শুক্রবার,২৪ নভেম্বর ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / কোরবানি ঈদ স্পেশাল রেসিপিঃ বীথি জগলুল
০৯/০১/২০১৬

কোরবানি ঈদ স্পেশাল রেসিপিঃ বীথি জগলুল

-

হোমমেকার বীথি জগলুল একজন প্যাশনেট রাঁধুনিও বটে। রান্নাকে মনে করেন একটি শিল্প।ছোটোবেলা থেকে গড়ে ওঠা এই ভালোবাসা তাকে উৎসাহী করেছে রান্না-বান্না নিয়ে পড়াশোনা ও এক্সপেরিমেন্ট-এ। ফেসবুকে রয়েছে তার বীথি’স কিচেন নামের একটি পেজ, যেখানে নতুন রাঁধুনিদের উৎসাহ ও সাজেশন দেয়া হয়ে থাকে। ঈদুল আজহা উপলক্ষে বীথি জগলুলের ছয়টি মজাদার রেসিপি।

বিফ পটেটো সালাদ

উপকরণ
বেবী পটেটো- ২/৩ কাপ, সিদ্ধ
বিফ- ২ কাপ, রান্না করা
মরিচগুঁড়া- ১ চা চামচ
অলিভ অয়েল- ২/৩ টেবিল চামচ
টক দই- ১ টেবিল চামচ
মাস্টার্ড সস- ১ টেবিল চামচ
ধনেপাতা/পুদিনাপাতা কুচি- ১ টেবিল চামচ
লেবুর রস ও যেস্ট ১ টি মাঝারি লেবুর
গোলমরিচ গুঁড়া স্বাদমতো
লবণ পরিমাণমতো

প্রণালি
রান্না করা মাংস জুলিয়ান করে কেটে নিন। সিদ্ধ আলুর সঙ্গে লবণ ও মরিচগুঁড়া মাখিয়ে অল্প তেলে হালকা করে ভেজে উঠিয়ে রাখুন। একই প্যানে রান্না করা মাংসও ভেজে নিন। একটি বাটিতে টক দই, মাস্টার্ড সস, লেবুর রস, লেবুর যেস্ট, অলিভ অয়েল ও গোলমরিচ গুঁড়া মেশাতে হবে। এবার ভেজে রাখা আলু ও মাংসের সঙ্গে এই মিশ্রণটি এবং ধনেপাতা অথবা পুদিনাপাতা কুচি চামচ দিয়ে মিশিয়ে নিন। প্রয়োজনে লবণ দিন। পোলাও বা ফ্রাইড রাইসের সঙ্গে পরিবেশন করুন।

ইয়েলো রাইস

উপকরণ
চাল- ২ কাপ
কাজুবাদাম- ১০/১২টি
কিশমিশ- ১০/১৫টি
দারুচিনি- ২ টুকরা
এলাচ- ৩/৪টি
লবঙ্গ- ৫/৬টি
তেজপাতা- ২টি
পানি- ৪ কাপ
গরম মসলা গুঁড়া- ১ চা চামচ
হলুদগুঁড়া- ১/২ চা চামচ
জাফরান- ১/৪ চা চামচ
গোলাপজল- ২/৩ফোঁটা
লবণ- ২ চা চামচ
চিনি- ২ টেবিল চামচ (ঐচ্ছিক)
ঘি- ৪ টেবিল চামচ

প্রণালি
চাল ও কিশমিশ ধুয়ে আধা ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে পানি ঝরিয়ে রাখুন। হাঁড়িতে ১ টেবিল চামচ ঘি গরম করে সোনালি করে কাজুবাদাম ভেজে উঠিয়ে রাখুন। একই প্যানে বাকি ঘি গরম করে দারুচিনি, এলাচ, লং ও তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে কিশমিশ ও চাল দিয়ে ভাজতে হবে। চাল ভাজার ফাঁকে অন্য একটি হাঁড়িতে পানি নিয়ে তাতে হলুদ ও গরম মসলা গুঁড়া, জাফরান, চিনি ও গোলাপজল মিশিয়ে চুলায় বসান। ফুটে উঠলেই নামিয়ে রাখুন। চাল ভাজা হলে ফোটানো পানি ও লবণ মিশিয়ে নিন। চাল ও পানি এক লেভেলে এলে ভাজা কাজুবাদাম মিশিয়ে হাঁড়িটি তাওয়ার ওপর বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে আঁচ কমিয়ে মিনিট বিশেক দমে রাখুন। মাঝখানে একবার কাঠের খুন্তি দিয়ে নেড়ে দেবেন। চাল সিদ্ধ হয়ে গেলে নামিয়ে ফেলুন। গরম গরম পরিবেশন করুন ভিন্নস্বাদের ইয়েলো রাইস।

মজাদার বিফ নেহারি

উপকরণ
পায়া- ২ কেজি
পিঁয়াজকুচি- ২ কাপ
আদাবাটা- ৩/৪ টেবিল চামচ
রসুনবাটা ২/৩ টেবিল চামচ
হলুদগুঁড়া- ২ চা চামচ
মরিচ/জিরাগুঁড়া- ২/৩ চা চামচ করে
ধনেগুঁড়া- ১ চা চামচ
ভাজা মসলা- ২/৩ চা চামচ
কাঁচামরিচ- ৮-১০টি
আস্ত গরম মসলা-দরকারমতো
ধনেপাতা সাজানোর জন্যে
লবণ স্বাদমতো।
ভাজা মসলার উপকরণ
এলাচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, গোলমরিচ, তেজপাতা, শুকনা মরিচ, ধনে, জিরা, মৌরি - সবকিছু শুকনো তাওয়ায় টেলে গুঁড়া করে নেয়া।

প্রণালি
হাড় পরিষ্কার করে কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। একটি বড় হাঁড়িতে হাড়ের দ্বিগুণ পানিতে ভাজা মসলা ছাড়া অন্যান্য সব কিছু মিশিয়ে নিন। এবার পানিতে হাড় দিয়ে চুলায় বসান। ফুটে উঠলে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে রান্না করুন। ২-৩ ঘণ্টা রান্না হলে ভালো। হাড়ের সব কিছু যখন প্রায় খুলে খুলে আসবে, তখন ঢাকনা খুলে আঁচ বাড়িয়ে দিন। ঝোল ঘন হয়ে এলে কাঁচামরিচ ও ভাজা মসলা দিয়ে কিছুক্ষণ দমে রেখে নামিয়ে ফেলুন। গরম গরম পরিবেশন করুন নান অথবা চালের রুটির সঙ্গে।
* তেল দেয়ার দরকার নেই। হাড়ের চর্বি থেকেই প্রচুর তেল বের হবে।

চুইঝালে বিফ ভুনা

উপকরণ
বিফ- ২ কেজি
চুইঝাল- ২ কাপ, মাঝারি টুকরা করে কাটা
পেঁয়াজকুচি- ১ কাপ
টক দই- ১/২ কাপ
আদাবাটা- ৩ টেবিল চামচ
রসুনবাটা- ২ টেবিল চামচ
হলুদ-মরিচগুঁড়া- ১ চা চামচ করে
গরম মসলা গুঁড়া- ১ টেবিল চামচ
ভাজা জিরার গুঁড়া- ১ চা চামচ
সরিষার তেল- ১ কাপ
আস্ত গরম মসলা দরকারমতো
লবণ স্বাদমতো

প্রণালি
মাংস মাঝারি টুকরা করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন। মাংসের সঙ্গে লবণ ও টক দই মাখিয়ে কমপক্ষে ১ ঘণ্টা ম্যারিনেট করুন। হাঁড়িতে তেল গরম করে আস্ত গরম মসলা ফোড়ন দিয়ে বাদামি করে পেঁয়াজ ভেজে নিন। এবার অল্প পানিতে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা কষিয়ে নিন। মসলা থেকে তেল ছেড়ে দিলে ম্যারিনেট করা মাংস ও চুইঝাল মিশিয়ে নিন। খুব ভালোভাবে মাংস কষিয়ে নিন। কয়েকবারে অল্প অল্প পানি দিয়ে মাংস কষান।
এবার গ্রেভি বা ঝোলের জন্যে পরিমাণমতো পানি দিয়ে ঢাকনা দিয়ে আঁচ কমিয়ে রান্না করুন। মাংস সিদ্ধ হয়ে তেল ছেড়ে দিলে ভাজা জিরার গুঁড়া ও গরম মসলার গুঁড়া মিশিয়ে কিছুক্ষণ দমে রেখে নামিয়ে ফেলুন। গরম গরম পরিবেশন করুন পোলাও অথবা খিচুড়ির সঙ্গে।

মাটন চাপ

উপকরণ
মাটন রিবস- ১ কেজি
টক দই- ১/৪ কাপ
পেঁয়াজবাটা- ১/৪ কাপ
আদাবাটা- ২ টেবিল চামচ
রসুনবাটা- ১ টেবিল চামচ
মরিচগুঁড়া- ২ চা চামচ
হলুদগুঁড়া- ১ চা চামচ
কাঁচা পেঁপের রস- ১/৪ কাপ (ঐচ্ছিক)
গরম মসলা গুঁড়া- ২ টেবিল চামচ
জায়ফল/জয়ত্রীগুঁড়া- ১/২ চা চামচ
শাহীজিরা- ১ চা চামচ, আস্ত
বেসন- ১ টেবিল চামচ, ভাজা
তেজপাতা- ৪টি
ঘি- ২ টেবিল চামচ
কেওড়া/গোলাপজল কয়েক ফোঁটা
তেল/লবণ পরিমাণমতো

প্রণালি
মাংস ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখুন। টক দই ভালোভাবে ফেটিয়ে নিন। মাংসের সঙ্গে টক দই ও পেঁপের রস মাখিয়ে কমপক্ষে ১ ঘণ্টার জন্যে নরমাল ফ্রিজে রেখে দিন। হাঁড়িতে তেল গরম করে শাহীজিরা ও তেজপাতা ফোড়ন দিয়ে আদা-রসুন বাটা ও হলুদ-মরিচগুঁড়া কষিয়ে মাংস ঢেলে দিন। আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে রান্না করুন কমপক্ষে ৩০ মিনিট। ৩০ মিনিট পর বেসন ও গরম মসলাগুঁড়া, জায়ফল-জয়ত্রীগুঁড়া মিশিয়ে নিন। পরিমাণমতো পানি দিয়ে আবার ঢাকনা দিয়ে রান্না করুন ৪০-৫০ মিনিট অথবা মাংস সিদ্ধ হওয়া পর্যন্ত। মাংস সিদ্ধ হয়ে তেল ছেড়ে দিলে কেওড়া জল ও ঘি মিশিয়ে কয়েক মিনিট দমে রেখে নামিয়ে ফেলুন। গরম গরম পরিবেশন করুন পোলাও অথবা পরোটা-নান রুটির সঙ্গে।

মাটন পাসান্দ

উপকরণ
মাটন- ২ কেজি
টক দই- ১ কাপ
পেঁয়াজ বেরেস্তা- ১ কাপ
আদা ও রসুনবাটা- ২-৩ টেবিল চামচ করে
কাজু বাদামবাটা- ২ টেবিল চামচ
হলুদগুঁড়া- দেড় চা চামচ
মরিচগুঁড়া- ১ টে চামচ
গরম মসলা গুঁড়া- ১ টেবিল চামচ
জিরা- ১ চা চামচ, আস্ত
কাঁচামরিচ- ৫-৬টি
আস্ত গরমমসলা দরকারমতো
তেল পরিমাণমতো
লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি
অল্প টক দই দিয়ে পেঁয়াজ বেরেস্তা পেস্ট করে রাখুন। লবণ, টক দই, আদা-রসুনবাটা, মরিচ ও হলুদ গুঁড়া দিয়ে মাংস মাখিয়ে রাখুন কমপক্ষে ১ ঘণ্টা। প্যানে তেল গরম করে আস্ত জিরা ও গরম মসলা ফোড়ন দিয়ে ম্যারিনেট করা মাংস ঢেলে দিন। বাদাম ও বেরেস্তার পেস্ট মিশিয়ে ভালোভাবে কষিয়ে নিন। মাংস কষানো হলে পরিমাণমতো পানি দিয়ে আঁচ কমিয়ে ঢাকনা দিয়ে রান্না করুন।
মাঝে মাঝে নেড়ে দিন। মাংস সিদ্ধ হয়ে গেলে গরম মসলাগুঁড়া ও কাঁচামরিচ মিশিয়ে কিছুক্ষণ দমে রাখুন। তেল ছেড়ে দিলে নামিয়ে নিন। পোলাও অথবা ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন।