বুধবার,২১ নভেম্বর ২০১৮
হোম / খাবার-দাবার / দুনিয়াজুড়ে জনপ্রিয় সব 'মিট ডেস্টিনেশন'
০৮/১৯/২০১৮

দুনিয়াজুড়ে জনপ্রিয় সব 'মিট ডেস্টিনেশন'

-

মাংসের সাথে আমাদের ভোজনরসিকদের সম্পর্ক যেন অনেক পুরনো। যদিও অতিরিক্ত মাত্রায় মাংস সেবন করা স্বাস্থ্যের জন্য শুভকর নয়, তবুও আমাদের উৎসব আনন্দে কিংবা যেকোনো সামাজিক অনুষ্ঠানে মাংসের পদের কোনো বিকল্প নেই। শুধু বাংলাদেশেই নয়, বরং পুরো বিশ্বজুড়েই আছে মাংসের নানা প্রকারের পরিবেশনা। মাংসের প্রতি আপনার ভালোবাসা যদি হয়ে থাকে সীমাহীন, আজই বেরিয়ে পরুন বিশ্বের নামিদামি মাংসের হটস্পট ঘুরে আসতে। কোথায় কী পাবেন, জানিয়ে দিচ্ছি।

রিও ডি জেনিরো, ব্রাজিল
দক্ষিণ অ্যামেরিকার ব্রাজিল তাদের সাশ্রয়ী দামের উচ্চমানের গরু-মাংসের জন্য বিশ্বখ্যাত। ব্রাজিলের একটি নামকরা পদের নাম চুরাস্কো। এই সুস্বাদু বারবিকিউ পদ প্রস্তুত করা হয় বাঁশের কাঠির মধ্যে পিকানহা গ্রেডের বিফ গেঁথে। নানারকম মশলার মিশ্রণে মাংসের স্বাদ অনন্য এক রূপ নেয়। মুরগির মাংস মিহি করে তৈরি করা হয় কক্সিনা নামের আরেকটি পদ। ডুবোতেলে ভাজা এই ডিশ ব্রাজিলে স্ট্রিটফুড হিসেবে বেশ জনপ্রিয়। রিও ডি জেনিরো শহরে বেশ কিছু বিখ্যাত মাংসের রেস্তোরাঁ আছে, যার মধ্যে ভাইকিংস, ব্রাসেরিও দে গাভেয়া এবং চুরস্কারিয়া অন্যতম।

জাপান
জাপানের কোবে বিফকে বলা হয় বিশ্বের সবচেয়ে উচ্চমানের ও দামি মাংস। জাপানি সংস্কৃতি মতে, কোবে বিফের জন্য গৃহপালিত পশুর বিশেষ যত্ন নেওয়া হয়। মাংসের স্বাদ অনন্য করার জন্য এসব পশুকে স্পেশাল ডায়েটে রাখা হয়, যার মধ্যে আছে জলপাই, আঙুর এবং আরও অনেক কিছু। কিছু খামারে গরুর পালকে বিশেষ মিউজিক শোনানো হয় এবং তাদের জন্য বিশেষ বডি মাসাজও আছে! কোবে এবং হিদা বিফের মাখন সদৃশ স্টেক পাওয়া যায় জাপানের অনেক রেস্তরাঁয়। তাছাড়াও, কারাগে নামের একটি ভাজা মুরগির মাংসের পদ আছে, যা পরিবেশন করা হয় সয়াসস এবং আদার সাথে।

বুয়েনোস আইরেস, আর্জেন্টিনা
দক্ষিণ অ্যামেরিকার আরেকটি অত্যন্ত জনপ্রিয় মাংসের হটস্পট হচ্ছে আর্জেন্টিনা। ফুটবল খ্যাত আর্জেন্টিনা তাদের উচ্চ মানের বিফ এক্সপোর্ট-এর জন্যও পরিচিত। রাজধানী বুয়েনোস আইরেস এবং পাম্পাস শহর বিশ্বজুড়ে তাদের স্থানীয় মাংসের উৎসবের জন্য জনপ্রিয়। বিভিন্ন রেস্তরাঁয় বিফ রিব বারবিকিউ, ল্যাম্ব স্কিউয়ার, চারকোল চিকেন এবং আরও অনেক পদ পরিবেশন করা হয় প্রতিদিন। রাজধানীতে এতগুলো স্টেকের রেস্তোরাঁ আছে যে একটি বেছে নেওয়া মুশকিল। দা আর্জেন্টাইন এক্সপেরিয়েন্স, স্টেক্স বাউ লুইস এবং নিউ ব্রাইটন রেস্তোরাঁগুল বেশ জনপ্রিয়।

সিউল, দক্ষিণ কোরিয়া
মাংসের জন্য দক্ষিণ কোরিয়া এশিয়ার মধ্যে একটি অন্যতম গন্তব্য। বিশ্বখ্যাত কোরিয়ান বারবিকিউ আজকাল ঢাকারও কিছু রেস্টুরেন্টে পাওয়া যায়। কোরিয়ার হানু বিফ বেশ উচ্চমানের এবং এই মাংসের নানাপদ বিভিন্ন রেস্তরাঁয় পরিবেশন করা হয় নুডলস, ফ্রাইড রাইস কিংবা ব্রথের সাথে। কোরিয়ান স্টাইল ফ্রাইড চিকেনও রাজধানী সিউল এবং অন্যান্য স্থানে বেশ জনপ্রিয়। প্রতিবছর দক্ষিণ কোরিয়ায় চিমায়েক উৎসবে শুধুমাত্র চিকেন ফ্রাই এবং বিয়ার পরিবেশন করা হয়। সাধারণত বেশিভাগ বারবিকিউ এবং চিকেন ফ্রাইয়ের রেস্তোরাঁয় লাইভ গানের ব্যবস্থা থাকে।

অস্টিন, টেক্সাস
হলিউডের অ্যামেরিকান কালচার উপস্থাপনার জোরে অনেকেই টেক্সাস-এর স্টেকের সাথে পরিচিত। মেপল কিংবা ওক গাছের ধোঁয়ায় তৈরি নানাপদের স্মোকড বারবিকিউর জন্য যুক্তরাজ্যের টেক্সাস স্টেট অত্যন্ত জনপ্রিয়। ব্রিস্কেট অথবা স্মোকড রিবস পরিবেশন করা হয় বেশ কিছু রেস্তোরাঁয়। তাছাড়াও, নানারকম পনীর দিয়ে তৈরি বার্গারের জন্যও টেক্সাসের অনেক রেস্তোরাঁ নামকরা। ফ্রাঙ্কলিন বারবিকিউ, সল্ট লিক, ক্রিউজ মার্কেট এবং অন্যান্য রেস্তোরাঁ প্রতিদিন ফ্রেশ বিফ থেকে নানাপদ পরিবেশন করে থাকে। তাছাড়াও, কিছু ওপেন রেঞ্জ রেস্তোরাঁ আছে যেখানে দল বেঁধে গেলে নিজে গরু কেনা থেকে শুরু করে পরিবেশন পর্যন্ত সব দেখতে পারবেন চোখের সামনেই।

- মাহদী