শনিবার,১৮ নভেম্বর ২০১৭
হোম / রূপসৌন্দর্য / ঘরোয়া উপায়ে ব্ল্যাকহেডস থেকে মুক্তি
০৯/১২/২০১৭

ঘরোয়া উপায়ে ব্ল্যাকহেডস থেকে মুক্তি

-

সবাই সৌন্দর্যের পূজারি। কেউই চাইবে না তাদের দেখতে দৃষ্টিকটু লাগুক। বিশেষ করে আমাদের মুখ, যা সবার আগে চোখে পড়ে। মুখে বিভিন্ন দাগ, কালচে ভাব কিংবা ব্রণের জন্য দায়ী মূলত ত্বকের ব্ল্যাকহেডস ও ডেড স্কিন সেলস। ত্বক সুন্দর ও প্রাণবন্ত রাখতে তাই নিয়মিত ত্বকের যত্নের পাশাপাশি প্রয়োজন ত্বক থেকে ডেড স্কিন সেলস ও ব্ল্যাকহেডস দূর করা। কারও পক্ষে প্রতিদিন পার্লারে গিয়ে ব্ল্যাকহেডস পরিষ্কার করা সম্ভব না। তাই ঘরোয়া উপায় ত্বকের ব্ল্যাকহেডস পরিষ্কার করতে হবে।

বেকিং সোডা
বেকিং সোডা শুধুমাত্র রান্নার কাজে কিংবা ফ্রিজ পরিষ্কারে কাজে ব্যবহার করা হয় তা নয়। এটির অ্যান্টিসেপ্টিক গুণাবলী ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এটি এক্সফলিয়েট হিসেবে কাজ করে, যা ত্বকের মৃতকোষ পরিষ্কার করে ত্বক কোমল করে। পাশাপাশি ত্বকের পিএইচ নিয়ন্ত্রণ করে, যা অয়েলি ত্বকের জন্য উপকারী। ত্বক শুকনো থাকলে এতে ব্ল্যাকহেডসের পরিমাণও কমে যায়।


দারুচিনি
দারুচিনিতে রয়েছে এক প্রকার অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান যার মাস্ক ত্বকের নানারকম সমস্যা সমাধানের পাশাপাশি ব্ল্যাকহেডস নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। এটি ত্বকের ব্রণের সমস্যাও দূর করে। দারুচিনির বডি মাস্ক ত্বক কোমল করে ও ত্বকের কমপ্লেক্সশন উজ্জ্বল করে তোলে।

মধু
মধু অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল হওয়ার পাশাপাশি অ্যান্টিসেপ্টিকও। মধু ত্বকের জীবাণু ধ্বংস করে ত্বকে ব্ল্যাকহেডস হওয়ার প্রবণতা কমায়। যাদের ব্রণসংক্রান্ত সমস্যা ও এর ফলে সৃষ্ট ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা রয়েছে তারা ত্বকে নিয়মিত মধু ব্যবহার করতে পারেন। মধু ত্বকের টানটান ভাব বজায় রেখে ত্বক করে তোলে সতেজ।

এপ্সম লবণ
এপ্সম লবণ শুধুমাত্র মাংসপেশির ব্যথা কমাতে নয়, পাশাপাশি ত্বকের ব্ল্যাকহেডস দূর করতেও ব্যবহার করা হয়। অন্যান্য উপাদানের মতো এই লবণ কেবল ত্বকের মৃত কোষ ও তেল পরিষ্কার করে না, ত্বকের ব্ল্যাকহেডস পুরোপুরি অপসারণে এই লবণ যথেষ্ট কার্যকরী। এটি ত্বককে ভালোভাবে স্ক্রাব করার পাশাপাশি ত্বকের যাবতীয় ময়লা টেনে বের করে আনে।

ডিমের সাদা অংশ
ত্বকের সৌন্দর্যে ডিমের সাদা অংশ নানা কার্যকরী ভূমিকা পালন করে থাকে। এতে প্রচুর পরিমাণ প্রোটিন রয়েছে যা স্কিনটোনকে স্বাভাবিক রাখে ও ত্বক অসময়ে বুড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। ত্বকের টানটান ভাব বজায় রাখে ও লোমকূপ বন্ধে সাহায্য করে। যাদের ত্বক বেশি অয়েলি তাদের জন্য ডিমের সাদা অংশ বিশেষভাবে উপযোগী। ত্বকের তৈলাক্তভাব দূর করে ব্ল্যাকহেডসের পরিমাণ কমিয়ে আনে ও ত্বক থেকে ব্ল্যাকহেডস অপসারণ করে। ত্বকের ভেতরের ময়লা টেনে বের করে এনে ত্বককে পরিষ্কার রাখতে ডিমের সাদা অংশের জুড়ি নেই।

গ্রিন টি
ত্বকের বন্ধ লোমকূপ খুলতে কিংবা ব্রণ, ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস অপসারণে আমরা কত কসরতই না করি। কিন্তু এই সবগুলো সমস্যার সমাধান করে দিতে পারে গ্রিন টি। গ্রিন টিতে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে। এটি শুধু ত্বকের অয়েলই দূর করে না, পাশাপাশি নানারকম ইরিটেশনের হাত থেকে ত্বককে সুরক্ষিত রাখে। গ্রিন টি ত্বক পরিষ্কার রেখে ত্বকে ব্ল্যাকহেডস তৈরিতে বাধা দেয়।

- মিম রহমান