রবিবার,২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮
হোম / জীবনযাপন / চাকরির ইন্টারভিউ-এ ড্রেসআপ এথিক্স
০৪/২৬/২০১৮

চাকরির ইন্টারভিউ-এ ড্রেসআপ এথিক্স

-

“ফার্স্ট ইম্প্রেশন ইজ দ্য লাস্ট ইম্প্রেশন” কথাটিতে বিশ্বাস করুন বা না-ই করুন, চাকরির ইন্টারভিউ-এর ক্ষেত্রে আপনার ফার্স্ট ইম্প্রেশনই চাকরি পাওয়া বা না পাওয়ার পেছনে অন্যতম প্রভাবক হয়ে দাঁড়াতে পারে। ইন্টারভিউ শুরু হওয়ার আগেই আপনার ড্রেসআপ, আপনার ব্যক্তিত্ব নিয়ে ইন্টারভিউয়ারদের মনে বেশ কিছু ধারণা তৈরি করে ফেলে। আর আপনি অবশ্যই চাইবেন যেন তাদের এই ধারণাগুলো ইতিবাচক হয়। তাই পোশাক-আশাকের বিচারে যেন সফলভাবে উত্তীর্ণ হতে পারেন, এজন্য কিছু টিপস ও ট্রিকস মনে রাখা জরুরি।

প্রচলিত স্টাইলে ড্রেসআপ
ফর্মাল পোশাক-আশাক ও মার্জিত লুক যেকোনো ইন্টারভিউ-এ একটি চমৎকার প্রভাব ফেলতে সক্ষম। সাথে পোশাকের রঙ নির্বাচনের দিকেও নজর দেওয়া উচিত। প্রচন্ড উজ্জ্বল ও টকটকে রঙের কোনো কিছু পরিধান করা থেকে বিরত থাকুন যেন ইন্টারভিউয়ারদের মনোযোগ আপনার উদ্ভট কালার ম্যাচিংয়ে না যায়। সাদা, কালো, ধূসর, নেভি ব্লু ও বাদামি এই সাধারণ রংগুলোর মধ্যেই ড্রেসআপ সীমাবদ্ধ রাখা ভালো।

আগাম প্রস্তুতি
শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে যতই দক্ষ হন না কেন, কি পোশাক পরবেন তা ঠিক ইন্টারভিউ-এ যাবার আগ দিয়ে নির্ধারণ করাটা খুব ভালো ফলদায়ক হতে নাও পারে। অন্তত একদিন আগে ইন্টারভিউ-এর জন্য জামা-কাপড় ঠিক করে নিন। পাশাপাশি খেয়াল রাখবেন কাপড় যাতে কুচকে না থাকে, ভালোভাবে আয়রন করে নিন।

ছেলেদের পোশাক
ইন্টারভিউ-এ ফর্মাল ধাঁচের পোশাককে টক্কর দিতে পারে এমন কিছু নেই বললেই চলে। তবে স্যুট-টাই ছাড়া ফর্মাল বোঝায় না, তা ভুল ধারণা। ফর্মাল ধরনের শার্ট-প্যান্ট আপনার ভালো ড্রেসিং সেন্সের প্রতিনিধিত্ব করবে। কোম্পানির ধরন ও যে পজিশনের জন্য ইন্টারভিউ দিচ্ছেন তার উপর নির্ভর করে স্যুট-টাই ও শার্ট-প্যান্ট। এ দুটোর মধ্যে বাছাই করাটা ভালো। হালকা রঙের ফুলহাতা শার্টের সাথে গাড় রঙের স্যুট অথবা গাঢ় রঙের ফুলহাতা শার্টের সাথে হালকা রঙের স্যুট - এরকম ড্রেসআপ আপনার পারসোনালিটি সুন্দরভাবে তুলে ধরবে। পোশাকের পর অত্যন্ত গুরুত্ব বহন করে এমন আরেকটি জিনিস হলো জুতো। কালো বা বাদামি রঙের ভালোভাবে পলিশ করা জুতো আপনার ড্রেসআপ সম্পূর্ণ করে তুলবে। বর্তমানে আবার বেল্টের রঙের সাথে জুতোর রঙের মিল করে পরা হয়, যা খুব একটা মন্দ দেখায় না।

মেয়েদের পোশাক
বাঙালি নারীর সৌন্দর্য যেন শাড়িতেই ফুটে ওঠে! তবে ইন্টার্ভিউয়ের ক্ষেত্রে, মেয়েদের শাড়ি বা সালোয়ার-কামিজ দু’টিরই চল আছে। এখনকার সময়ে সালোয়ার-কামিজের পাল্লাটা বেশি ভারি বলে মনে করা হয়। সঙ্গে ফর্মাল শার্ট-প্যান্ট ও স্যুট-এও মেয়েদের আগ্রহ দিন দিন বাড়ছে। হালকা অলংকার এবং সাধারণ মেকআপের বাইরে বেশি কিছু করা দৃষ্টিকটু হতে পারে।

পেশাদার জীবনের একেবারে দোরগোড়ায় এসে চাকরির ইন্টারভিউ হতে পারে জীবনের এক অতি গুরুত্বপূর্ণ অভিজ্ঞতা। এখানে অর্জিত সাফল্য অবশ্যই আপনার ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জগুলোর সামনে দাঁড়াতে প্রেরণা জোগাবে। ডিগ্রি, সার্টিফিকেট বা দক্ষতা এ সবকিছুর আধিক্য থাকলেও শুরুতেই বিবেচনায় এসে যায় আপনার ড্রেসিং স্টাইল ও তার মাধ্যমে উঠে আসা আত্মবিশ্বাস ও দৃঢ়তা। শুধু কেতাবি জ্ঞান নয়, ইন্টারভিউয়ার খুঁজবেন আপনি নিজের দক্ষতা কতটা কার্যকারিতার সাথে প্রকাশ করতে পারছেন। তাই, চাকরির ইন্টারভিউ-এ উপযুক্ত ড্রেসআপ আপনার ফার্স্ট ইম্প্রেশনের শুভসূচনা করে দিতেই পারে।

- আবীর