বৃহস্পতিবার,২২ অগাস্ট ২০১৯
হোম / ফিচার / পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী খাবারের খোঁজে
০৭/২৭/২০১৯

পুরান ঢাকার ঐতিহ্যবাহী খাবারের খোঁজে

-

১৬ শতকের শেষ থেকেই একে একে পুরান ঢাকাসহ আশপাশের এলাকাগুলোর পাড়া-মহল্লা, অলিগলিতে গড়ে উঠতে শুরু করে নবাবী খাবারের আস্তানা। এছাড়া মুসলিম প্রধান এলাকা হওয়ায় মুঘলদের উদ্ভাবিত খাবারের চাহিদাও বাড়তে থাকে হু হু করে। তখন থেকেই বকশীবাজার, লালবাগ, চকবাজার, নাজিমুদ্দিন রোড, আজিমপুর, তাঁতিবাজার, শাঁখারিবাজার, বংশাল, জোড়পুর লেন, সূত্রাপুর, চান খারপুলসহ আশপাশের অলিগলিতে শাহী কাচ্চি, তেহারি, কলিজা ভুনা, কোর্মা, কাবাব, নেহারি, পোলাও, বাখরখানি, শাহী পরোটা, খাসির পায়াসহ আরও অসংখ্য সুস্বাদু সব খাবার ও নাস্তার দোকান বসতে শুরু করে। যার ফলে আজ বাঙালির খাবার টেবিলে জায়গা করে নিয়েছে পুরান ঢাকার নবাবী খাবারগুলো।

হাজীর বিরিয়ানি

ঢাকার বিরিয়ানির কথা বললেই যে-নামটি সবার আগে মাথায় আসে তা হলো হাজীর বিরিয়ানি। ১৯৩৯ সালে হাজী গোলাম হোসেন সাহেবের হাত ধরেই শুরু হয় এ বিরিয়ানির পথচলা, ধীরে ধীরে ফখরুদ্দিন বিরিয়ানি, চানখারপুলের হাজী নান্নার বিরিয়ানি, নারিন্দার ঝুনুর বিরিয়ানি ইত্যাদি হয়ে উঠেছে সেই শিল্পেরই অংশ।

চকবাজারের ইফতার

চকবাজারের ইফতার তো পুরো উপমহাদেশেরই অন্যতম ঐতিহ্যবাহী ইফতার মার্কেট। ঢাকা ছাড়াও দেশের অন্যান্য প্রান্তের মানুষের কাছেও চকবাজারের বড়ো বাপের পোলায় খায়, বটি কাবাব, সুতা কাবাব, শাহী পরোটা, খাসির রোস্ট, মোরব্বা অন্যান্য খাবারের চাহিদা আকাশচুম্বী।

বিউটি লাচ্ছি

নাজিরাবাজারেই রয়েছে ঐতিহ্যবাহী বিউটির লাচ্ছি এবং ফালুদা। বিউটির লাচ্ছি এবং লেবুর শরবতের সুনাম দেশব্যাপী।

কাবাবের খোঁজে

নাজিরাবাজারের বিখ্যাত চাপ এবং কাবাব পাওয়া যায় বিসমিল্লাহ কাবাব ঘরে। চৌরাস্তার ঠিক পাশেই এর অবস্থান। এখানে খেতে আসলে মূলত লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করতে হয়। রাত যত ঘনিয়ে আসে, ততই ভিড় বাড়তে থাকে এই দোকানে। মুরগি আর গরুর চাপ ছাড়াও রয়েছে খাসির গুর্দা যা ব্যাপক জনপ্রিয়।

বাকরখানি

নাজিরাবাজারেই রয়েছে পুরান ঢাকার বিখ্যাত খাবার বাকরখানির দোকান। দোকানে গেলে একদম তাজা এবং গরম বাকরখানির স্বাদ নেওয়া যাবে।


--শাহনেওয়াজ খান সিজু