বুধবার,১৬ অগাস্ট ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / কোরবানি ঈদ স্পেশাল রেসিপিঃ রীপা হক
০৯/০১/২০১৬

কোরবানি ঈদ স্পেশাল রেসিপিঃ রীপা হক

-

অনন্যার নিয়মিত রেসিপি কন্ট্রিবিউটারদের একজন জাপান প্রবাসী রীপা হক। রান্নাবান্না, ফুড স্টাইলিং, ফুড ফটোগ্রাফী ও ইকেবানার জন্য পরিচিত। পরিবার ও প্রিয়জনদের অনুপ্রেরণায় তার ফেসবুক পেইজ ‘রীপা হকস্ ফ্লেয়ার’-এ তিনি রেসিপির পাশাপাশি কম খরচে রান্না বা সুন্দরভাবে খাবার পরিবেশনের টিপস দিয়ে থাকেন। ঈদুল আজহা ইস্যুতে পাঠকদের জন্য তিনি দিয়েছেন বেশ কিছু আকর্ষণীয় নাস্তার রেসিপি।

ক্রিম কাস্টার্ড সেমাই

স্টেপ ১: কাস্টার্ড ক্রিম উপকরণ
ডিমের কুসুম- ৪টা
চিনি- ৪০ গ্রাম
ফ্রেশ ক্রিম- ২৬০ মিলি
দুধ- ৮০ মিলি
ভ্যানিলা এসেন্স সামান্য
সিনামন পাউডার সামান্য

প্রণালি
ডিমের কুসুম আর চিনি বোলে নিয়ে তারের ফেটানি দিয়ে খুব ভালোভাবে ফেটিয়ে নিতে হবে। এবার একটা পাতিলে ফ্রেশ ক্রিম, দুধ, ভ্যানিলা এসেন্স, সিনামন পাউডার দিয়ে ভালোভাবে গরম করে নিয়ে ডিমের কুসুমের মিশ্রণে দিয়ে নেড়ে নেড়ে মেশাতে হবে। এবার বেকিং পাত্রে ডিমের মিশ্রণ ঢেলে উপরে এ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে ঢাকা দিয়ে বেকিং ট্রে-তে গরম পানি দিয়ে তাতে ডিমের মিশ্রণের বাটি বসিয়ে ১৩০ ডিগ্রি সেলসিয়াস প্রি হিটেড ওভেনে ৪৫ মিনিট বেক করতে হবে। বা ফ্রাইংপ্যানে গরম পানি দিয়ে তাতে ডিমের মিশ্রণের পাত্রগুলো বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে অল্প আগুনে ১০-১২ মিনিট রাখতে হবে। ওভেন বা চুলা থেকে নামানোর সময় নরম থাকলেও রেফ্রিজারেটরে রাখলে জমে যাবে। রেফ্রিজারেটরে ৩-৪ ঘণ্টা রেখে ভালোভাবে জমাতে হবে।

স্টেপ ২ : সেমাই উপকরণ
সেমাই- ১০০ গ্রাম বা ১/২ প্যাকেট

পানি- আধা কেজি

তেল বা ঘি- ১ টেবিল চামচ

ড্রাই নারিকেল- ১/৮ কাপ
চিনি- ৬০ গ্রাম বা স্বাদ অনুযায়ী

পেস্তাবাদাম কুচি সামান্য

নারিকেল কুরানো সামান্য

প্রণালি
আধা লিটার পানিতে রং (ইচ্ছা) মিশিয়ে পানি চুলায় দিয়ে ফুটিয়ে নিয়ে চুলা বন্ধ করে দিতে হবে।
সেমাই ছোট ছোট টুকরা করে নিয়ে গরম পানিতে সেমাই ছেড়ে ৩০ সেকেন্ডের মতো সিদ্ধ করতে হবে বা ঝাঁঝরিতে সেমাই নিয়ে তাতে ফুটন্ত গরম পানি দিয়ে সিদ্ধ করে নিতে হবে।
এবার একটা ফ্রাইংপ্যানে তেল বা ঘি-এ বাদাম একটু ভেজে তুলে রাখতে হবে। সেমাই দিয়ে অল্প আঁচে সামান্য ভাজতে হবে। এবার চিনি ছিটিয়ে দিয়ে কম আঁচে নাড়তে হবে। এরপর নারিকেল দিতে হবে। চিনির পানি শুকালে চুলা থেকে নামিয়ে নিয়ে ঠান্ডা করে নিয়ে এবার আগে করে রাখা ঠান্ডা ক্রিমের ওপর সেমাই দিয়ে উপরে পেস্তাবাদাম কুচি ও কুরানো নারিকেল দিয়ে পরিবেশন করুন দারুণ মজার ক্রিম কাস্টার্ড সেমাই।

ম্যাডলিন- ফ্রান্সের ক্লাসিক কেক

উপকরণ
ময়দা- ১০০ গ্রাম (৩/৪ কাপ+২ টেবিল চামচ)
বেকিং পাউডার- ১ চা চামচ
ডিম- ১ টা
বাটার- ৯০ গ্রাম
চিনি- ৬০ গ্রাম
মিল্ক চকলেট- ৩০ গ্রাম
পেস্তাবাদাম বা অন্য বাদামকুচি পরিমাণমতো

প্রণালি
ম্যাডলিন বেকিং পাত্রে হালকা বাটার, পরে হালকা ময়দা লাগিয়ে নিতে হবে। বাটার মাইক্রোওয়েভে দিয়ে বা গরম পানির উপর বাটি বসিয়ে গলিয়ে নিতে হবে। ময়দা ও বেকিং পাউডার এক সঙ্গে মিলিয়ে একবার চেলে নিতে হবে। বোলে ডিম নিয়ে তারের ফেটানি দিয়ে ফেটিয়ে তাতে চিনি দিয়ে ভালোভাবে ফেটিয়ে নিতে হবে। এবার তাতে ময়দার মিশ্রণ দিয়ে মেশাতে হবে। গলানো বাটার দিয়ে খুব ভালোভাবে মেশাতে হবে। এবার খামির বেকিং পাত্রে ঢেলে ১৮০ ডিগ্রি সেলসিয়াস প্রি-হিটেড ওভেনে ১৫-১৮ মিনিট বেক করতে হবে। ওভেন থেকে বের করে কেক ঠান্ডা করে নিন। মিল্ক চকলেট একটা বাটিতে নিয়ে সেটা গরম পানির উপর বসিয়ে গলিয়ে নিয়ে তা ম্যাডলিনে লাগাতে হবে। এবার ম্যাডলিন লাগানো চকলেটের উপর পেস্তাবাদাম বা অন্য বাদামকুচি লাগিয়ে কিছুক্ষণ জমে যাওয়ার জন্য রাখুন। চকলেট জমে গেলে চা বা কফির সঙ্গে উপভোগ করুন মজার ফ্রান্সের ক্লাসিক কেক ম্যাডলিন।

বানানা চিজ কেক

উপকরণ
ক্রিম চিজ- ২০০ গ্রাম
চিনি- ৫০-৬০ গ্রাম
ডিম- ২টা, হালকা ফেটানো
ময়দা- ২০ গ্রাম
ফ্রেশ ক্রিম- ১০০ মিলি
কুকিজ- ৮০ গ্রাম
বাটার- ৪০ গ্রাম
কলা- ১টা, বড়
ফ্রেশ ক্রিম- ৫০ মিলি
পানি- ১ টেবিল চামচ
চিনি- ৫০ গ্রাম
সাজানোর জন্য- হুইপড্ ক্রিম, কলা ১টা, মিন্ট বা পুদিনাপাতা।

প্রণালি
বেকিং পাত্রে বেকিং পেপার বিছিয়ে নিতে হবে। কুকিজ বা বিস্কুট গুঁড়া করে তাতে গলানো বাটার দিয়ে মিশিয়ে বেকিং পাত্রে ঢেলে হাত দিয়ে চেপে চেপে সমান করে দিতে হবে। কলা ছোট ছোট টুকরা করে নিন। ফ্রেশ ক্রিম সামান্য গরম করে নিতে হবে। একটা পাতিলে চিনি ও পানি নিয়ে চুলায় বসিয়ে তা ক্যারামেল রঙের হলে তাতে কলা দিয়ে নেড়ে তারপর ফ্রেশ ক্রিম দিয়ে গাঢ় রঙের ক্যারামেল হলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। এবার একটা বাটিতে ঘরের নরম্যাল তাপে নরম করা ক্রিম চিজ নিয়ে তারের ফেটানি দিয়ে ফেটিয়ে চিনি দিয়ে মেশাতে হবে। এবার ফেটানো ক্রিম চিজের মিশ্রণে পর্যায়ক্রমে অল্প অল্প করে ফেটানো ডিম, ফ্রেশ ক্রিম, ও ক্যারামেল বানানা দিয়ে মেশান। এবার তাতে ময়দা একবার চেলে নিয়ে তা স্প্যাটুলা দিয়ে ভাঁজে মেশাতে হবে। খামির বেকিং পাত্রে ঢেলে বেকিং পাত্রটা ঝাঁকিয়ে নিয়ে ১৭০ ডিগ্রি প্রি-হিটেড ওভেনে ৪০-৪৫ মিনিট বেক করতে হবে। ওভেনের তাপ বেশি হলে তাপ/সময় কমিয়ে বা কেকের উপরে এ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে ঢেকে দিলে উপরে পুড়ে যাবে না।
ঠান্ডা হলে পরিবেশনের পাত্রে নিয়ে উপরে হুইপড্ ক্রিম, কুকি কাটার দিয়ে কাটা কলা ও পুদিনাপাতা দিয়ে ডেকোরেশন করে পরিবেশন করুন মজার বানানা চিজ কেক।

এগ টার্ট

স্টেপ ১- কাস্টার্ড ক্রীম উপকরণ
ডিমের কুসুম- ৩টা, দুধ- ১৫০ মি.লি, হালকা গরম
চিনি- ৪৫ গ্রাম (৪ টেবিল চামচ +১ চা চামচ )
কর্নস্টার্চ- ৮ গ্রাম, ফ্রেশ ক্রিম- ৭৫ মি.লি
ভ্যানিলা এসেন্স সামান্য
প্রণালি
একটা বাটিতে ডিমের কুসুম ও হালকা গরম দুধ অল্প নিয়ে তারের ফেটানি দিয়ে মেশাতে হবে। এবার চিনি, কর্নস্টার্চ দিয়ে মিশিয়ে বাকি দুধ দিয়ে মেশাতে হবে। একটা পাতিলে দুধের মিশ্রণ নিয়ে চুলায় বসিয়ে তারের ফেটানি দিয়ে নাড়তে হবে। ঘন হয়ে এলে চুলা থেকে নামায়ে নিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে। এবার ফ্রেশ ক্রিম, ভ্যানিলা এসেন্স দিয়ে তারের ফেটানি দিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে ।

স্টেপ ১- পেস্ট্রি ডো বা টার্টপেস্ট্রি উপকরণ
ময়দা- ১ কাপ
বাটার- ৫০ গ্রাম, নরম
পাউডার সুগার- ১/৮ কাপ
ফেটানো ডিম- ১ টেবিল চামচ
লবণ- ১/১৬ চা চামচ
সাজানোর জন্য
হুইপড্ ক্রিম, ব্লুবেরী বা যে কোনো ফল, মিন্ট বা পুদিনাপাতা।

প্রণালি
ময়দা, চিনি, লবণ একসঙ্গে চেলে নিতে হবে। নরম বাটার দিয়ে হালকাভাবে মেশান। বেশি মেশালে খামির শক্ত হয়ে যাবে। ডিম দিয়ে মিশিয়ে খামির গোল করে ঢাকনা দিয়ে ফ্রিজে ৩০ মিনিট বা শক্ত হওয়া পর্যন্ত রাখতে হবে। খামির সমান ৮ ভাগ করে বেকিং পাত্রে তেল স্প্রে করে তাতে বেকিং কাপে খামির সমানভাবে লাগান। তলা যেন বেশি পুরু না হয়। এবার কাস্টার্ড ক্রিম চামচ দিয়ে কাপের ৮০% ভরে নিতে হবে। এবার ২৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস প্রি-হিটেড ওভেনে ১৫ মিনিট পরে তাপ কমিয়ে ২০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে মিনিট ৫ বেক করুন। ঠান্ডা হলে হুইপড্ ক্রিম, ফ্রুট, পুদিনাপাতা বা নিজের পছন্দমতো ডেকোরেশন করে পরিবেশন করুন মজার এগ টার্ট।
* এগ টার্ট পাই পেস্ট্রি দিয়েও করা যায়।
* বাজারের কেনা পাই শীট বেলে নিয়ে গোল করে কেটে বেকিং পাত্রে সমান করে লাগাতে হবে। কাঁটাচামচ দিয়ে কয়েকটা ছিদ্র করে নিন। এবার কাস্টার্ড ক্রিম চামচ দিয়ে কাপে ৮০% ভরে নিন। এবার ২৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস প্রি-হিটেড ওভেনে ১৫ মিনিট পরে তাপ কমিয়ে ২০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে মিনিট ৫ বেক করে পরিবেশন করুন।

মিট পাই

উপকরণ পুরের জন্য
গরুর মাংসের কিমা- ৩৫০ গ্রাম
পেঁয়াজকুচি- ১ কাপ
আলু- ১টা, কিউব করে কাটা
মটরশুঁটি- ১/৪ কাপ
হলুদ- ১/২ চা চামচ
ধনেগুঁড়া- ১ চা চামচ
আদাবাটা- ১/২ চা চামচ
গরম মসলা- ১/২ চা চামচ
কারি পাউডার- ১/২ চা চামচ
মরিচ গুঁড়া পরিমাণমতো
লবণ, তেল পরিমাণমতো।

প্রণালি
একটা ফ্রাইংপ্যানে মাংসের কিমা দিয়ে সামান্য ভেজে তাতে পেঁয়াজকুচি ও আলু দিয়ে কিছুক্ষণ ভেজে নিয়ে তাতে লবণ, বাকি সব মসলা দিয়ে ভেজে নিন। ভালো করে ভাজা হলে এবার সিদ্ধ মটরশুঁটি দিয়ে কিছুক্ষণ চুলায় রেখে চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে।

খামির- ১ উপকরণ
ময়দা- আড়াই কাপ
লবণ- ১/২ চা চামচ
পানি- ১/২ কাপ, হালকা গরম
ডিম- ১টা
তেল- ১ টেবিল চামচ
প্রণালি
সব উপকরণ একসঙ্গে ভালোভাবে মিশিয়ে দুই ভাগ করে বলের মতো গোল করে ৩০ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে।
খামির- ২ উপকরণ
ময়দা- ১ কাপ+ ১/৪ কাপ
ঠান্ডা বাটার- ৭৫ গ্রাম
প্রণালি
ময়দা ও ঠান্ডা বাটার কেটে কেটে একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। খামির ভালোভাবে মেশানো হলে ২ ভাগ করে গোল করে নিতে হবে। এবার ১ নং খামির সামান্য বেলে নিয়ে তার মধ্যে ২ নং খামির দিয়ে মুড়িয়ে গোল করে নিন। খামির নিয়ে রুটির মতো পাতলা করে বেলে নিতে হবে। এবার সুইস রোলের মতো করে মুড়িয়ে নিয়ে আবার বেলে নিতে হবে। আবার রোলের মতো করে মুড়িয়ে নিতে হবে। এবার গোল গোল করে ১ সে.মি করে কেটে নিয়ে তা বেলে তার মধ্যে কিমার পুর ঢুকিয়ে পুলি পিঠার মতো মুড়িয়ে নিতে হবে। একই প্রক্রিয়ায় সব খামির দিয়ে পাই বানাতে হবে। এবার সব পাই বানানো শেষ হলে মধ্যম থেকে জোর আগুনে গরম তেলে ভেজে নিন। সব ভাজা শেষ হলে পরিবেশনের পাত্রে রেখে পরিবেশন করুন মজার মিট পাই।

রোস্ট বিফ সালাদ

উপকরণ
গরুর মাংস- ৩০০ গ্রাম, হাড় ছাড়া বড় টুকরা
রসুনবাটা- এক-দেড় চা চামচ
শসা- ৩টা, চেরী টমেটো- ২টা
লবণ, গোলমরিচ গুঁড়া পরিমাণমতো
লেবু, লেটুস পাতা, অলিভ অয়েল সামান্য
সালাদ ড্রেসিং বা যেকোনো রোস্ট বিফ সস
সালাদ ড্রেসিং
উপকরণ
মাস্টার্ড বা সরিষাবাটা- ১ টেবিল চামচ
বাটার- ১ টেবিল চামচ
সয়া সস- ১/২ টেবিল চামচ
মধু- ১/২ টেবিল চামচ
তিল সামান্য (ঐচ্ছিক)

প্রণালি
মাংসের টুকরা রসুনবাটা, লবণ, গোলমরিচ দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে ১ ঘণ্টা রাখতে হবে (ঘরের নরম্যাল তাপে)। ভাজার আগে অলিভ অয়েল মাংসে মাখিয়ে নিন। ফ্রাইংপ্যানে অলিভ ওয়েল দিয়ে জোরে আগুনে প্রথমে মাংসের উপরের পিঠ তারপর নিচের পিঠ ও শেষে দুই পাশ ২ মিনিট করে ভেজে নিতে হবে। মাংসের সব পিঠ সামান্য পোড়া পোড়া ভাবে ভাজা হলে চুলা থেকে নামিয়ে এ্যালুমিনিয়াম ফয়েল ডাবল করে মুড়িয়ে ফ্রাইংপ্যানে রেখে ঢাকনা দিয়ে অল্প আগুনে ৫-১০ মিনিট রেখে এবং চুলা বন্ধ করে আরো ৫০ মিনিট রেখে দিন। মাংস ঠান্ডা হলে ফ্রাইংপ্যান থেকে তুলে রেফ্রিজারেটরে রেখে ১ ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। ফ্রাইংপ্যানে যে তেল বা ঝোল থাকবে, সেটাতে মাস্টার্ড বা সরিষাবাটা, বাটার, সয়া সস, মধু দিয়ে চুলায় অল্প আঁচে বসিয়ে ভালোভাবে মিশে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে সস পরিবেশনের পাত্রে রাখতে হবে। মাংস (রোস্ট বিফ) রেফ্রিজারেটর থেকে বের করে খুব পাতলা স্লাইস করে কেটে নিয়ে আবার সামান্য গোলমরিচ দিয়ে মাখিয়ে রাখুন। এবার শসা পাতলা করে কেটে বেকিং পেপারের উপর পরপর বসিয়ে নিতে হবে। এবার তার উপর মাংস (রোস্ট বিফ) দিয়ে সুইস রোল কেকের মতো মুড়িয়ে নিয়ে রেফ্রিজারেটরে ১০ মিনিট রাখতে হবে। এবার কেকের মতো কেটে পরিবেশনের পাত্রে লেটুস পাতা, লেবু, টমেটো ও সস বা ড্রেসিং দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার রোস্ট বিফ সালাদ।