শুক্রবার,১৯ Jul ২০১৯
হোম / ফ্যাশন / কম দামি স্যুটে এক্সপেন্সিভ লুক
০৩/০৫/২০১৯

কম দামি স্যুটে এক্সপেন্সিভ লুক

-

আজকাল স্মার্ট পুরুষদের অফিস ওয়ার্ডরোব দেখলে একটা বিষয় তো পরিস্কার বোঝাই যায়, এখন অফিস গেটাপ অনেকবেশি বৈচিত্র্যময়, ক্যাজুয়াল আর এক্সপেরিমেন্টাল। দিনদিন অফিসগুলো এমপ্লয়িদের ড্রেস কোড মেইন্টেইনের জায়গাটায় প্রচুর স্পেস দিচ্ছেন। ক্যাজুয়াল, সেমি-ক্যাজুয়াল ড্রেসআপ। আর হাল সময়ের অফিস এমপ্লয়িরাও সে সুযোগ স্বাচ্ছ্যন্দ্যে গ্রহণ করেই ভারি করছেন ওয়ারড্রব, এজন্যই এখন অনেক টাকা খরচ করে স্যুট বানানোর চিন্তা থেকে সরে আসছেন অনেকেই।

তবে কয়েকটি ভালোমানের স্যুট না হলে কর্পোরেট ওয়ার্ল্ডে চলাটা মুশকিলই বটে। একদিকে তাই অফিসওয়্যার এর ভ্যারিয়েশনে টাকা খরচ করা, অন্যদিকে দামি লুকিং স্যুটের প্রয়োজনীয়তায় উভয়সংকটে না পড়ে সহজ সমাধান কিন্তু আছে, সেটা হলো কম খরচে দামি লুকিং স্যুট।

ফেব্রিক সবার আগে

স্যুটের লুক বেশিরভাগটাই নির্ভর করে এর ফেব্রিকের উপর। কম টাকা খরচ করে দামি স্যুটের মতো দৃষ্টিনন্দন করতে চাইলে আপনার টেক্সচার আর প্যাটার্নের উপরে অনেকটাই নির্ভর করতে হবে। ম্যাট কালারড আর ফ্ল্যাট টেক্সচারের কাপড় বেছে নিন। ভিড়ের মধ্যে সহজে চোখে পড়ার জন্য ঢেউ খেলানো বা ফ্লানেল প্যাটার্ন নিতে পারেন। কাপড়ের রং বাছাইয়ের ক্ষেত্রে নেভি ব্লু বা অন্য ডিপ কোনো রং চুজ করুন। কেননা এগুলোতে ফিনিশিংয়ের খুঁটিনাটিগুলো চোখে কম পড়ে থাকে।

ফিটিংয়ের দিকে আলাদা নজর দিন

ফিটিংসে সমস্যা হলে স্যুটের পিছনে অনেক ইনভেস্ট করা হলেও সেটা বিফলে যায়। আপনি চাইলে অনেক কম খরচ করেও এক্সপেনসিভ লুকিং স্যুট বানাতে পারেন, যদি ফিটিংসের দিকে কিছু বিষয়ে নজর দেন। প্রথমত, শোল্ডারের দিকে খেয়াল রাখবেন। শোল্ডার যেন সঠিকভাবে প্লেস হয়। সাধারণত যে শার্টের সাথে পেয়ার করবেন, সেটার সাথেই কম্পেয়ার করে বানান। স্লিভ যেন সিমিং হয়, এতে কলার সঠিক জায়গায় বসে থাকবে।

ক্যানভাস

স্যুটের ভিতরে যে কাপড় দেওয়া হয় সেটা হলো ক্যানভাস। এই ক্যানভাস নিয়ে আমরা অনেকেই ভাবি না, হেলাফেলা করে থাকি। কিন্তু ক্যানভাসের উপরেই স্যুটের শেপ অনেকটা নির্ভর করে। সাশ্রয়ের জন্য ক্যানভাস কম ব্যবহার করতে চাইলে তা সেখানেই ব্যয় করুন যেখানে অন্যের নজর বেশি যায়।

ভ্যারিয়েন্ট চাহনি

সাধারণত কমপ্লিট স্যুট একটু এক্সপেন্সিভ পরতে হয়, সেখানে ম্যাচিংয়ের একটা ব্যাপার থাকে। তবে আজকাল স্যুটেড লুকে ভ্যারিয়েশন আনা হচ্ছে, আনম্যাচড স্টাইল আজকাল বাড়তি ভ্যালু যোগ করছে। স্যুটের সাথে বাড়তি কিছু এক্সেসরিজ বা বুটও আজকাল আলাদা আবেদন তৈরি করছে বটে। কালার কম্বিনেশনে আনুন হরেক মাত্রা, সাথে বিভিন্ন অনুষঙ্গ ব্যবহার করে ফুটিয়ে তুলুন নিজেকে।
টুকিটাকি অনেক দিক
স্যুটের এক্সপেন্সিভ চাহনির জন্য আসলে চাইলে আপনি অনেক দিকে খেয়াল রাখতে পারেন, যা আপনার কাজকে সহজ করে তুলবে। চলুন এমন কিছু টুকিটাকি দিক জেনে নিই-

- স্যুটের লুকিং ঠিক রাখতে চাই আলাদা যতœ, ব্লিচ করার ব্যাপারে খেয়াল রাখুন। ড্রাই ওয়াশ ছাড়া ধুবেন না। সু্যুট কাভার ছাড়া রাখবেন না।
- সম্ভব হলে সরাসরি হিট ব্যবহার না করে পার্সোনাল স্টিমার রাখুন।
- শারীরিক গঠন স্যুট আকর্ষণীয় লাগার একটি বড় কারণ, এক্সারসাইজ করুন রোজ।
- স্যুটের সাথে প্যান্ট অবশ্যই স্লিম ফিটেড বানাবেন, আর গোড়ালির দিকে ১.৫ ইঞ্চি কাফ ব্যবহার করুন, এতে আকর্ষণীয় দেখাবে।
- স্যুট বানানোর সময় আপনার দর্জিকে টুইকিংয়ের ব্যবহার করতে বলুন।
- স্যুটের বাটন সিলেকশনে আলাদা সময় দিন কেননা বাটনের উপরে স্যুটের লুকিং অনেকটা নির্ভর করে।


-তানভীর জাহান
ছবি : নীল ভৌমিক