বুধবার,১৬ অগাস্ট ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / করুন মাইক্রোওয়েভে রান্না
০৮/১৬/২০১৬

করুন মাইক্রোওয়েভে রান্না

-

এখন মোটামুটি সবার বাড়িতেই মাইক্রোওয়েভ ওভেন দেখা যায়। গৃহিণীদের কাছে রেফ্রিজারেটরের মতোই অপরিহার্য এই ওভেন। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই যন্ত্রটি শুধু খাবার গরম করার জন্যই ব্যবহার করা হয়। কিন্তু এতে যে কত রকমারি ডিশ বানানো সম্ভব, তা বোধহয় অনেকেই জানেন না। পাঠকদের জন্য নিলুফার হাবিব এবার দিয়েছেন বেশ কয়েকটি মজাদার রেসিপি, যা অতি অল্প সময়েই তৈরি করা সম্ভব মাইক্রোওয়েভ ওভেনে।

পটেটো চিপস

উপকরণ
আলু- ৫/৬টি
অলিভ অয়েল- আধাকাপ
লবণ- ২ টেবিল চামচ
কারি পাউডার বা গরম মশলা পাউডার স্বাদ অনুযায়ী

প্রণালি
আলু ভালোভাবে ধুয়ে তা পাতলা করে চিপসের আকারে কেটে নিন। আলুতে অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন। ছিটিয়ে দিন লবণ ও কারি পাউডার। ভালোভাবে সব মসলা মিশিয়ে দিন। একটি প্লেটে রেখে তা মাইক্রোওয়েভ ওভেনে দিন। তিন মিনিট অপেক্ষা করুন। চিপস যদি শুকনো ও মচমচে না হয়, তাহলে মাইক্রোওয়েভের তাপমাত্রা অনুযায়ী আরও কিছুক্ষণ রাখতে পারেন। ওভেন থেকে বের করে গরম গরম পরিবেশন করুন।

প্রন-চিলি কাবাব

উপকরণ
চিংড়ি- ২০টি (মাঝারি মাপের, মাথা ছাড়ানো)
লেবুর রস- ২ টেবিল চামচ
কাঁচামরিচ বাটা- ৫টি
রসুনবাটা- ৬ কোয়া
গোলমরিচ গুঁড়ো- ১/২ চা চামচ
গরম মশলা গুঁড়ো- ১চা-চামচ
পেঁয়াজ- ২টি (চার টুকরো করে কাটা)
ক্যাপসিকাম- ১টি (চার টুকরো করে কাটা)
হলুদ বেল পেপার- ১টি (চার টুকরো করে কাটা)
লাল বেল পেপার- ১টি (চার টুকরো করে কাটা)
তেল- ১ টেবিল চামচ
লবণ স্বাদ অনুযায়ী

প্রণালি
চিংড়ি মাছগুলো ভালো করে ধুয়ে নিন। লেবুর রস, লবণ দিয়ে ম্যারিনেট করে ১০ মিনিট রেখে দিন। এবার বাটা রসুন ও মরিচ চিংড়ির দু’দিকে ভালো করে লেপে দিন। গরম মশলা এবং গোলমরিচগুঁড়ো উপর থেকে ছড়িয়ে দিন। এবার ফ্রিজে চিংড়িগুলোকে রেখে দিন ১০ মিনিট। মাইক্রোওভেন ২০০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেডে প্রিহিট করে নিন। একটি স্কিউয়ারে হলুদ, লাল বেলপেপার, চিংড়ি, পেঁয়াজ, ক্যাপসিকাম গেঁথে নিন। এবার তাতে ভালো করে তেল ব্রাশ করে দিন। ৬০ শতাংশ পাওয়ারে ১০ মিনিট গ্রিল করে নিতে হবে। সার্ভিং প্লেটে মেয়োনিজ আর স্যালাড দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

গ্রিলড ভেটকি ফিলে

উপকরণ
ভেটকি ফিলে- ৪টি
লেবুর রস- ৩ টেবিল চামচ
পেঁয়াজ- ১টি
কাঁচামরিচ- ২টি
আদা- ১ ইঞ্চির একটি টুকরো
রসুন- ৬ কোয়া
গরম মশলাগুঁড়ো- ১ টেবিল চামচ
ধনেগুঁড়ো- ১ চা চামচ
তেল- ১ চা চামচ
লবণ স্বাদমতো

প্রণালি
মাছের ফিলেগুলি ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। ফিলেগুলো যেন একটু মোটা হয়। এবার একটা ধারালো ছুরি দিয়ে ফিলের পেটের কাছে একটি ফালি করে পকেট বানিয়ে নিন। ফিলেগুলো লবণ ও লেবু দিয়ে ভালো করে ম্যারিনেট করে নিতে হবে। তারপর পেঁয়াজ, আদা, রসুন, কাঁচামরিচ দিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করুন। এর মধ্যে গুঁড়ো মশলাগুলো ভালো করে মিশিয়ে নিন। মশলা ভালো করে মাছের গায়ে মাখিয়ে নিন। ফিলের পকেটেও কিছুটা মশলা ঢুকিয়ে দেওয়া দরকার। ২০মিনিট ফ্রিজে ঢাকা দিয়ে রেখে দিন মাছ। এর মাঝে ওভেন ২৫০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে প্রি-হিট করে নিন। ফিলের গায়ে তেল ব্রাশ করে দিন। ৬০ শতাংশ পাওয়ারে ২০ মিনিটের জন্য মাছগুলো গ্রিল করে নিন। মাঝে একবার ফিলেগুলি উল্টে দেবেন। ফ্রেঞ্চ ফ্রাইজ আর স্যালাড দিয়ে পরিবেশন করুন গ্রিলড ভেটকি ফিলে।

এগ মাশরুম সুফলে

উপকরণ
ডিম- ৪টি, দুধ- ১ কাপ
ফ্রেশ ক্রিম- ২ টেবিল চামচ
পারমেজান চিজ- ৫০ গ্রাম (গ্রেট করা)
মাশরুম- ৬টি (অর্ধেক করে কাটা)
পালং শাক- ১ আঁটি (কুচোনো)
মাখন- ১ টেবিল চামচ
গোলমরিচ গুঁড়া- ১ চা চামচ
ময়দা- ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো

প্রণালি
একটা পাত্রে মাখন গলিয়ে নিন। মাখন গলে গেলে তাতে ময়দা ও লবণ নিন। ভালো করে তাড়াতাড়ি মিলিয়ে নিন মিশ্রণটা। এতে দুধ দিয়ে ভালো করে নাড়াচাড়া করতে থাকুন। যতক্ষণ না মিশ্রণটা মোলায়েম ও ঘন হচ্ছে, ততক্ষণ ভালো করে নাড়িয়ে যান। চারটি ডিমের সাদা ও কুসুম আলাদা করে রাখুন। কুসুমগুলোর মধ্যে দুধের মিশ্রণের কিছুটা ঢালুন। হাল্কা হাতে ভালো করে মিশিয়ে নিন। ডিমের মিশ্রণটা বাকি দুধের মিশ্রণের মধ্যে দিয়ে দিন। এই মিশ্রণের মধ্যে মাশরুম, চিজ ও পালক মিশিয়ে নিন। পুরো মিশ্রণটি আলাদা সরিয়ে রেখে দিন। ডিমের সাদা অংশ ও ক্রিম নিয়ে একটি বৈদ্যুতিক বিটারের সাহায্যে ভালো করে ফেটাতে থাকুন। যতক্ষণ না মিশ্রণটির পিক তৈরি হচ্ছে। অর্থাৎ চামচে করে তুললে যেন মাথা উঁচু হয়ে যায় মিশ্রণটির। এবার ডিমের কুসুমের মিশ্রণটির সঙ্গে সাদা মিশ্রণটি হাল্কা হাতে মেশান। মিশে গেলে এই মিশ্রণটা ডিমের সাদা অংশ দিয়ে তৈরি মিশ্রণটির মধ্যে পুরো ঢেলে মিশিয়ে দিন। চারটি ছোট ছোট বেকিং কাপকে মাখন ও ময়দা লাগিয়ে গ্রিস করুন। তাতে মিশ্রণটা অর্ধেক করে ভর্তি করুন। ১৯০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে প্রিহিট করা ওভেনে ১৭ থেকে ২০ মিনিট বেক করুন। তৈরি হয়ে গেল আপনার এগ মাশরুম সুফলে।

ব্রেড পিজ্জা

উপকরণ
বনরুটি- ৩/৪ পিস (একটু বড় বার্গার বন হলে ভালো)/পাউরুটি/ফ্রেঞ্চ ব্রেড
মোজ্জারেলা চিজ- ১ কাপ, ঝুরি করা
টমেটো সস/পিজ্জা সস- ২ টেবিল চামচ
টমেটো- ১টি, স্লাইস করা
পেঁয়াজ- ১ টেবিল চামচ, কুচি করা
অরিগ্যানো- ১ চিমটি
অলিভ অয়েল- ১ চা চামচ
সসেজ ভাজা বা চিকেন ঐচ্ছিক
গোলমরিচের গুঁড়ো স্বাদমতো
লবণ স্বাদমতো


প্রণালি
প্রথমে রুটিকে মাঝ বরাবর ভাগ করে ফেলুন। আর পাউরুটি হলে তিন কোণা করে কাটতে পারেন ইচ্ছে হলে। নাহলে যেমন আছে, তেমনই রাখুন। এরপর বনরুটি/পাউরুটির উপর অলিভ অয়েল ছড়িয়ে দিন। পিজ্জা সস বা টমেটো সস ছড়িয়ে দিন বনরুটি/পাউরুটিতে। সসের উপর টমেটো স্লাইস ও পেঁয়াজকুচি দিন। দিতে পারেন চিকেন বা সসেজ ভাজাও। এর উপর মোজ্জারেলা চিজ ছড়িয়ে দিন সব দিকে সমানভাবে। সবার উপরে গোল মরিচের গুঁড়ো ও অরিগ্যানো ছড়িয়ে দিন। মাইক্রোওয়েভ ওভেনে গ্রিল অপশন সিলেক্ট করে ৩ মিনিট রাখুন। সস আর ফ্রেঞ্চ ফ্রাইজের সাথে গরম গরম পরিবেশন করুন।

মুরগির কলমি কাবাব

উপকরণ
মুরগির রান- ১ কেজি
আদা-রসুনবাটা- ২ টেবিল চামচ
লবণ- স্বাদ অনুযায়ী
টক দই- ১ কাপ, পানি ঝরানো
জাফরান- ১ চিমটি
লেবুর রস- ১ টেবিল চামচ
ময়দা- ১/৪ কাপ
লবঙ্গ- ৩টি
কালো জিরা- ১/২ চা চামচ
দারুচিনি- ১ ইঞ্চি টুকরো
তেজপাতা- ১টি
গোটা গোলমরিচ- ৫টি

প্রণালি
গোটা মশলাগুলো শুকনো খোলায় ভালো করে ভেজে নিন। তারপর মিক্সিতে গুঁড়ো করে নিন, যাতে মিহি পাউডার পাওয়া যায়। সরিয়ে রাখুন এই মশলা। এবার মাংসের টুকরো ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। যেন মাংসের গায়ে পানি না থাকে। রানগুলির গায়ে ২-৩টি জায়গায় চিরে দিন, ধারালো ছুরি দিয়ে। একটি পাত্রে গুঁড়ো মশলা এবং অন্যান্য সমস্ত উপকরণ দিয়ে ভালো করে একটি পেস্ট তেরি করে নিন। এই পেস্টে মাংসের টুকরোগুলি দিয়ে প্রায় ২ থেকে ৩ ঘণ্টা ম্যারিনেট করে রেখে দিন। মাংস ম্যারিনেট হয়ে গেলে মাইক্রোওয়েভে ১৫ থেকে ২০ মিনিট গ্রিল করে নিন। চাটনি, অনিয়ন রিং দিয়ে পরিবেশন করুন কলমি কাবাব।

চকলেট কেক

উপকরণ
প্লেন চকলেট- ৫০ গ্রাম
বাটার- ৫০ গ্রাম
ডার্ক ব্রাউন সুগার- ৫০ গ্রাম
সফট ময়দা- ৫০ গ্রাাম
ডিম- ১টি, ফেটানো
ভ্যানিলা এক্সট্র্যাক্ট- ১/৪ টেবিল চামচ
কোকোয়া পাউডার- ১ টেবিল চামচ
লবণ- ১ চিমটি
আইসিং সুগার ঐচ্ছিক

প্রণালি
মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ব্যবহারের উপযোগী একটি পাত্রে গ্রিজপ্রুফ কাগজ বিছিয়ে নিন। চকলেট, বাটার ও চিনি দিন। মাইক্রোওয়েভ ওভেনে দিয়ে ৩০ সেকেন্ড রাখুন। যদি উপকরণগুলো গলে না যায়, তাহলে আরও কিছুক্ষণ রাখতে হবে। বাকি সব উপকরণ ভালোভাবে মিশিয়ে নিন। মাইক্রোওয়েভ ওভেনের বাটিতে বাকি সব উপকরণ ঢালুন। মাইক্রোওয়েভ ওভেনে তিন থেকে চার মিনিট কিংবা কেক না হওয়া পর্যন্ত রাখুন। ঠান্ডা হওয়ার জন্য কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন। কেকের ওপর স্প্রিংকল কোকোয়া পাউডার কিংবা আইসিং সুগার দিয়ে নিন। পরিবেশন করুন মজাদার কেক।



গাজরের হালুয়া

উপকরণ
গাজর- ৪টি, বড় সাইজের
গুঁড়ো দুধ- ১ কাপ
এলাচ- ২টা
ঘি- ৪ টেবিল চামচ
চিনি- আধাকাপ
কাজুবাদাম- ১ মুঠো, কুচি
গুঁড়োদুধ অথবা নারকেল কোরানো - ঐচ্ছিক

রেসিপি
প্রথমেই গাজরগুলো ছিলে নিন। এবার গ্রেটারের সবচেয়ে ছোট ফুটো দিয়ে গাজরগুলো গ্রেট করে নিন। আলু ঝুরি করার মেশিনের সবচেয়ে ছোট ফুটোগুলো দিয়ে করলেও হবে। এবার একটি ওভেনপ্রুফ বাটিতে গাজর এবং ঘি মিশিয়ে ৫ মিনিট মাইক্রোওভেনে হাই হিটে রান্না করুন। তারপর বের করে বাকি সব উপকরণ মিশিয়ে আবার ৪ মিনিট রান্না করুন। বাটি বের করে মিশ্রণটি নেড়ে দিয়ে আবার ৩/৪ মিনিট রান্না করুন। এভাবে পানি শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত ঢাকনা না দিয়ে বারবার হাইহিটে মাইক্রোওভেনে রান্না করুন এবং নেড়ে দিন। খুব বেশি শুকনো করবেন না। এতে সুন্দর কমলা রং আসবে না এবং খেতেও ভালো হবে না। পানি ভালো মতো শুকানো পর্যন্ত রান্না করুন। গুঁড়ো দুধ বা কোরানো নারকেল ছিটিয়ে পরিবেশন করুন মজাদার গাজরের হালুয়া।