শনিবার,২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
হোম / জীবনযাপন / সেক্স টিপসঃ নবদম্পতিদের জন্য
১২/১৯/২০১৭

সেক্স টিপসঃ নবদম্পতিদের জন্য

-

বিয়ে মানেই জীবনের নতুন মোড়। লাইফস্টাইল থেকে শুরু করে জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই পরিবর্তন আনে বিয়ে। সে লাভ ম্যারেজই হোক কিংবা পরিবারের পছন্দে, বিয়ের পর সঙ্গীর সঙ্গে নিয়মিত দৈহিক সম্পর্ক এই পরিবর্তনের গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। তবে বিয়ের পর যৌন মিলনসংক্রান্ত ব্যাপার নিয়ে দুশ্চিন্তায় ভোগেন এমন নবদম্পতিদের সংখ্যাও নেহাত কম নয়।

- পরিবারের পছন্দে যারা বিয়ে করছেন তাদের ক্ষেত্রে শুরুর দিকে একে অপরের সম্পর্কে জানাশোনার অভাব থাকবে এটাই স্বাভাবিক। বলাই বাহুল্য, এর প্রভাব তাই শুরু দিকে যৌনজীবনেও পড়বে এবং একে অপরের ইচ্ছা-অনিচ্ছা নিয়ে সন্দিহান থাকবেন বেশ কয়েকদিন। এসময় দৈহিক সম্পর্কের ব্যাপারে জড়তা থাকবে এবং এ নিয়ে খানিকটা দুশ্চিন্তা মনের মাঝে বাসা বাঁধতে পারে। তবে অত ভেবে নার্ভাস হওয়ার কিছু নেই। একে অপরকে সময় দিন, পছন্দ-অপছন্দ জানুন। ধীরে ধীরে অন্যসব কিছুর মতো দৈহিক মিলনের মতো ব্যাপারগুলোও বেশ সহজ হয়ে আসবে।

- যৌনমিলন শুধুমাত্র শারীরিক বিষয় নয়, এর সঙ্গে দুজন মানুষের আবেগীয় ব্যাপারগুলোও যুক্ত। একে অপরকে এমনভাবে স্পর্শ করুন যাতে শারীরিক চাহিদার সঙ্গে সঙ্গে ভালোবাসা-স্নেহও প্রকাশ পায়। একে অপরের অনুভূতির প্রতি সংবেদনশীল হোন এবং শারীরিক বিষয়াদির সাথে মানসিক ব্যাপারগুলোর উপরও নজর দিন।

- শারীরিক সম্পর্কের মূল চাবিকাঠি হলো একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন ও বুঝতে পারার ক্ষমতা। এক্ষেত্রে বিয়ের পর সঙ্গীর সঙ্গে নিজের শারীরিক চাহিদা নিয়ে সরাসরি কথা বলে নিতে হবে। একে অপরের পছন্দ-অপছন্দ সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। তবে এসব আগে থেকে জানলে বা সঙ্গীর সঙ্গে বিয়ের আগ থেকেই দৈহিক সম্পর্ক থাকলে যে নতুন করে এ ধরনের যোগাযোগ স্থাপন করা লাগবে না, তা কিন্তু নয়। মানব মন সবসময় পরিবর্তনশীল। তাই সঙ্গীকে প্রতিদিন নতুন করে জানার চেষ্টা করুন।

- একটা বিষয় সবসময় মাথায় রাখতে হবে দৈহিক মিলন সম্পূর্ণভাবে দ্বিপাক্ষিক একটি বিষয় এবং এখানে দুজনের মতামতের সমান গুরুত্ব রয়েছে। তাই এ নিয়ে কোনো ধরনের জোর করা যাবেনা, এমনকি তিনি আপনার পূর্ব-পরিচিত কিংবা অনেকদিন ধরে তার সঙ্গে দৈহিক সম্পর্কে আছেন, এমন হলেও নয়। আপনার সকল যৌন ইচ্ছা সঙ্গীর ভালো লাগবে এমন ভাবাটা বোকামি। এর চেয়ে বরং একে অপরের মধ্যে বোঝাপড়া করে নিন এবং চুটিয়ে উপভোগ করুন সময়টা।

- দৈহিক মিলনে কখনোই তাড়াহুড়ো করবেন না। সঙ্গীর দেহের উষ্ণতা উপভোগ করুন, ধীরে-সুস্থে মিলন শুরু করুন। এক্ষেত্রে আরামদায়ক এবং নিরিবিলি স্থান বেছে নিন যেখানে একান্তে দুজন সময় কাটাতে পারবেন।

- পর্নোগ্রাফি অনুকরণ করে তা নিজের যৌনজীবনে বাস্তবায়ন করার চিন্তা মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলুন। অন্যান্য মুভির মতো পর্নো ভিডিওতেও এক ধরনের অভিনয় করা হয়, যা সাজানো প্লট এবং নিয়মিত কাট-এডিটিং-এর পর প্রকাশ করা হয়। এই অন্ধ অনুকরণ আপনার জীবনে হতাশা ছাড়া কিছু আনবে না। ক্যান্ডেল লাইট ডিনার, রোমান্টিক মুভি মিউজিক এসব ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র আয়োজনের মাধ্যমে সেক্স জিনিসটাকে ভিন্ন ভিন্ন আঙ্গিকে উপভোগ করুন। এক্ষেত্রে এসব আয়োজন ভিন্ন আবহ তৈরিতে সাহায্য করবে।

- শুরুতেই দুজনে জন্ম নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারটি খোলাখুলিভাবে আলোচনা করে নিন। এটি খুবই জরুরি। কোন পদ্ধতি আপনি ব্যবহার করতে চান, আর কোনটি আপনার সঙ্গী পছন্দ করছেন তা নিয়ে কথা বলুন। প্রয়োজনে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

- আতিফ হাসান