শনিবার,২৫ মে ২০১৯
হোম / বিবিধ / নারী-পুরুষের মাঝে ১০টি মানসিক পার্থক্য
০২/১৭/২০১৯

নারী-পুরুষের মাঝে ১০টি মানসিক পার্থক্য

- অনন্যা ডেস্ক:

নারী-পুরুষের শারীরিক গঠনে ভিন্নতা থাকলেও, মানসিকতার ক্ষেত্রে নির্ভর করে তার বেড়ে ওঠার পরিবেশ।
বর্তমান সমাজে নারী ও পুরুষের মধ্যে কোন বিভেদ কিংবা বৈষম্য না করা হলেও তাদের মাঝে বেশ কয়েকটি মানসিক পার্থক্য সারাজীবন থেকেই যাবে।
মনস্তত্ত্ববিদদের মতে, পুরুষ ও নারীর ব্রেনের কাজ করার প্রক্রিয়ার উপরেই মানসিক এই বিভেদ ঘটে থাকে।
‘সাইকোলজি টুডে’ নামের এক মেডিকেল ওয়েবসাইটের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, নারী-পুরুষের মধ্যে ১০টি মৌলিক মানসিক পার্থক্য হচ্ছে-

১। পুরুষদের ব্রেন স্বাভাবিকভাবে অঙ্ক কষতে পছন্দ করে। সেক্ষেত্রে মহিলারা পছন্দ করেন ভাষা।
২। মেয়েরা কথা কাটাকাটি করলেও, সাধারণত মারামারি করে না। কিন্তু, পুরুষদের ক্ষেত্রে প্রাধান্য পায় পেশীনির্ভরতা।
৩। কোনও সিদ্ধান্ত নেবার ক্ষেত্রে আবেগকে প্রাধান্য দেয় না পুরুষরা। কিন্তু, মহিলারা আনুষঙ্গিক অনেক কিছু ভেবে সিদ্ধান্ত নেয়।
৪। মজার কিছু হলে পুরুষরা হাসেন, কিন্তু মহিলারা হাসেন যখন তারা মনে করেন হাসবেন।

৫। পুরুষদের কাছে তাদের গাড়ি অত্যন্ত প্রিয় বস্তু হয়, তাই তা পরিষ্কার রাখতে পছন্দ করে। কিন্তু, মহিলারা মনে করে, গাড়ি পরিষ্কার করা আর জুতোর তলা পরিষ্কার একই ব্যাপার।
৬। আবেগজড়িত ঘটনার কথা পুরুষদের তুলনায় বেশি মনে করেন মহিলারা।
৭। জীবনে স্ট্রেস বাড়লে, পুরুষদের শারীরিক চাহিদা বাড়ে। যা মেয়েদের ক্ষেত্রে সম্পূর্ণ উল্টো ।
৮। যে কোন মানুষ বিচার করার ক্ষমতা পুরুষদের তুলনায় অনেকটাই বেশি হয় মেয়েদের।
৯। একজন মহিলার প্রতি আকৃষ্ট হওয়ার প্রথম কারণ তার সৌন্দর্য। অন্যদিকে, বাহ্যিকরূপ বিশেষ আকর্ষণ করে না নারীদের।
১০। সমস্যার কথা সাধারণত কারোর সঙ্গে আলোচনা না করেই মেটানোর চেষ্টা করে পুরুষেরা। কিন্তু, নারীরা তা আলোচনা না করতে পারলে বেশি সমস্যায় পড়েন।