রবিবার,২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
হোম / জীবনযাপন / অপেশাদার বনে যাচ্ছেন না তো?
০৯/০৬/২০১৮

অপেশাদার বনে যাচ্ছেন না তো?

-

কর্মক্ষেত্রে কখনো কি আপনার এমন মনে হয়েছে যে, সহকর্মীরা আপনাকে গুরুত্ব সহকারে দেখছে না অথবা একসঙ্গে অনেকেই আপনার নামে অভিযোগ করছেন? তাই যদি হয়, তবে সহকর্মী নয়, সমস্যা হয়তো আপনারই। হয়তো আপনার আচরণেই রয়েছে অপেশাদারিত্বের ছাপ, যা কর্মক্ষেত্রে আপনার ভাবমূর্তিকে ক্ষুণ্ণ করে চলেছে প্রতিনিয়ত। কর্মক্ষেত্রে আপনি যত সিনিয়রই হোন না কেন, কিছু কাজ আপনাকে সহকর্মীদের চোখে ছোট করে দেবে।

কর্মক্ষেত্রে দেরি করে আসা
বিভিন্ন কারণে মাঝেসাঝে দেরি হয়েই যায়, যেমন ধরুন জ্যাম, বৃষ্টি কিংবা বাস মিস করা। সেটা হওয়া তেমন দোষের কিছুই নয়। কিন্তু এ কাজটা যদি আপনি দিনের পর দিন করতেই থাকেন সেটা বেশ দৃষ্টিকটু হয়ে যায়। এর মানে এই দাঁড়ায় যে, আপনি আপনার কাজকে তেমন গুরুত্ব সহকারে দেখছেন না। ঠিক তেমনিভাবে প্রতিদিন একটু আগে বেরিয়ে যাওয়াটাও আপনার ক্যারিয়ারকে হুমকির মুখে ফেলে দেয়।

নেতিবাচক মানসিকতা
কাজে ফাঁকি দেওয়া, কাজ পাবার আগেই ঘাবড়ে যাওয়া, সবকিছুর ব্যাপারে নৈরাশ্যবাদ এমন মনোভাব মোটেও গঠনমূলক নয়, তারিফ পাবার যোগ্য তো নয়ই। এমন কিছু কাজ আপনার সহকর্মীদের মনে আপনার সম্পর্কে বিরূপ ধারণা সৃষ্টি করবে আপনার অজান্তেই।

ডেস্কে কী করছেন?
আপনি কি ডেস্কটপের সামনে বসে খুব বেশি সেলফি তুলতে পছন্দ করেন? অথবা প্রতি আধা ঘণ্টা অন্তর একবার ফেসবুকে ঢুঁ না মারলে চলেই না আপনার? ফোনে প্রচুর পরিমাণে গেম খেলতে ভালোবাসেন আপনি, হোক সেটা অফিসেও? কিংবা আপনি কি ডেস্কে বসেই আই শ্যাডো, মাশকারা কিংবা নেইল পলিশ লাগাতে পছন্দ করেন? এক্ষুনি বন্ধ করুন সেসব। এসব করে আপনি শুধু আপনার মূল্যবান কর্মঘণ্টাই অপচয় করছেন না, সাথে সাথে আপনার সহকর্মীদেরও দেখাচ্ছেন যে, আপনি অফিসের চেয়ে এসব ব্যক্তিগত কাজকেই প্রাধান্য দেন বেশী। আপনি কি চাইবেন কর্মক্ষেত্রে এসব কাজের জন্য সহকর্মীদের হাসির পাত্র বনে যান?

অবিরাম খোশগল্পে মেতে থাকা
কর্মক্ষেত্রে একঘেয়েমি দূর করতে বিরতির সময় চা কফি খেতে খেতে সহকর্মীদের সাথে দুচারটা কথা বলাই যায়। কিন্তু সারাদিন এমনকি কাজের সময়ও বকবক করতেই থাকা অতি অবশ্যই ভালো কাজ নয়। কেন ভালো কাজ নয় সেটা ব্যাখ্যার প্রয়োজন আছে কী?

জরুরি না হওয়া সত্ত্বেও অফিসে ব্যক্তিগত ফোনকল রিসিভ করাও একজন পেশাদারের জন্য অবশ্য বর্জনীয় একটি কাজ। কর্মস্থলে কাজে ব্যস্ত থাকা সহকর্মীদের কাজে ব্যাঘাত ঘটানোর (এবং অবশ্যই বিরক্ত করার) আগে দ্বিতীয় বার চিন্তা করুন।

মৌলিক স্বাস্থ্যবিধি না মানা
যদি আপনি আপনার ব্যবহৃত ওয়ান-টাইম-ইউজ কাপ বা ন্যাপকিন ডেস্কেই ফেলে আসেন, টিস্যু বা রুমাল ছাড়াই নাক ঝাড়েন, খাবার সময় উটকো শব্দ করেন কিংবা অদ্ভুত সব ঢেঁকুর তোলেন অথবা আপনার গায়ের গন্ধে আশেপাশের লোকজনকে যদি কয়েক ধাপ সরে যেতে হয় তবে তা আপনার পেশাদারিত্ব তো বটেই, আপনার ভাবমূর্তিও ক্ষুণ্ণ করবে। মনে রাখবেন, অফিসে শুধু আপনি একাই কাজ করেন না এবং আপনার ডেস্কও আপনার শোবারঘর না যে, যখন যা ইচ্ছা করে ফেলবেন।

- নেয়ামত