রবিবার,২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
হোম / সম্পাদকীয় / নারীর অর্জন ও আমাদের সুষ্ঠু পরিবেশ
০৩/১৬/২০১৬

নারীর অর্জন ও আমাদের সুষ্ঠু পরিবেশ

- তাসমিমা হোসেন

আনাদিল হোসেন। তাঁর সাফল্য ও কর্মপরিধি আমাদের মুগ্ধ করে। বিস্মিত করে। বাংলাদেশের একজন মেয়ে হয়ে তিনি ব্যক্তিগত উদ্যমে যে-পর্যায়ে নিজেকে উন্নীত করেছেন, তা নারীউদ্যোক্তার জন্য দারুণ অনুপ্রেরণার। উদ্যোক্তা হিসেবে এমন কোনো বিষয় নেই, যা নারীর জন্য অধরা হতে পারে। আনাদিল দিল অর্থাৎ হৃদয় দিয়ে সেই অনাস্বাদিত জগতের ঘ্রাণ নিয়েছেন, অর্জন করেছেন বিরল অভিজ্ঞতা।

আমাদের প্রতিভার অভাব নেই। কিন্তু সেই প্রতিভা যতদিন দেশের মাটিতে বসে থাকে, ততদিন বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পূর্ণমাত্রায় বিকশিত হতে পারে না। কেন পারে না? বাংলায় প্রবাদ আছে- গেঁয়ো যোগী ভিখ পায় না। এই প্রবাদ সবচেয়ে বেশি প্রযোজ্য বাংলাদেশের জন্য। আর আরো বেশি প্রযোজ্য নারীদের জন্য। যদিও বাংলাদেশের সরকারের ৫টি শীর্ষপদের সবকটিতে নারীরা রয়েছেন। আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জরিপের ফল বলছে, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কর্মসংস্থান ও ক্ষমতায়নে বাংলাদেশের নারীরা এখন দক্ষিণ এশিয়ার অন্য দেশগুলোর চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। কিন্তু তারপরও বিশ্ব যেভাবে এগিয়ে চলছে, আমরা কি সেই অনুপাতে অগ্রসর হতে পারছি? একজন নারী যথাযথ দায়িত্ব ও সুযোগ পেলে যে অসাধ্য সাধন করতে পারে-তা প্রাথমিকভাবেই বিশ্বাসে আনতে চায় না এদেশের মানুষ। কিন্তু স্বীকৃত যখন আন্তর্জাতিকভাবে আসে, তখন মনে হতে পারে এই মেয়েটি দেশে থাকলে কি এতদূর যেতে পারত?

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নারীদের বিজয়কেতন কোথায় না উড়ছে? অটিজম বিষয়ে জনসচেতনতা সৃষ্টির জন্য সায়মা ওয়াজেদ পুতুল পেয়েছেন বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার ‘অ্যাওয়ার্ড ফর এক্সিলেন্স ইন পাবলিক হেলথ’ পুরস্কার। বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিক ব্রিটেনের লেবার পার্টির ‘ছায়া মন্ত্রিসভা’য় সংস্কৃতি, মিডিয়া ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী। এর আগে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রথম ব্রিটিশ এমপি রোশনারা আলী এমপি নির্বাচিত হয়ে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন ও শিক্ষা ‘ছায়া মন্ত্রী’র দায়িত্ব পালন করেন। টিউলিপ সিদ্দিক ও রোশনারা আলী ছাড়াও এবার আরেক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত প্রার্থী ড. রূপা হক লেবার পার্টি থেকে যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে বিজয় লাভ করেন। অন্যদিকে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নারীরা যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন ক্ষেত্রেও অমূল্য সম্মান বয়ে আনছেন। সম্প্রতি প্রেসিডেন্ট ওবামার ডেপুটি জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা বেন রোডসের উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন রুমানা আহমেদ। এর আগে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ পান বিজ্ঞানী ড. এন নীনা আহমাদ। গতবছর আমেরিকায় নারী সাংবাদিকতায় বিশেষ কৃতিত্ব প্রদর্শনের জন্যে ‘গ্রাসিজ অ্যাওয়ার্ড’ পান তাসমিন মাহফুজ। আমেরিকায় নারী সাংবাদিকতায় এটি হচ্ছে শীর্ষস্থানীয় একটি অ্যাওয়ার্ড।

বিজ্ঞানের এই উৎকর্ষের যুগে নারীর আকাশ অন্ধকার রেখে কোনো রাষ্ট্র টিকে থাকতে পারবে না। এই সত্যকে কোনো পর্দা দিয়ে আড়াল করা হবে সবচেয়ে বড় বোকামি। এখন যদি কর্মযোগ্যতার নিরিখে প্রশ্ন করা করা হয়- তুমি নারী, নাকি পুরুষ? তবে প্রশ্নকর্তারই মানসিক সুস্থতা নিয়েই প্রশ্ন উঠবে। যদিও এমন ‘মানসিকভাবে অসুস্থ’ মানুষ আমাদের দেশে অনেক। সেই সুস্থতার জন্য সৃষ্টি করতেই হবে সুষ্ঠু-স্বাভাবিক পরিবেশ।