রবিবার,২০ অগাস্ট ২০১৭
হোম / অন্দর-বাগান / ঈদের সাজানো খাবার টেবিল
০৭/০১/২০১৬

ঈদের সাজানো খাবার টেবিল

- নুসরাত ইসলাম

পবিত্র রমজানের এক মাস সংযমের পর আসে ঈদ উৎসব এবং সব ধর্মের মানুষই মুখিয়ে থাকে ঈদের দিনটিতে মনমতো পেটপূর্তির জন্য। ঈদের সময়টিতে পরিবারের সাথে ফর্মাল ডিনার আয়োজন করে সবাই, আবার অনেকেই অতিথি আপ্যায়ন করেন। এই খাবার টেবিল টিকে ঘিরে ঈদ উৎসবের অনেকখানি আবর্তিত হয়। তাই ঈদের ঘরসজ্জায় ডাইনিং রুম ও ডাইনিং টেবিলের প্রতি বিশেষ করে নজর দেয়া উচিত।

কালার এবং থিম
ঈদের রাতে ডিনার টেবিল সাজানোর জন্য সর্বপ্রথম যা বিবেচনায় আনতে হবে তা হলো টেবিলসজ্জার জন্য একটি নির্দিষ্ট রং এবং থিম। বসার ঘরের রঙের সাথে মিলিয়েই একটি রং বেছে নিতে হবে এবং টেবিলওয়্যারের উপর নির্ভর করবে থিম।

টেবিল ক্লথ ও টেবিলওয়্যার
প্রথমে ভেবে নিন ডিনারটি আয়োজন করতে হবে কতজন মানুষের জন্য। এরপর ডিনার টেবিল গোছানো শুরু করুন একটি সুন্দর ও মার্জিত টেবিল ক্লথ দিয়ে। ঘরের রং বিবেচনায় রেখে একটি রং ও প্যাটার্ন ভেবে নিন। সময়টি রাত হলে গাঢ় কোনো রং বেছে নিন।

টেবিলওয়্যারের ক্ষেত্রে যে বিষয় প্রথমেই খেয়াল করতে হবে আপনাকে তা হলো ডিনার সেট। ডিনার সেট টেবিলের লুক নির্ধারণে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ব্যাপার, তাই এটি সাবধানতার সাথে সামলাতে হবে। সাদামাটাভাবে সাজাতে চাইলে রঙিন ও প্রিন্ট-এর ডিনার সেট দিয়েই চলবে; কিন্তু অতিথি ফর্মাল হলে সোনালি ও রূপালি রঙের খোদাই করা চীনামাটির ডিনার সেট বেশি উপযুক্ত।

তবে এক্ষেত্রে টেবিল ক্লথের কথা মাথায় রাখতে হবে। টেবিল ক্লথ প্যাটার্নড হলে এক রঙের প্লেইন সেট ভালো, অন্যদিকে একটি প্রিন্ট-এর কারুকাজ করা ডিনার সেট মানাবে গাঢ় রঙের টেবিল ক্লথের সাথে।

ঈদের ডিনারে পানীয় পরিবেশনের জন্য নিত্যদিনের গ্লাস সেট না ব্যবহার করে আড়ম্বরপূর্ণ সেট কিনুন। ঈদের জাঁকজমকপূর্ণ পরিবেশের সাথে মিলিয়ে বিভিন্ন রঙের ট্রান্সপারেন্ট গ্লাস ব্যবহার করতে পারেন।

টে
গতানুগতিক ট্রে-এর বদলে আয়না ব্যবহার করুন ট্রে হিসেবে, এতে আপনার টেবিলে রাজকীয় একটি ভাব আসবে। পুরনো কোনো চারকোণা আয়না নিয়ে এর পেছনের কাঠটুকু সরিয়ে ফেলুন এবং চারপাশ পলিশ করে নিন।

ন্যাপকিন
টেবিলকে ফরমাল ও উৎসবমুখর লুক দিতে রেগুলার পেপার ন্যাপকিন বা টিস্যু পেপার পরিবেশন না করে কাপড়ের ন্যাপকিন বেছে নিন। একরঙা টেবিল ক্লথ হলে একই রঙের ন্যাপকিন পরিবেশন করুন, অন্যদিকে টেবিল ক্লথ প্যাটার্নড হলে তার মধ্য থেকে যেকোনো একটি রং বেছে নিন ন্যাপকিনের জন্য।

আলোকসজ্জা
বিভিন্ন আলোর সাহায্যে উজ্জ্বলতায় সাজিয়ে নিন এই বিশেষ রাতটি। আপনার ডিনার টেবিলের উপর একটি সুন্দর মোমবাতি রাখলে তা ঘরে একটি আলো-ছায়ার আবহ নিয়ে আসবে। বড় আকৃতির মোম হলে টেবিলের মাঝামাঝি একটি থাকাই যথেষ্ট, মাঝারি আকৃতির হলে মাঝে মোমবাতি স্ট্যান্ড রেখে ব্যবহার করতে পারেন, মোমগুলো ছোটো হলে মাঝে একটি খালি স্ট্যান্ড দিয়ে চারপাশে কয়েকটি মোম রাখুন। টেবিল বড় হলে মোমদানির পাশে একটি ট্রে রাখা যায়, যাতে তাজা ফুলের পাপড়ি, ভাসমান মোম ইত্যাদি রাখতে পারেন।

আলোকসজ্জায় যোগ করতে পারেন একটি রমজান ল্যানটার্ন (বাতি) বা ‘ফানুস’ (রমজানের সময় ব্যবহৃত এক ধরনের বাতি)। এটি ঈদের থিম-এর সাথে খুব ভালোভাবে যাবে। এর মাধ্যমে ঘরে পবিত্র মাসটির আমেজ আসে। ফানুস রোজা শেষ হওয়ার প্রতীক হিসেবে পরিচিত, তাই একে ঘিরে টেবিল সাজালে পরিপূর্ণ হবে ঈদ-উল-ফিতরের জন্য ডিনার টেবিল গোছানো।