রবিবার,২০ অগাস্ট ২০১৭
হোম / ভ্রমণ / স্মার্ট ভ্রমণ বাজেট
০৫/০১/২০১৬

স্মার্ট ভ্রমণ বাজেট

- কাজী মাহদী আমিন

ভ্রমণ করতে কার না ভালো লাগে? তবে খরচের চিন্তাটাও মাথায় ঘুরপাক খেয়ে থাকে অনেকসময়। আপনজনদের সাথে বেড়াতে গেলে কোনদিক দিয়ে যেন পকেটটা ফাঁকা হয়ে যায় মনের অজান্তেই। ভ্রমণের সময় খরচের লাগাম ধরে রাখার জন্য আপনার কিছু দূরদর্শী চিন্তাই কিন্তু যথেষ্ট।
১) ভ্রমণের কয়েক মাস আগে উড়োজাহাজের টিকেট বুক করে রাখুন। কেননা বেশিরভাগ এয়ারলাইন আপনাকে ডিস্কাউন্ট সুবিধা দেবে প্রি-বুক করে রাখলে। তাছাড়া, আসা যাওয়ার টিকেট একসাথে কিনে রাখলে বেশ বড় মাপের একটা মূল্যছাড় পাবেন। এছাড়া, বাস বা ট্রেনে ভ্রমণ করলে আগে টিকেট কিনলে অনেক সুবিধাও পাবেন। কারণ যাতায়াতের খরচটা আগে মিটিয়ে ফেলতে পারলে পরে অন্যান্য খরচে বুঝেশুনে করতে পারবেন।
২) সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে ভ্রমণ না করার চেষ্টা করুন যদি খরচ কমাতে চান। হোটেল-মোটেল এবং যাতায়াতের খরচ একটু বাড়তি থাকে ছুটির দিনগুলোতে।
৩) ঝকমকে হোটেলগুলোতে বাড়তি ব্যয় না করে ছোট কটেজ কিংবা লোকাল হোস্টেলগুলোতে থাকার ব্যবস্থা করে নিতে পারেন। একটু যাচাই করে নিলে হোটেলের বেশ ভালো বিকল্প খুঁজে পাওয়া সম্ভব, তাও অনেক কম দামের মধ্যে।
৪) আর যদি একান্তই হোটেল-মোটেলের পিছনে খরচ করতে না চান, তবে কাউচ সার্ফিং (ঈড়ঁপয ঝঁৎভরহম) ওয়েবসাইটে ঘুরে আসুন। এটি একটি আন্তর্জাতিক সোশ্যাল কানেকশান গ্রুপ, যেখানে ভ্রমণপিপাসুরা একে অন্যকে সাহায্য করে থাকে। ওয়েবসাইটে যেয়ে হোটেলের বিকল্প হিসেবে বাসস্থানের জন্য আবেদন করতে পারেন, এবং ভাগ্যবান হলে কোন সহৃদয় ব্যক্তির বাসায় মেহমান হয়ে থাকতে পারবেন কয়দিনের জন্য। সাইটের সবকিছু বেশ নিরাপদ এবং সকল রেজিস্টার্ড ইউজার বিভিন্ন ভেরিফিকেশানের মাধ্যমে বাসস্থানের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিয়ে থাকে।
৫) ভ্রমণ যদি বেশ লম্বা হয়, তবে একটি এপার্টমেন্ট ভাড়া করে নেওয়া সবচেয়ে ভালো। বিদেশে ফার্নিচারসহ এপার্টমেন্ট সহজেই ভাড়া করা যায়। সেই ক্ষেত্রে হোটেলের চেয়ে কম খরচ হবে।
৬) প্রতিদিনের খাওয়ার পিছনে অজান্তেই অনেক বেশি খরচ করে থাকে মানুষ ভ্রমণের সময়। রেস্তোরাঁগুলোতে একটু বেছে খাওয়াদাওয়া করলে অনেক সাশ্রয় করা সম্ভব।
খরচের কথা চিন্তা করে অনেকেই হয়তো ভ্রমণের পরিকল্পনাই বাদ দেন। তাই স্মার্ট বাজেট করুন, অনাবশ্যক ব্যয় পরিহার করতে পারবেন অনায়াসেই।