বৃহস্পতিবার,২৩ নভেম্বর ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / কোরবানি ঈদ স্পেশাল রেসিপিঃ রোয়েনা মাহজাবিন
০৯/০১/২০১৬

কোরবানি ঈদ স্পেশাল রেসিপিঃ রোয়েনা মাহজাবিন

-

ভালোবাসেন নানারকম রান্না করে প্রিয়জনদের আপ্যায়ন করতে। সেই সঙ্গে সমান আগ্রহ খাবার সুন্দর করে পরিবেশন করাতে। ফুড ফটোগ্রাফিতেও তিনি সমান দক্ষ। ঈদ উপলক্ষে রোয়েনা মাহজাবিন দিয়েছেন বেশ কয়েকটি আকর্ষণীয় রেসিপি।

রোজ আইস টি

উপকরণ
গোলাপের পাপড়ি- ৬/৭টি
গ্রিন টি ব্যাগ- ২টি
পানি- ২ কাপ
গোলাপজল- ১ চা চামচ
লেবুর রস- ১ চামচ
লেবু- ১টা গোল করে কাটা
ফুড কালার- ১ ফোঁটা (ইচ্ছে)।
পুদিনাপাতা অল্প কিছু
বরফকুচি প্রয়োজনমতো
চিনি স্বাদমতো

প্রণালি
প্রথমে পানি গোলাপের পাপড়িসহ ফুটিয়ে এতে গ্রিন টি ব্যাগ ডুবিয়ে চিনি মিশিয়ে চা তৈরি করে নিন। এরপর ঠান্ডা করে এতে গোলাপজল ও লেবুর রস মেশান। চাইলে ফুড কালার দিন। এবার কাপে ঢেলে বরফকুচি, লেবু কাটা, পুদিনাপাতা ও গোলাপের পাপড়ি দিয়ে পরিবেশন করুন।

সিচুয়ান বিফ সালাদ

উপকরণ
গাজর- ১টা
ক্যাপসিকাম- ১টা (সবুজ, হলুদ)
শসা- ১টা
বাঁধাকপি- অর্ধেকটা
টমেটো- ২টা
পেঁয়াজ- ২টা
ধনেপাতা- ১ মুঠো
উপরের সব উপকরণ চিকন লম্বাকুচিকরে রাখতে হবে।

গরুর মাংস- ১ কাপ (জুলিয়ান কাট)
আদা-রসুনবাটা- ১/২ চা চামচ
সিরকা- ১ টেবিল চামচ
গোলমরিচের গুঁড়া- ১ চা চামচ
লবণ স্বাদমতো
তেল- ১ চা চামচ
উপরের উপকরণ দিয়ে মাংস সিদ্ধ করেনিতে হবে।
চিনা বাদাম- ১ টেবিল চামচ
চিনি- ১ টেবিল চামচ
লেবুর রস- ৩ টেবিল চামচ
সিচুয়ান পেপার/গোলমরিচের গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
তিল ভাজা- দেড় টেবিল চামচ
লবণ স্বাদমতো

প্রণালি
চিনা বাদাম হালকা ভেজে চিনি ছিটিয়ে নামিয়ে আধা ভাঙা করে নিতে হবে।
এরপর সবজি ও সিদ্ধ মাংসের সঙ্গে বাকি সব উপকরণ ভালোমতো মিশিয়ে উপরে আরও কিছু বাদাম ও ধনেপাতা কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।

সিন্ধি বিরিয়ানি

উপকরণ
মুরগি- ১টা, বড় (ফার্মের)
বাসমতি চাল- ১ কেজি
পেঁয়াজ বেরেস্তা- দেড় কাপ
আলু- ৩টা
আদা-রসুন বাটা- ২ চা চামচ
লালমরিচ গুঁড়া- ১ চা চামচ
টমেটো পেস্ট- ১/২ কাপ
পেঁয়াজ বাটা- ২ টেবিল চামচ
টক দই- ১/২ কাপ
গরম মসলা- ১ টেবিল চামচ
দারুচিনি- ২ টা
এলাচ- ৪ টা, লবঙ্গ- ৩ টা
তেজপাতা- ২ টা
বড় এলাচ- ১ টা
স্টার অ্যানিস- ১ টা
টমেটো- ১ টা
লেবু- ১ টা, কমলা- ১ টা
ধনেপাতাকুচি- ১ মুঠো
পুদিনাপাতাকুচি- ১ মুঠো
আলুবোখারা- ৩টা
তেল ১/২ কাপ বা তার কিছু বেশি
লবণ স্বাদমতো
জাফরান রং বা ফুড কালার, সামান্য

গরম মসলার জন্যে-
শাহী জিরা- ১ চা চামচ
এলাচ- ৩টা
দারুচিনি- ১টা
তেজপাতা- ১টা
জায়ফল-জয়ত্রী- অর্ধেকটা
লবঙ্গ- ২/৩টা
ধনে- ১ চা চামচ
কাবাবচিনি- ২ চা চামচ
গোলমরিচ- ১ চামচ
সব ক’টি মসলা তাওয়ায় টেলে গুঁড়া করে নিতে হবে।

প্রণালি
মুরগি নরমাল সাইজ পিস করে কেটে অল্প লবণ মেখে তেলে হালকা ভেজে তুলুন। অর্ধেক বেরেস্তা, টক দই, মরিচগুঁড়া, পেঁয়াজবাটা, আদা রসুনবাটা, হলুদগুঁড়া, গরম মসলা ও অল্প পানি দিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। এবার এই পেস্ট মুরগি ভাজা তেলে ভুনতে থাকুন। ১০ মিনিট ভুনে এতে মুরগি দিয়ে দিন। মুরগি মসলায় ভালোমতো কষিয়ে অল্প পানি দিয়ে রান্না করুন। পানি টেনে ঝোল শুকিয়ে মাখা মাখা হলে নামিয়ে রাখুন। আলু বড় করে কেটে পানিতে সিদ্ধ করে সামান্য ফুড কালার দিয়ে হালকা তেলে ভেজে রাখুন। চাল ধুয়ে একটি বড় হাঁড়িতে ডুবো পানিতে সব আস্ত গরম মসলা ও লবণ দিয়ে চাল শতকরা ৪০ ভাগ সিদ্ধ করে পানি ঝরিয়ে রাখুন। এবার একটি বড় হাঁড়িতে প্রথমে অল্প কিছু চাল দিয়ে এর উপর অর্ধেক মুরগি, অল্প বেরেস্তা,ধনেপাতা, পুদিনাপাতা, পাতলা গোল করে কাটা লেবু, টমেটো ও কমলার টুকরা বিছিয়ে দিন। কিছু আলু, আলুবোখারা দিন। এরপর উপরে অর্ধেকটা সিদ্ধ চাল দিয়ে আবার একইভাবে মুরগি আর বাকি উপকরণ এর আরেকটি লেয়ার দিয়ে সবার উপরে সিদ্ধ চাল দিয়ে ঢেকে দিন। বেরেস্তা দিয়ে অল্প জাফরান একটু পানিতে গুলিয়ে উপরে ছিটিয়ে দিয়ে ঢাকনা লাগিয়ে চুলার নিভু আঁচে তাওয়ার উপর হাঁড়িটি বসিয়ে রাখুন ৩০ মিনিট। এরপর গরম বিরিয়ানি একটু নেড়ে পরিবেশন করুন।

মাসালা কাবাব গ্রেভি

উপকরণ
কাবাবের জন্য-
গরুর কিমা- ৫০০ গ্রাম
ডিম- ২ টা (মাঝারি)
পেঁয়াজ মিহিকুচি- ১/২ কাপ
আদা-রসুন বাটা- ১ চা চামচ
লেবুর রস- ১ টেবিল চামচ
লাল মরিচের গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
পাউরুটি- ২ পিস, ১/৪ কাপ তরল দুধে ভিজিয়ে রাখা।
তন্দুরি মসলা- ২ চা চামচ
গরম মসলার গুঁড়া- ১ চা চামচ
জিরা গুঁড়া- ১ চা চামচ
ব্রেড ক্রাম্ব- ১/২ কাপ বা কিছু বেশি
পুদিনা পাতাকুচি- ১ মুঠো
তেল ভাজার জন্যে, লবণ স্বাদমতো
প্রণালি
সব উপকরণ একসঙ্গে ভালোমতো মাখিয়ে গোল গোল করে কাবাব বানিয়ে ডুবোতেলে ভেজে তুলে রাখুন।
মাসালা গ্রেভির জন্যে-
টক দই- ১/৪ কাপ, পেঁয়াজবাটা- ১/৪ কাপ
টমেটো পেস্ট- ১/৪ কাপ
আদা রসুনবাটা- ১ চা চামচ
ডানো ক্রিম- ১/৩ কাপ
লালমরিচ গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
জিরা গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
এলাচ- ২টা, দারুচিনি- ১টা
ধনেপাতা কুচি- ১ মুঠো
তন্দুরি মসলা- ১ চা চামচ
তেল- ১/৪ কাপ, লবণ স্বাদমতো

প্রণালি
কড়াইয়ে তেল গরম করে ধনেপাতা বাদে বাকি সব উপকরণ একটা পাত্রে সামান্য পানি দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এবার পেস্টটি তেলে দিয়ে ১০ মিনিট ভুনে নিন। প্রয়োজনে সামান্য পানি দিন। এবার কাবাবগুলো দিয়ে ঢেকে দিন। আরও ১৫ মিনিট পর গ্রেভিটা ঘন হয়ে এলে উপরে ধনেপাতা কুচি ছড়িয়ে দিয়ে নামিয়ে নিন।

কড়াই মাছ

উপকরণ
তেলাপিয়া/কোরাল বা এ ধরনের যেকোনো মাছ- ১/২ কেজি (ফিলে করা)।
পেঁয়াজ মিহিকুচি- ১/২ কাপ
আদাবাটা- ১/২ চা চামচ
রসুনবাটা- ১/২ চা চামচ
টমেটোকুচি- ১/২ কাপ
টক দই- ১/৪ কাপ
আস্ত ধনে- ১ চা চামচ
আস্ত জিরা- ১ চা-চমচ
মরিচ গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
গরম মসলা গুঁড়া- ১ চা-চমচ
লেবুর রস- ১ টেবিল চামচ
কাঁচামরিচ- ২ /৩টা
ধনেপাতাকুচি- ১ মুঠো
তেল- ১/২ কাপ বা কিছু কম
লবণ স্বাদমতো

প্রণালি
আস্ত ধনে আর জিরা তাওয়ায় হালকা টেলে আধা ভাঙা করে রাখুন।
মাছ ফিলে করে ছোট ছোট পিস করে কেটে সামান্য লবণ আর লেবুর রস দিয়ে তেলে হালকা ভেজে তুলে রাখুন।
এরপর ওই তেলেই পেঁয়াজকুচি ছেড়ে একটু ভেজে এতে আদা-রসুন, মরিচ গুঁড়া দিয়ে মসলা কষিয়ে নিন।
এরপর এতে একে একে টমেটো, কাঁচামরিচ, গরম মসলা গুঁড়া, টক দই, ধনে আর জিরার গুঁড়া, লেবুর রস সব দিয়ে নেড়ে মাছগুলো দিয়ে দিতে হবে।
সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে কিছুক্ষণ রান্না করে সবশেষে ধনেপাতা দিয়ে নামিয়ে নিন।

ব্লুবেরি চিজ ডিলাইট

উপকরণ
ক্রিম চিজ- ২০০ গ্রাম
টক দই- সিকি কাপ (ঘন)
কনডেন্সড মিল্ক- ২ থেকে ৩ টেবিল চামচ (বা স্বাদমতো)
লেবুর রস- ১ চা চামচ
ওরিও বিস্কুট- মাঝারি ১ প্যাকেট
মাখন- সিকি কাপ (গলানো)
পিচ ফল (কিংবা পছন্দমতো যেকোনো ফল) পরিমাণমতো
ব্লুবেরি সস পরিমাণমতো (কিনতে পাওয়া যায় সুপার শপগুলোতে)।

প্রণালি
ওরিও বিস্কুটের মাঝের ক্রিমটুকু ফেলে ভালোমতো গুঁড়া করে মাখন মিশিয়ে নিন। এবার একটি পাত্রে ক্রিম চিজ নিয়ে ভালোমতো বিট করুন। চিজ নরম ক্রিমের মতো হলে এতে একে একে টক দই, কনডেন্সড মিল্ক ও লেবুর রস দিন। পিচ ফল কেটে টুকরা করে রাখুন।
এবার সাজানোর গ্লাস নিয়ে প্রথমে ওরিও বিস্কুটের গুঁড়ার আধা ইঞ্চি স্তর দিন। এরপর চিজের মিশ্রণ দিন ওপরে। এর ওপর পিচফলের কিছু টুকরা ছড়িয়ে দিয়ে আবার চিজের মিশ্রণ দিন।
এবার ফ্রিজে জমতে দিন ১ ঘণ্টা। নামিয়ে ওপরে ব্লুবেরি সস দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।