বুধবার,২১ নভেম্বর ২০১৮
হোম / স্বাস্থ্য-ফিটনেস / গাইনোকোলজিস্ট-এর সাথে প্রথম অ্যাপয়েন্টমেন্ট
০১/২৪/২০১৮

গাইনোকোলজিস্ট-এর সাথে প্রথম অ্যাপয়েন্টমেন্ট

-

প্রথমবারের জন্য গাইনোকোলজিস্টের কাছে যাওয়া কিছুটা টেনশনের হতে পারে। যদিও এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আগে থেকে প্রক্রিয়া জানা থাকলে পুরো পদ্ধতিটি আপনার জন্য হয়ে উঠবে।

নারীদের স্বাস্থ্যের জন্য বিশেষ ডাক্তার
স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞরা মূলত প্রজনন পদ্ধতির জন্যই থাকেন। সেই সাথে নারীদের স্বাস্থ্য সম্পর্কিত সাধারণ সব কিছুর জন্য তাঁদের কাছে যাওয়া যায়। এছাড়াও তারা প্রসবোত্তর-গর্ভাবস্থা ও শিশুজন্মেও প্রশিক্ষিত হন। কিন্তু এটা আপনাকে বুঝতে হবে যে, তাদের সামগ্রিক ফোকাস আপনার স্বাস্থ্য এবং প্রজনন সিস্টেমের জন্য।

একজন গাইনোকোলজিস্টের কাছে ১৩-১৫ বছর বয়সেও প্রথম অ্যাপয়েন্টমেন্ট নেওয়া যায়; কিন্তু আপনি চাইলে যৌনভাবে সক্রিয় হওয়া অথবা বিশেষ কোনো সমস্যার জন্যও অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিতে পারেন।

প্রথম চেকআপ
আপনার প্রথম চেক-আপ ও এরপরের বেশিরভাগ অ্যাপয়েন্টমেন্টেই ডাক্তার আপনার যৌনস্বাস্থ্য, পারিবারিক ইতিহাস ইত্যাদি বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করবেন। আপনাকে অবশ্যই সব উত্তর সঠিকভাবে দিতে হবে, যাতে ডাক্তার আপনার সমস্যা ও স্বাস্থ্যের প্রয়োজন বুঝতে পারেন।

অ্যাপয়েন্টমেন্টের আগে অবশ্যই চিন্তা করে নিবেন আপনি শুধু নারী ডাক্তারের সামনেই কমফোর্টেবলভাবে সবকিছু বলতে পারবেন কিনা, কেননা অনেকে পুরুষ ডাক্তারের উপস্থিতিতে বিব্রত বোধ করেন।

ডাক্তারের প্রশংসাপত্র ও রেফারেন্স চেক করার জন্য ডাক্তারের নাম লিখে ইন্টারনেটে খুঁজে দেখতে পারেন। আর যদি প্রথম অ্যাপয়েন্টমেন্ট শেষে ডাক্তার পছন্দ না হয়, তাহলে পরেরবারের জন্য ডাক্তার বদলে নেওয়াটা খারাপ হবে না। তবে গাইনির ডাক্তারের কাছে কফর্টাবেল হওয়া বিশেষভাবে দরকারি।

পরিদর্শন পরিকল্পনা
অ্যাপয়েন্টমেন্টের দিন নির্ধারণ করার আগে অবশ্যই নিশ্চিত হয়ে নিন ওইদিন আপনার পিরিয়ড আছে কিনা। ডাক্তারের চেম্বারে যাওয়ার আগে প্রশ্ন প্রস্তুত করে রাখুন, দরকার হলে একটি কাগজে টুকে নিন। অনেকে ডাক্তারের সামনে গিয়ে গুরুত্বপূর্ণ সমস্যাগুলো ভুলে যায়।

প্রথম অ্যাপয়েন্টমেন্টে যত সম্ভব প্রশ্ন করার করে নিন এবং যা-যা জানার জেনে নিন। কোনো প্রশ্ন এড়িয়ে যাবেন না-ডাক্তারের দায়িত্বই আপনাকে সাহায্য করা। অ্যাপয়েন্টমেন্টে পৌঁছানোর আগে কি পরীক্ষা করতে যাচ্ছেন তা জানাও খুব প্রয়োজনীয়।

প্রধাণত চার ধরনের গাইনোকোলোলজিস্ট পরীক্ষা আছে-
- সাধারণ শারীরিক চেক-আপ;
- স্তন পরীক্ষা;
- প্যাপ নমুনা;
- পেলভিক পরীক্ষা।

প্রথম দর্শনে আপনি এক বা একাধিক পরীক্ষা করাতে পারেন; তাই এটা জানা প্রয়োজন কোন পরীক্ষার কাজ কী।

স্তন পরীক্ষায় ডাক্তার তাঁর আঙুল দিয়ে আপনার স্তন চেক করবেন কোনো লাম্প বা অস্বাভাবিকতা আছে কিনা দেখার জন্য। প্যাপ নমুনায় আপনার জরায়ুর কোষগুলি একটি স্পেশাল ব্রাশ দিয়ে উঠিয়ে সমস্যা পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়।

আর পেলভিক পরীক্ষায় আপনাকে বলা হবে টেবিলের উপর শোওয়ার জন্য এবং আপনার পা দুটিকে স্ট্রাকপের জায়গায় রাখতে বলা হবে। এসময় ডাক্তার আপনার যোনি, সার্ভিক্স, গর্ভাশম্ব ও ডিম্বাশয় পরীক্ষা করবেন। সাধারণত এই পরীক্ষাটি করা হয় যদি আপনি যৌনভাবে সক্রিয় হন বা এই সম্পর্কিত সমস্যা দেখা যায়।

বার্ষিক চেক-আপ
আপনার প্রথম অ্যাপয়েন্টমেন্টের পরে ভালো যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য নিশ্চিত করার জন্য নিয়মিত চেক-আপ করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বেশিরভাগ গাইনোকোলজিস্টরাই বার্ষিক চেক-আপ করতে বলেন। বার্ষিক চেক-আপে সাধারণ পরীক্ষার পাশাপাশি কাউন্সেলিং ও পরামর্শ সেশনও থাকে।

একজন গাইনোকোলোলজিস্ট ডাক্তারের উদ্দেশ্যই থাকে আপনাকে শারীরিকভাবে সুখী ও সুস্থ হতে সাহায্য করা। তাই প্রথম অ্যাপয়েন্টমেন্টের ব্যাপারে নার্ভাস হবেন না। এটি যৌন এবং প্রজনন স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখার জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ।

- নুসরাত ইসলাম