মঙ্গলবার,২২ মে ২০১৮
হোম / জীবনযাপন / প্রিয় মানুষটির বন্ধুরা যখন অপ্রিয়
০৫/০৩/২০১৮

প্রিয় মানুষটির বন্ধুরা যখন অপ্রিয়

-

সম্পর্কের রসায়নটা তখনই জমে যখন বোঝাপড়াটা ভালো হয়। একসাথে চলার পথে জীবনে এমন অনেক বাঁক এসে পরে যখন সমস্যাগুলো ঘনীভূত হয়ে যায় আমাদের কিছুটা অবহেলা আর অভিমানের জালে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, প্রতি চারজনে একজন নারীই তার পার্টনারের বন্ধুদের ক্ষতিকর মনে করেন এবং এ নিয়ে সম্পর্কে সমস্যার সৃষ্টি হয়। এক্ষেত্রে পারস্পরিক বোঝাপড়ার পথে নিম্নোক্ত বিষয়গুলো নিশ্চিত করা দরকার।

প্রথমেই নিরপেক্ষভাবে খতিয়ে দেখুন
শুরুতেই যা দরকার তা হলো পুরো বিষয়টি নিরপেক্ষভাবে খতিয়ে দেখা। কেননা আপনি যা সন্দেহ করছেন তা আদতে নাও হতে পারে। আপনার ইনসিকিউরিটি আর জেলাসি থেকেও এমনটি আপনি বোধ করতে পারেন। আপনার পার্টনার হয়তো তার বন্ধুদের বেশি সময় দিচ্ছেন আর তা উচ্ছ্বাস নিয়ে প্রকাশও করছেন আপনার কাছে, এমনটা হওয়া স্বাভাবিক কেননা আপনার আগেই তারা আপনার প্রিয় মানুষটির জীবনে এসেছেন, ঠিক যেমন আপনার বন্ধুরাও আছেন আপনার জীবনে। কিন্তু আপনার অনুসন্ধানে যদি আপনার সন্দেহই সত্য প্রমাণিত হয় তাহলে তা পজিটিভ্লি নিন।

সমস্যার গভীরে যান
ভালোবাসার মানুষটি আপনাকে সময় কম দিয়ে তার বন্ধুদের দিচ্ছেন, তাদের সাথে প্রাণবন্ত থাকছেন বেশি- এক্ষেত্রে প্রথমেই নেগেটিভলি না নিয়ে ভেবে দেখতে হবে যে আপনাদের সম্পর্কে কোনো সমস্যা আছে কিনা যা আগে ঠিক করা উচিত। তার অবসর সময়গুলোকে নিজের করে নিন, তাকে কাছে টানুন, একান্তে সময় কাটান। খোলামনে দুজনে গল্পগুজব করুন, সময় করে রোমান্টিক ক্যান্ডেল লাইট ডিনারও সেরে নিতে পারেন।

খোলামেলা কথা বলুন
আপনার সঙ্গীর সাথে সরাসরি আপনার মনের কথা বলুন, আপনার ভয় আর আশঙ্কা নিয়ে তাকে বোঝান। এক্ষেত্রে সতর্ক থাকবেন, কোনোভাবেই যেন আপনার ব্যবহার আক্রমণাত্মক না হয় আর অভিযোগের সুর না আসে। পুরুষের সাইকোলজি বলে যে তারা সাধারণত তাদের বন্ধু আর প্রিয়জনকে অন্যের অভিযোগের ভিত্তিতে দূরে ঠেলে দেন না, সুতরাং এসময় আপনার ক্রোধ হিতে বিপরীত হবে বৈকি। কিন্তু আপনি যদি তাকে ভালোভাবে ঠান্ডা মাথায় এবং অবশ্যই যুক্তি সহকারে বোঝাতে সক্ষম হন তবে তিনি এর সমাধান করতে ইচ্ছুক হবেন।

চাই সতর্ক কথোপকথন
সমস্যার ব্যাপারে কথা বলার সময় সর্বদা ইতিবাচক থাকবেন। সরাসরি অভিযোগ করবেন না, বরং মধ্যপন্থা অনুসরণ করুন। আপনি আপনার পার্টনারের বন্ধুদের সব ব্যাপারেই নেগেটিভ, এমন বোঝাবেন না। নির্দিষ্ট অভিযোগ করুন, সুস্থিরভাবে আপনার মনের কথা যুক্তিসহ তুলে ধরুন, ঠান্ডা মাথায় পুরো বিষয়টি হ্যান্ডেল করুন। আপনার পজিটিভ ব্যবহারই যেন আপনার পার্টনারকে মুগ্ধ করতে পারে।

নতুনদের সাথে মিশতে উৎসাহিত করুন
বাজে সঙ্গীদের সাথে মেশা বন্ধ করার একটি ভালো উপায় হলো নতুনদের সাথে মিশতে উৎসাহিত করা। তাকে নতুন নতুন মানুষদের সাথে মেশার ব্যবস্থা করে দিন। পুরনো ভুলে যাওয়া বন্ধুদের সাথে তার যোগাযোগ করিয়ে দিতে পারেন, বাসায় দাওয়াত করে অন্তরঙ্গতা বাড়াতে পারেন। প্রয়োজনে ছোটখাট ফ্যামিলি হলিডে প্ল্যানও করতে পারেন। এতে করে আপনার সঙ্গী খারাপ সঙ্গ থেকে আস্তে আস্তে সরে আসতে পারবেন।

- তানভীর জাহান

ছবিঃ নাঈম শান