মঙ্গলবার,১৬ অক্টোবর ২০১৮
হোম / অন্দর-বাগান / পেনড্যান্ট লাইটে সাজান ঘর
০৯/২৩/২০১৮

পেনড্যান্ট লাইটে সাজান ঘর

-

একটা স্টাইলিশ পেনড্যান্ট লাইট হতে পারে আপনার ঘরে ফোকাল পয়েন্ট, যা ঘরে আনবে সফিস্টিকেশন, আর্টিস্টিক ও মডার্ন স্থাপত্যের ছোঁয়া এবং সেইসাথে রঙের বাহার। রান্নাঘরে পেন্ড্যান্ট লাইট যেমন কাজের জন্য আলো দেয়, তেমনি লিভিং রুমেরগুলো আবার আড়ম্বরপূর্ণ আলো ছড়িয়ে দেয়। আর এত কিছুর পর আলোটা হবে বোনাস পাওয়া।

সাম্প্রতিক সময়ে আলোর ব্যাবহারে ঘর সাজানো বেশ ট্রেন্ডি হয়ে উঠেছে, বিশেষ করে পেনড্যান্ট লাইট দিয়ে। এই ঝুলন্ত বাতিগুলো ছোট গ্লোবের আকার থেকে শুরু করে আরও বড় হতে পারে। এখনকার ফ্যাশন হলো একই শেপ ও ম্যাটেরিয়ালের কয়েকটি ছোট বাতি গ্রুপ করে সিলিং-এ ঝুলিয়ে দেওয়া।

এব্যাপারে প্রথমেই হোম ডেকোরেটর বা প্রফেশনাল কারো সাথে কথা বলে নিন। বিশেষ করে পুরানো বিল্ডিং হলে সেখানে হুটহাট পেনড্যান্ট লাইট কিনে ফেলা উচিত না। কারণ ওয়্যারিং-এর ব্যাপার আছে। তাছাড়া সিলিং-এর সাথে পেনড্যান্ট লাইটের ওজনও খুব সাবধানতার সাথে বিবেচনা করা লাগবে। এল.ই.ডি লাইটে স্থানান্তরিত করার জন্য আপনার মাথায় রাখতে হবে যে কয়টি ও কত ভোল্টেজের বাল্ব লাগানো প্রয়োজন। যেহেতু অনেকে একাধিক পেনড্যান্ট লাইট ঘরে লাগায়, আবার একটি ল্যাম্পেই অনেকগুলো লাইট থাকে তাই ওভারহিটেড হয়ে বাল্ব ফেটে যেতে পারে।

সঠিক সাইজের লাইট কিনুন
আপনি যতখানি জায়গা জুড়ে আলো চান, অর্থাৎ যেই স্পটটির উপর আলো পড়বে, লাইট শেডের আকার হবে তার চেয়ে বড়। যদি আপনি পুরো ঘর জুড়ে আলো চান, তাহলে সমান সাইজের পেনড্যান্ট লাইট সমান দুরত্ব জুড়ে লাগাতে হবে। আর যদি চান একটি ছোট্ট আলোকিত কর্নার, তবে সেখানে একটি ছোট পেনড্যান্ট লাইট ঝুলানোই যথেষ্ট।

লাইটশেড ঝুলান সঠিকভাবে
খেয়াল করে সঠিক হাইটে পেনড্যান্ট লাইট ঝুলাবেন। যদি আপনার সিলিং ৮ ফুট উঁচু হয় তাহলে লাইটগুলো সিলিং থেকে ১২-২০ ইঞ্চি নিচে হবে। আবার সিলিং ৯ ফুট উঁচু হলে একে ১৫-৩০ ইঞ্চি নিচে রাখা উচিত। প্রতি অতিরিক্ত ফুটের জন্য এভাবে ৩ ইঞ্চি যোগ করুন।

স্টাইল বেছে নিন
বাজারে অনেক ধরনের পেনড্যান্ট লাইট পাওয়া যায়। তাই আপনার বাসার ডিজাইন ও সাজসজ্জা বুঝে সঠিক টাইপটি বেছে নিতে হবে। গ্লাস ও ক্রোমের তৈরি লাইটশেড স্লিক ও আধুনিক দেখায়। কিছু লাইটের চারপাশে একটি ছায়া পড়ে, যা রুমে একটি ক্লাসিক ও ট্র্যাডিশনাল চাহনি আনে, অন্যদিকে ভিনটেজ লুক আনতে পারে মেটালিক বা স্টেইনলেস স্টিল বা পিতলের লাইটশেডগুলো। যেই লাইটই বেছে নিন, খেয়াল রাখবেন তা যেন ঘরের বর্তমান লুকের সাথে যায় ও একইসাথে নান্দনিক ও কার্যকরী হয়।

স্পেস
বুঝেশুনে লাগালে পেনড্যান্ট লাইট ঘরে খুব বিশাল একটি পার্থক্য এনে দিতে পারে। লাইটিং এর প্লেসমেন্ট এর উপর নির্ভর করবে ঘর বড় দেখাবে না কি ছোট। আবার ছোটো ঘরে বেশি আলো দিলে তা কখনো ঘরকে আরও ছোটও দেখাতে পারে। পেন্ড্যান্ট লাইট পুরো ঘরে একটি হালকা আলো দেয় ও অনাকাক্সিক্ষত আলোর তীব্রতা কমিয়ে দেয়।

খেয়াল রাখুন-
ডিমারসহ পেনড্যান্ট লাইট লাগালে আপনি আলোর তীব্রতা ইচ্ছামত কন্ট্রোল করতে পারবেন। প্রয়োজন হলে বেশি আলো অথবা মোলায়েম আলোর ব্যবস্থা করতে পারবেন।

পেনড্যান্ট লাইট-কে আপনি আলোর পাশাপাশি আর্ট হিসেবেও উপস্থাপন করতে পারবেন। তাই একেবারে কঠিনভাবে নিয়ম না মেনে একটু এক্সপেরিমেন্ট করুন। ঘরের লুক হয়ে উঠবে ভিন্ন।

বেডরুমে টেবিল ল্যাম্পের বদলে সিলিং থেকে ঝুলিয়ে দিতে পারেন সুদৃশ্য পেনড্যান্ট লাইট। ডিমার যেন হাতের নাগালের মধ্যে থাকে তা খেয়াল রাখবেন।

- নুসরাত ইসলাম