মঙ্গলবার,২০ ফেব্রুয়ারী ২০১৮
হোম / ফ্যাশন / এথনিক পোশাকে তরুণীরা
১০/০৫/২০১৭

এথনিক পোশাকে তরুণীরা

-

এথনিক পোশাকের বিচিত্র প্রিন্ট, সমসাময়িক সিলুয়েটস, সমৃদ্ধ টেক্সচার ও শহুরে নকশা বেশ পরিচিত ও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে শহরের বিশোর্ধ্ব নারীদের মাঝে। বাংলাদেশে মণিপুরি বা অন্যান্য এথনিক কাপড়ের চল বেশ আগে থেকেই, তবে এখন এটি একটি স্টাইল স্টেটমেন্ট হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বেছে নিন ফিউশন সিলুয়েটস
সিলুয়েটসের অর্থই হলো হালকা রঙের উপর দৃশ্যমান গাঢ় রঙের আকৃতি বুঝতে পারা। যেমন আপনি এথনিক শৈলী দেখাতে পারেন বেইজ ও গোলাপি রঙের কুর্তা পরে। এতে বেইজের নিউট্রাল শেডের বিপরীতে গোলাপির প্রভাব লক্ষণীয় হয়। এর সঙ্গে মিলিয়ে বেইজ পালাজ্জো, সঙ্গে এথনিক লুক আনতে টারসেলের তৈরি গয়না পরতে পারেন। গোলাপি বা বেইজ জুতা ও চুলে মেসি বান এথনিক লুককে পরিপূর্ণ করে। সিলুয়েটস ট্রেন্ডের অনুসারী হতে হলে শুধু গোলাপি ও বেইজ রং বেছে নিতে হবে এমন কোনো কথা নেই, পছন্দমতো খুঁজে নিন দুটি একই শেডের বিপরীত রং। এক্ষেত্রে বিপরীত বলতে সাদা ও কালো বোঝায় না, বরং ছাইরং ও কালো ধরনের কম্বিনেশন দরকার এই ট্রেন্ডের জন্য।

টাই-ডাই প্রিন্ট খুঁজে নিন
কয়েক রঙের জাঁকজমক ও বিচিত্র ধরনের প্রিন্টই চলতি হালে টাই-ডাই প্রিন্ট নামে পরিচিত। বাংলাদেশের আবহাওয়ার জন্য হরেক রঙের সুতি ও সিল্কের কুর্তা বেশ উপযোগী বন্ধুদের সঙ্গে ক্যাসুয়ালি বের হওয়ার জন্য। টাই-ডাই প্রিন্টের জামাগুলো খুব চকমকে হওয়াতে চেষ্টা করুন হালকা এক রঙের কোনো পায়জামা বা প্যান্ট পরতে। টারসেল বা ঝুলানো কানের দুল ও রঙিন নাগড়া বা জুতা পরুন, সঙ্গে কপালে ছোট্ট একটি টিপ পরিপূর্ণ করবে এই লুকটিকে।

কুর্তির বদলে কিনুন টিউনিক
এথনিক স্টাইলিং-এর জন্য কুর্তি সবারই পছন্দের, কিন্তু কুর্তি সবাইকে মানায় না। এখানে চিন্তার কিছু নেই, কুর্তির জায়গায় বেছে নিন টিউনিক। ইদানীং জর্জেট কাপড়ের কুর্তি-অনুপ্রাণিত টিউনিক বাজারে ও অনলাইন পেজে অনেক পাওয়া যায়, যা একসঙ্গে এথনিক ও মডার্ন লুক আনে। টিউনিক টপের সঙ্গে জিন্স বা একটু উঁচু করে টাইটস পরে নিন, যা আপনার কালো হিল জুতোকে ফুটিয়ে তুলবে।

সালওয়ার কামিজকে ভিন্ন লুক দিন
চলতি হালের সঙ্গে মিলিয়ে চলতে রেগুলার সালওয়ার কামিজ বাদ দিয়ে হালকা অম্ব্রে রঙের কুর্তি ও সিগারেট প্যান্ট বানিয়ে নিন। কামিজের মাঝে ফাঁকা রাখতে পারেন, অথবা কামিজে এথনিক কাজ করিয়ে নিতে পারেন ভিন্ন লুক ও শৈলী ফুটিয়ে উঠাতে চাইলে। চকচকে ঝুলানো কানের দুল, ব্যাগ হিসেবে বক্স ক্লাচ ও গোল্ডের জুতো বেছে নিন এর সঙ্গে। কামিজ লম্বা হলে চুল উঁচু করে একটি খোঁপাতে বেঁধে নিন। এখন শর্ট কামিজ বানানোর চল ফিরে আসছে, চাইলে সেটিও বানিয়ে দেখতে পারেন।

খুঁজে বের করুন এথনিক জ্যাকেট
এক রঙের শিফন বা পাতলা কাপড়ের কামিজ/কুর্তি/টিউনিক পরলে উপরে ফুলেল বা রঙিন একটি জ্যাকেট পরে নিন আপনার লুকে লেয়ার আনার জন্য। জামার হাতা বড় হলে স্লিভলেস জ্যাকেটও বানিয়ে নিতে পারেন পছন্দমতো। তবে মনে রাখবেন ভারি কাজের জামা পরলে জ্যাকেট এড়িয়ে চলাই ভালো, নাহলে বেশি চোখে লাগবে ও কাজও ঢেকে যাবে। জ্যাকেটের সঙ্গে হুপ কানের দুল, হালকা কোঁকড়ানো চুল ও পায়ে স্যান্ডেল বেশ মানায়।

- নাজমুন নাহার