শনিবার,১৬ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
হোম / বিবিধ / রসুনের উপকারিতা অনেক রকম
০১/২৭/২০১৯

রসুনের উপকারিতা অনেক রকম

-

রসুন- রান্নায় ব্যবহৃত এই উপাদানটির ভেষজ উপকারিতা বোধহয় গুনে শেষ করা যাবে না। রসুনে রয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণে ম্যাঙ্গানিজ, ভিটামিন বি৬ এবং ভিটামিন সি, যা শরীরের জন্য বিশেষ উপকারী। এছাড়াও এক গবেষণায় দেখা গেছে, একটি মাঝারি সাইজের রসুনে এক লাখ ইউনিট পেনিসিলিনের সমান অ্যান্টিবায়োটিকের কার্যক্ষমতা রয়েছে। তবে আসুন জেনে নিই রসুনের নানাবিধ উপকারিতা।

- সবচেয়ে বেশি উপকার পেতে কাঁচা রসুন চিবিয়ে খান। কাঁচা রসুন অ্যান্টিবায়োটিকের মতো কাজ করে।
- হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সহায়ক রসুন। কোলেস্টেরল কমায়। এতে করে হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমে।
- যারা উচ্চরক্তচাপে ভুগছেন তারা রসুন খেতে পারেন। উপকার পাবেন।
- রক্তে কোলেস্টেরল স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি হলে কাঁচা রসুন চিবিয়ে খান।
- ক্যান্সার প্রতিরোধ করে রসুন। নিয়মিত রসুন খেলে প্রোস্টেট ক্যান্সার, স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায়।
- ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।
- শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমাতে সাহায্য করে রসুন। এক গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন রসুন খেলে মেদ কমে যায় ও শরীর সুস্থ থাকে।
- পরিপাকতন্ত্রের নানাসমস্যা দূর করে। হজমশক্তি বাড়ায় ও কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করে।
- ইস্ট ইনফেকশন দূর করে।
- দাঁতের ব্যথা সারাতে সহায়তা করে। শিশু কিংবা বড়দের দাঁতে ব্যথা হলে একে কোষ রসুন চিবালে দাঁতে ব্যথা উপশম হবে।
- রসুনের ফাইটোনসাইড অ্যাজমা সমস্যা নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে। দীর্ঘমেয়াদী হুপিং কাশি ও ব্রঙ্কাইটিসের সমস্যাও নিয়ন্ত্রণে রাখে।

- চোখে ছানি পড়ার হাত থেকে রক্ষা করে।
- যৌনক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
- রসুন হচ্ছে ন্যাচারাল পেইন কিলার। হাতে পায়ে জয়েন্টের ব্যথা দূর করে এবং বাতের ব্যথা সারায়।
ত্বককে বুড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। ব্রণের ওপর এক কোয়া রসুন ঘষুন। এর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ব্যাকটেরিয়া ধ্বংস করে। ব্রণে
নিয়মিত রসুন লাগালে ধীরে ধীরে মিলিয়ে যাবে ব্রণ।
- দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
- ফ্লু এবং শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা দূর করতে সহায়তা করে।
- হালকা গরম পানিতে রসুন থেঁতো করে ভিজিয়ে রাখুন কিছুক্ষণ। পান করার আগে অল্প একটু মধু কিংবা আদা মিশিয়ে নিন। গলার খুসখুসে
ভাব কমে যাবে।
- নিয়মিত রসুন খেলে ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাসজনিত রোগের ঝুঁকি কমে যায়। সর্দি কাশিতেও রসুন উপকারী।
- চুলপড়া রোধ করতে রসুনের রস লাগান মাথার ত্বকে। তেলের সঙ্গে মিলিয়েও লাগাতে পারেন। কিছুক্ষণ রেখে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন চুল।
কমে যাবে চুলপড়া।
- যারা বাইরে বেশি থাকেন ও হাঁটাহাঁটি করেন বেশি, তাদের পা দ্রুত রুক্ষ হয়ে যায়। উষ্ণ পানিতে রসুনের রস মিশিয়ে পা ভিজিয়ে রাখুন
কিছুক্ষণ। দূর হবে পায়ের রুক্ষতা।

খেয়াল রাখবেন-

- একবারে অতিরিক্ত কাঁচা রসুন না খাওয়াই ভালো। তবে রান্নায় রসুন ব্যবহারের ক্ষেত্রে রান্নার রেসিপির পরিমাণ অনুযায়ী ব্যবহারে কোনো বাধা নেই।

- কাঁচা রসুন নিয়মিত খাওয়া শুরু করার আগে অ্যালার্জি টেস্ট করিয়ে নিন।

- যাদের শরীর থেকে রক্তপাত সহজে বন্ধ হয় না, তাদের বেশি না খাওয়াই ভালো। কেননা রসুন রক্তের জমাট বাঁধার ক্রিয়াকে বাধা প্রদান করে। ফলে
রক্তপাত বন্ধ হতে অসুবিধা হতে পারে।

- এছাড়া রসুন খাওয়ার ফলে পাকস্থলীতে অস্বস্তি বোধ করলে রসুন খাওয়া বন্ধ রাখুন এবং চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।


- রাকা ইসলাম