সোমবার,২২ এপ্রিল ২০১৯
হোম / ফ্যাশন / ফ্যাশন-চুল সাজাতে হেয়ার ব্যান্ড
০৪/১২/২০১৯

ফ্যাশন-চুল সাজাতে হেয়ার ব্যান্ড

-

চুলের অলঙ্কার হিসাবে হেয়ার পিন, ক্লিপ ইত্যাদি বহু বছর ধরেই ব্যবহৃত হয়ে আসছে। সেই ধারায় হাল ফ্যাশনে উঠে এসেছে হেয়ার ব্যান্ড। ২০১৯ সালে চুল সাজাতে অন্যান্য অনুষঙ্গের পাশাপাশি হেয়ার ব্যান্ডও বেশ জনপ্রিয়তা পাবে এমনটাই ধারণা করা হচ্ছে।
যারা চুল নিয়ে খুব বেশি এক্সপেরিমেন্ট করতে চান না তাদের জন্য হেয়ার ব্যান্ড ভালো একটি অপশন। এতে খুব বেশি কসরত না করেও স্টাইলিশ লুক আনা সম্ভব।

ফ্যাশনে বরাবরই পুরাতন নতুনভাবে ফিরে আসে। সেই ধারাতেই ফিরে এসেছে হেয়ার ব্যান্ডের স্টাইল। আশির দশকে প্রিন্টেড হেয়ার ব্যান্ড বেশ জনপ্রিয় ছিল। নতুন যুগে অবশ্য মেটাল, স্টোন ওয়ার্ক, পার্ল ইত্যাদি নকশার ব্যান্ড বেশি জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।
যাদের চুল বেশ বড় তারা একপাশে খানিকটা চুল নিয়ে বেণি করে হেয়ার ব্যান্ডের মতো পেঁচিয়ে নেওয়া যেতে পারে।

মেটাল হেয়ার ব্যান্ড

মেটাল, স্টোন, পার্ল ইত্যাদি গর্জিয়াস হেয়ারব্যান্ড দিয়ে চুল সাজাতে হবে অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে তা যেন আপনার পোশাক এবং সেই অনুষ্ঠানের জন্য সাজছেন তার সঙ্গে মানানসই হয়।
তবে পুরো মেটাল বা রাবারের তৈরি ব্যান্ড অনেক সময় চুলের জন্য ক্ষতিকর। কারণ এই উপাদানগুলো ঘর্ষণের ফলে চুল ভঙ্গুর করে ফেলতে পারে।

কাপড়ের তৈরি ব্যান্ড

রাবার, একরঙা কাপড় বা প্রিন্টেড কাপড়ে তৈরি ব্যান্ডগুলো সব থেকে বেশি ব্যবহার উপযোগী। যেকোনো ক্যাজুয়াল পোশাকের সঙ্গে এই ধরনের ব্যান্ড মানিয়ে যেতে পারে। জিন্সের সঙ্গে টপস বা টি-শার্টের সঙ্গে চুলে ব্যান্ড বেশ ভালো লাগবে। বন্ধুদের আড্ডায়, কোথাও ঘুরতে গেলে চুল গুছিয়ে রাখার পাশাপাশি স্টাইলিশভাবে উপস্থাপন করতেও হেয়ার ব্যান্ড বেশ ভালো অনুষঙ্গ হতে পারে।

গ্লিটার ও স্টোন ওয়ার্কের ব্যান্ড

গাউন, স্কার্ট-টপস, শর্টটপস ইত্যাদি পার্টি পোশাকের সঙ্গে গ্লিটারি হেয়ার ব্যান্ড দারুণ মানানসই। খুব বেশি কষ্ট ছাড়াই পার্টির জন্য চুল সাজানো যেতে পারে সিকোয়েন্স কাপড়ে তৈরি হেয়ার ব্যান্ডের সাহায্যে। চাইলে বো বা অন্য স্টাইলের ব্যান্ডও বেছে নেওয়া যেতে পারে।

ফ্লোরাল হেয়ার ব্যান্ড

ফ্লোরাল হেয়ার ব্যান্ডও হালফ্যাশনে বেশ জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। তবে যেকোনো হেয়ার ব্যান্ড বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে তা যেন খুব বেশি বড় বা জবরজং হয়ে না যায়। এতে দেখতে বেমানান লাগতে পারে। খোলাচুল বা উঁচু করে বাঁধা যে-কোনো স্টাইলের সঙ্গেই হেয়ার ব্যান্ড মানিয়ে যেতে পারে। বিভিন্ন উ্ৎসবে ফুলের তৈরি হেয়ারব্যান্ডগুলো বেশি ব্যবহৃত হয়। শাড়ি বা অন্যান্য দেশি পোশাকের সঙ্গে ফুলেল ব্যান্ডগুলো দারুণ মানিয়ে যায়।

বাজারে এখন অনেক ধরনের হেয়ার ব্যান্ড পাওয়া যায়। তবে যেসব হেয়ার ব্যান্ডে ক্লিপ লাগানো থাকে সেগুলো এড়িয়ে যাওয়াই ভালো। কারণ ক্লিপ চুলে আটকে যেতে পারে। তাছাড়া ব্যান্ড খোলার সময়ও সাবধান হওয়া উচিত। কারণ ইলাস্টিক বা মেটাল যেকোনোটাতেই চুল আটকে যেতে পারে।
যে-কোনো স্টাইলের ক্ষেত্রে তা আপনার পার্সোনালিটি এবং পোশাকের সঙ্গে কতটুকু মানানসই সেই দিক বুঝে নিতে হবে। সব কিছুর সঙ্গে মানিয়ে হেয়ার ব্যান্ড ব্যবহার আপনাকে সবার মাঝে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করতে পারে।

--অদ্বিতী