রবিবার,২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
হোম / সম্পাদকীয় / ফ্যাশন আর্টে রঙিন হোক সবার জীবন
০৬/১৬/২০১৬

ফ্যাশন আর্টে রঙিন হোক সবার জীবন

- তাসমিমা হোসেন

কোন পুরাকালে মানবশরীরে প্রথম পোশাক শোভা পেয়েছিল- তার সঠিক দিনক্ষণ এখন আর বের করা সম্ভব নয়। গবেষকরা জানিয়েছেন, পোশাকের বয়স কমপক্ষে ৪০-৭০ হাজার বছর। সেই আদি সময়ের পোশাকটি কোন তন্তুর ছিল, তার কমনীয়তা কতটুকু- এসব নিয়ে চিন্তাভাবনার সুযোগই ছিল না। শীত নিবারণে পশুচর্ম আর গ্রীষ্মে নারীবক্ষে বনফুলের আচ্ছাদন। ব্যস, ঝামেলা শেষ। এরপর সময় যত গড়িয়েছে, শরীর ক্রমেই বাহারি পোশাকে আলোকিত হয়ে উঠেছে। আর এসব প্রয়োজন থেকেই আধুনিক সময়ে বিশ্বব্যাপী গড়ে উঠেছে বিলিয়ন ডলারের ফ্যাশন ইন্ডাস্ট্রি।

ফ্যাশনের আধুনিক ছাপ প্রথম পাওয়া যায় পনেরো শতকের শেষের দিকে। সে-সময় ফ্রান্সে প্রথম পুরুষের কোটবিষয়ক প্রদর্শনী চালু হয়। ধারণা করা হয়, এখান থেকেই আজকের রমরমা প্যারিস ফ্যাশন শো’র উদ্ভব। ষোড়শ শতকের শুরুতে জার্মানিতে ফ্যাশন শো প্রায় প্রাতিষ্ঠানিক রূপ অর্জন করে। এ-সময়ে বিশিষ্ট ফরাসি চিত্রকর আলব্রেচর্ট দুরের দশটি স্কেচ পাওয়া গেছে, যা বিভিন্ন ভঙ্গিমায় বিচিত্র পোশাকের প্রদর্শন। সতেরো শতকের মাঝামাঝি এসে ইউরোপে ফ্যাশন শো বিষয়টি বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করে। আঠারো শতকে প্যারিস ফ্যাশন শো’র আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

বিশ্বজুড়ে পোশাক বাণিজ্যের সবচেয়ে বড় অংশ এখন নিয়ন্ত্রিত হয় বিভিন্ন ফ্যাশন শোয়ের মাধ্যমে। ৭০ হাজার বছরের বিবর্তনে পশুচর্ম আর বনফুলের জায়গায় কত বিচিত্র বৈশিষ্ট্যের পোশাক জায়গা দখল করেছে, তা ফ্যাশনের বিভিন্ন বাহারে আমরা দেখতে পাই। ফ্যাশনচর্চার মাধ্যমে একদিকে যেমন নিজেদের সংস্কৃতিকে বিশ্ববাসীর সামনে তুলে ধরা যায়, তেমনি ফ্যাশনচর্চা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। শুধু উৎসব আর অনুষ্ঠান নয়, ফ্যাশন এখন প্রাত্যহিক বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। ফলে এর বাণিজ্যিক বাজারও আজ রমরমা, ফ্যাশনে এসেছে সৃষ্টিশীলতা।

ফ্যাশন সচেতন ব্যক্তি মাত্রই নিজেকে রুচিসম্মতভাবে প্রকাশ করতে চান। তাই নিজের পেশা, পরিবেশ, ব্যক্তিত্ব সামাজিক মূল্যবোধ ইত্যাদির প্রতি খেয়াল রেখেই পোশাক নির্বাচন করার দিক-নির্দেশনা মেলে বিভিন্ন ফ্যাশনের ভেতরে। আবহাওয়ার সঙ্গে তাল মিলিয়ে পোশাক নির্বাচন করাটা স্বাস্থ্যের জন্য গুরুত্বপূর্ণ, সেটাও ফ্যাশনের অংশ। অনন্যা’র ঈদ ফ্যাশন সংখ্যা সাজানো হয়েছে এসব কথা মাথায় রেখেই।
ফ্যাশন আর্টে উদ্ভাসিত হোক সবার জীবন।

ঈদ মোবারক।