, তা আপনাদের একান্ত সময়টা মধুর হয়ে উঠতে সাহায্য করবে, সেটা নিঃসন্দেহে বলা যায়।

ডেট নাইটের আয়োজন করুন

সম্পর্কের শুরুতে ডেটিং নামের শব্দটা অতি পরিচিত হলেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তা বিলুপ্ত হতে থাকে। যৌনজীবনে একঘেয়ে ভাব দূর করতে দু’জনে মিলে একান্তে ডেট নাইটের প্ল্যান করুন। তা ক্যান্ডেল-লাইট ডিনারই হোক বা অন্য কিছু, মোদ্দাকথা হলো ভিন্নতা আনার চেষ্টা করুন। এ-সময়টায় একজন অপরের সঙ্গে নিরিবিলিতে কথা বলুন, শারীরিক সম্পর্কের ব্যাপারে নিজেদের পছন্দ-অপছন্দের ব্যাপারগুলো জেনে নিন। এভাবে নিজেদের মধ্যে অন্তরঙ্গ সময় কাটানোর মাধ্যমে যাবতীয় দূরত্ব-সংকোচ কেটে যাবে এবং শারীরিকভাবে একে অপরের প্রতি আবার তীব্র আকর্ষণ অনুভব করবেন।

অবাস্তব চিন্তা বাদ দিন

পর্নোগ্রাফি কিংবা এ-জাতীয় জিনিসে অতিরিক্ত আসক্ত হয়ে সঙ্গীর কাছ থেকে একই রকম কিছু আশা করলে তা আপনার যৌনজীবনে ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলবে। সঙ্গীর কাছ থেকে অতিরিক্ত প্রত্যাশা কিংবা সঙ্গীর শারীরিক গড়ন বা ক্ষমতা নিয়ে সন্দেহ থাকলে যৌনজীবনে আপনি কোনোভাবেই সুখী থাকতে পারবেন না। এ-ধরনের অবাস্তব চিন্তা বাদ দিয়ে সঙ্গীকে আগে মানুষ হিসেবে ভালোবাসতে শিখুন।

উপভোগ করুন

মিলনের সময় মাথা থেকে সব শঙ্কা, দুশ্চিন্তা ঝেড়ে ফেলে পুরো সময়টা উপভোগ করুন। এক্ষেত্রে সঙ্গীর স্পর্শের প্রতি সংবেদনশীল হন। ফোরপে-­তে বেশ কিছু সময় কাটিয়ে তবে ধীরে ধীরে যৌনমিলনের দিকে এগোন। এক্ষেত্রে সঙ্গীকে শুধুমাত্র কাঙ্ক্ষিত শরীর না ভেবে ভালোবাসতে শিখুন।

এই সহজ নির্দেশনাগুলো মেনে চললে আপনার যৌনজীবন আনন্দময় হয়ে উঠবে, ফিরে আসবে পুরোনো রোমান্স ও উত্তেজনা।