শনিবার,২৫ মে ২০১৯
হোম / বিবিধ / মুখোশ বানাতে পারেন নিজেই
০৪/১৯/২০১৯

মুখোশ বানাতে পারেন নিজেই

-

প্রতিবছরই আমাদের বর্ষবরণ শুরু হওয়ার পূর্বেই মুখোশ তৈরির ধুম লেগে যায়। একসময় এই ক্ষেত্রটা খানিকটা সীমাবদ্ধ ছিল কিন্তু এখন অনেককেই এই আয়োজনে সম্পৃক্ত হতে দেখা যাচ্ছে। বিশেষ করে শিক্ষার্থীরাই এই আয়োজনে নিজেদের সম্পৃক্ত করছে বিশেষ করে। এছাড়াও রয়েছে অনেক পেশাজীবী মানুষ। যাদের মধ্যে কেউ কেউ মুখোশে রং করছেন, কেউ মুখোশের কোথায় কোনো সমস্যা হলো নাকি এসব দেখছেন খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে, কেউ রঙের মিশ্রণ করছেন আবার অনেককেই দেখা যাচ্ছে মুখোশের আস্তরণটি ঘষে নিতে, এদের মধ্যে কেউবা আবার শেষবারের মতো দেখে নিচ্ছেন কাজটি ভালোভাবে শেষ হয়েছে কিনা।

মুখোশ তৈরিতে

মুখোশ তৈরি করার প্রধান উপাদান হলো মাটি। প্রথমেই মাটি দিয়ে মুখোশের আবরণটি তৈরি করে নিতে হবে। তারপর তা হালকা রোদে শুকাতে হবে। অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে রোদটা যেন বেশি নাহয়। তাহলে মাটির অবয়বটি ফেটে যেতে পারে। তারপর শুকানো মাটির অবয়বটির উপর গ্রিজ লাগিয়ে পিচ্ছিল করতে হবে। একটু বেশি করে গ্রিজ লাগাতে হবে।

যাতে মাটির কোনো উঁচু-নিচু ভাব না থাকে। তারপর হালকা একটা পলিথিন লাগিয়ে দিতে হবে মুখোশের উপর। এরপর ময়দা নিয়ে তাকে আঁঠালো করে এর মধ্যে তুঁত ব্যবহার করতে হবে। এবার খবরের কাগজ ছোট ছোট করে একদিকে থেকে মুখোশটির উপর লাগাতে হবে। এভাবে সম্পূর্ণ লাগানো হলে আবার আঁঠার প্রলেপ দিয়ে কাগজ লাগাতে হবে। এভাবে পাঁচ-ছয়বার লাগালেই হবে। এরপর তা তপ্ত রোদে শুকাতে দিতে হবে। মনে রাখতে হবে শুকাতে দেওয়ার কিছুক্ষণ পর কাগজের মুখোশটিকে মাটির থেকে হালকা আলাদা করে দিতে হবে।

এরপর যখন খুব শক্ত হয়ে যাবে, তখন মাটির মুখোশ থেকে আলাদা করে ফেলতে হবে আসল মুখোশটিকে। রং করার ক্ষেত্রে একটু চিন্তা-ভাবনার পরিপক্কতা ঘটাতে হবে মুখোশের ক্ষেত্রে। প্রথমদিকে সাদা রং দিয়ে পুরো মুখোশটিকে সাদা করে ফেলতে হবে। তারপর নিজের ইচ্ছামতো রং করলেই এবং তা রোদে শুকানোর পরই পেয়ে যাবেন আপনার প্রিয় মুখোশ।


-নবনীতা নব
ছবি : জীবন আহমেদ