বুধবার,২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮
হোম / সাহিত্য-সংস্কৃতি / অরণ্যভূমি চামেলি ঘ্রাণময়
০৪/১৬/২০১৬

অরণ্যভূমি চামেলি ঘ্রাণময়

- কামরুল হাসান

পৃথিবীতে একজনই কবির চামেলি, অনন্য প্রসূন
কবে যে বিঁধেছিল প্রাণে সে দৃষ্টির হৃদিহরা তূণ
কবে সে কাছে এসে বলেছিল, ভালোবাসি কবি
কবিতার চেয়ে ঢের যার প্রাণে চামেলির ছবি!

২.
কেন সে বারংবার ফিরে এসে আর্র্দ্র করে চোখ
ওদের দয়াশূন্যতায় শুষ্কপ্রাণ, শুষ্কদেহ যাবো?
যে প্রান্তর চামেলিহীন, তার কাছে কখনো কি পাবো
অশ্রুঅমলিন দিনের স্মৃতি, প্রীতিময়তার শোক?

৩.
চামেলি কবিকে দিয়ে লিখিয়ে নেয় তার রূপ মাধুর্যের উদ্ভাস
কবি নিবিষ্ট কৃষকের মতো ঋতুজুড়ে করে যান অনিঃশেষ চাষ
চামেলিনামা পাঠ করে পাঠকের আনন্দ জাগে, কখনো হতাশ্বাস
সে ভাবে অমন নিবেদিত পঙ্ক্তিমালা, কবি বুঝি চামেলির দাস!

৪.
সকলের বয়স বাড়ে, চামেলি তেমনি তরুণ
চিরকাল মুগ্ধ করে রাখা এক বিস্ময়ের নাম
কবিতার পৃষ্ঠাজুড়ে ঝরে পড়া নয়নাভিরাম
ফুলদের যোগ্য প্রতিনিধি, প্রত্যহ দীপ্ত অরুণ!

৫.
চামেলিপ্রতীম সব অঞ্চল দিয়ে ঘুরি
চামেলিরঙা মেঘদের সাথে উড়ি
কে যেন বাজিয়ে যায় উপেক্ষার তুড়ি
কখন গিয়েছে কেটে বয়স কুড়ি কুড়ি!