রবিবার,২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / বার্গারের মজা
০৮/১৭/২০১৭

বার্গারের মজা

-

ইদানিংকালে খাবারদাবারে বার্গারের জনপ্রিয়তা যেন নিত্য বাড়ছে। প্রায় প্রতিটি এলাকাতেই রয়েছে বার্গারের দোকান আর একটু নামকরা দোকানে তো ভীড় যেন লেগেই রয়েছে। জ্যাম ঠেলে, ভীড় পেরিয়ে এত কষ্ট না করে বরং ঘরেই বানিয়ে ফেলুন না নানা স্বাদের মজার বার্গার? রেসিপি দিয়েছেন সালেহা তাবাসসুম আহমেদ।

ছবিঃ তৌহিদ আহমেদ

১। বার্গার বান

উপকরণ
ময়দা- আড়াই কাপ
ইস্ট- আড়াই চা চামচ
বেকিং পাউডার- ১ চা চামচ
ডিম- ২টি
দুধ- ১/৪ কাপ (কুসুম গরম)
চিনি- ১ টেবিল চামচ
ভ্যানিলা এসেন্স- ১ চা চামচ
মাখন- ২ টেবিল চামচ
লবণ- আধা চা চামচ
সিরকা- ২ চা চামচ

প্রণালি
ময়দা ও বেকিং পাউডার একসঙ্গে চেলে নিন। একটি পাত্রে সামান্য গরম পানিতে চিনি ও ইস্ট মিশিয়ে ১০ মিনিট রাখুন। ইস্ট ফুলে উঠলে ডিম বাদে সব উপকরণ একসঙ্গে মিলিয়ে নিন।

ডিম ফেটিয়ে নিন। এবার এটি অল্প অল্প করে উপকরণগুলোর সঙ্গে মিলিয়ে ময়ান করুন। বেশ কিছুক্ষণ ময়ান করে খামিটি একটি বড় পাত্রে ঢেকে এক ঘণ্টা রাখুন।

ময়ান দিয়ে ছোট ছোট বল বানিয়ে বেকিং ট্রেতে নির্দিষ্ট দূরত্বে রেখে ফুলতে দিন। আধা ঘণ্টা পর এর ওপর বাকি ডিমের সঙ্গে অল্প দুধ মিশিয়ে ব্রাশ করে একটু তিল ছিটিয়ে ১৭০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপে ১৫-২০ মিনিট বেক করুন।

ব্রেডে রং ধরলেই ওভেন বন্ধ করে নামিয়ে তা কিছুক্ষণ মোটা কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখুন। বার্গার বান তৈরি।

২। বার্গার প্যাটি

উপকরণ
গরুর মাংস- আধা কেজি
কাঁচামরিচকুচি- আধা টেবিল চামচের একটু বেশি
আদা বাটা- ১ চা চামচ
মরিচগুঁড়া- ১ চা চামচ
পুদিনাপাতা- ৪-৫টা
গোলমরিচ ছেঁচা- ২-৩টা
পেঁয়াজ কুচি- ১ কাপ
ডিম- ১টা
রসুন বাটা- ১ চা চামচ
ধনেপাতা- ২ টেবিল চামচ
লবণ পরিমাণমতো
তেল- ২ টেবিল চামচ
ময়দা বা ব্রেডক্রাম্ব- ২ টেবিল চামচ

প্রণালি
প্রথমে মাংস কিমা করে ওপরের সব উপকরণ একসঙ্গে মেখে কমপক্ষে ১৫ মিনিট রেখে দিতে হবে। এবার কিমা ৬ ভাগ করে প্রত্যেক ভাগ নিয়ে বড় চ্যাপ্টা করে প্যাটি তৈরি করতে হবে।

হাতে চেপে চেপে বার্গার প্যাটি-র আকারে গড়িয়ে নিন।

এবার ফ্রাইপ্যানে ছাঁকা তেলে ফ্রাই করতে হবে। ইচ্ছা করলে ওভেনে ১৮০ ডিগ্রিতে ১৫ মিনিট বেক করে নিতে পারেন। ইচ্ছে হলে গ্রিলও করতে পারেন।

এবার বার্গার বান-এর ভেতরে দিয়ে তৈরি করুন পছন্দের বার্গার।

৩। ট্র্যাডিশনাল বিফ বার্গার

উপকরণ
গরুর মাংস কিমা- আধা কেজি
তেল- ডুবো করে ভাজার জন্য
গোলমরিচগুঁড়ো- ১ চা চামচ
সরিষে গুঁড়ো- ১ চা চামচ
ওয়েস্টার সস- ২ চা চামচ
লবণ- স্বাদ অনুযায়ী
ময়দা- ২ চা চামচ
ডিম- ১টি
কর্নফ্লাওয়ার- ২ চা চামচ
দুধ, বেকিং পাউডার ও কর্নফ্লেক্স ও ব্রেডক্রাম্ব
বার্গার বান

প্রণালি
প্রথমে মাংসে গোলমরিচ, সর্ষে গুঁড়ো, সস ও লবণ দিয়ে মেখে ২ ঘণ্টা মেরিনেট করুন। এবার ময়দা, ডিম, কর্নফ্লাওয়ার, লবণ এবং সামান্য বেকিং পাউডার পানি এবং দুধ দিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন।

মাংসে মিশ্রণটি দিয়ে প্রথমে কর্নফ্লেক্স তারপর ব্রেডক্রাম্ব-এ মাখিয়ে নিয়ে ডুবোতেলে অল্প আঁচে বাদামি করে ভেজে তুলুন।

এবার বার্গার বান একটু গ্রিল করে মাঝখান দিয়ে কেটে নিন। নিচের অংশে মেয়নিজ মাখিয়ে এর ওপরে প্যাটি দিন।

চাইলে ভেতরে দিতে পারেন চিজ স্লাইস, টমেটো ও পেঁয়াজ। পরিবেশন করুন ট্র্যাডিশনাল বিফ বার্গার!

৪। ক্রিসপি চিকেন বার্গার

উপকরণ
মুরগির বুকের মাংস- আধ কেজি
তেল- ২ কাপ
গোলমরিচের গুঁড়ো- ১ চা চামচ
সরিষা গুঁড়ো- ১ চা চামচ
ওয়েস্টার সস- ২ চা চামচ
লবণ- স্বাদ অনুযায়ী
ময়দা- ২ চা চামচ
ডিম- ১টি
কর্ন ফ্লাওয়ার- ২ চা চামচ
বেকিং পাওডার- সামান্য
দুধ- অল্প
কর্নফ্লেক্স ও ব্রেড ক্রাম্ব
বার্গার বান
লেটুস পাতা, টমেটো, চিজ, টমেটো সস এবং মেয়নিজ

প্রণালি
প্রথমে মুরগির মাংসে গোলমরিচ, সর্ষে গুঁড়ো, সস এবং লবণ দিয়ে মেখে ২ ঘণ্টা মেরিনেট করে রেখে দিন।

এবার ময়দা, ডিম, কর্নফ্লাওয়ার, লবণ এবং সামান্য বেকিং পাউডারে পানি এবং দুধ দিয়ে ব্যাটার তৈরি করুন।

মাংসের টুকরোটি ব্যাটারে ডুবিয়ে, কর্নফ্লেক্স ও ব্রেডক্রাম্বে গড়িয়ে ডুবো তেলে ক্রি¯িপ করে ভেজে তুলুন।

এবার বার্গার বান গরম করে মাঝখান দিয়ে কেটে নিন। নিচের অংশে মেয়নিজ ও সস মেখে উপরে লেটুস ও ফ্রাইড চিকেন, চিজ, আবার লেটুসপাতা এবং টমেটো রাখুন। এবার ওপরের রুটির টুকরোয় মেয়নিজ মাখিয়ে এর ওপরে দিয়ে দিন। তৈরি হয়ে গেল ক্রিসপি চিকেন বার্গার!

৫। ভেজ বার্গার

উপকরণ
আলু সিদ্ধ- ২টি (বড়)
গাজর টুকরো করে সিদ্ধ- ১টি
পেঁয়াজকুচি- ১টি
আদাকুচি- ১ চা চামচ
রসুনকুচি- ১ চা চামচ
টমেটোকুচি- ১টি
ক্যাপসিকাম কুচি- ২ টেবিল চামচ
ধনেপাতাকুচি- ১ টেবিল চামচ
কাঁচামরিচকুচি- ১ চা চামচ
লবণ- স্বাদমতো
পনির- স্লাইস ৩ টেবিল চামচ
মাখন/মেয়নিজ- ১ টেবিল চামচ
লেটুস, পেঁয়াজ রিং, টমেটো গোল করে কাটা- প্রয়োজনমতো
তেল- প্রয়োজনমতো
বার্গার বান

প্রণালি
প্যানে অল্প তেল দিয়ে পেঁয়াজকুচি সামান্য ভেজে নিন। এর সঙ্গে আদা, রসুনকুচি, টমেটোকুচি, ক্যাপসিকামকুচি, ধনেপাতাকুচি, কাঁচামরিচকুচি ও লবণ দিয়ে কিছু সময় ভেজে নামিয়ে ফেলুন।

আলু সিদ্ধ করে খোসা ফেলে ভালো করে চটকে নিন। এবার আলু সিদ্ধের সঙ্গে গাজর, পনির ও আগে থেকে ভেজে রাখা মিশ্রণ দিয়ে খুব ভালো করে মেখে নিন।

মাখানো হয়ে গেলে এই মিশ্রণ থেকে ২টি বার্গারের প্যাটি তৈরি করে নিন। তাওয়ায় সামান্য তেল দিয়ে বার্গারের প্যাটি দুটি বাদামি করে ভেজে নিন ।

এবার বার্গারের রুটি মাঝখান থেকে কেটে নিয়ে তাওয়ায় একটু সেঁকে নিন। বার্গারের রুটির এক পিঠে মাখন লাগিয়ে প্রথমে লেটুস রাখুন। তার উপরে একে একে পেঁয়াজ রিং ও টমেটো রিং বসিয়ে একটা প্যাটি সাজিয়ে দিন। আরও একবার লেটুস দিয়ে রুটির বাকি অংশ বসিয়ে দিন। চিজ স্লাইস দিন।

৬। ডিম বার্গার

উপকরণ
ডিম - ২টি
লেটুস- ২টি
মরিচ কুচি- ১ চা চামচ
মরিচ ফ্লেকস- আধা চা চামচ
টমেটো- অর্ধেকটা স্লাইস
দই- ২ চা চামচ
সরিষার সস- ১ চা চামচ
লবণ- স্বাদমতো
বার্গারের বান

প্রণালি
ডিম ২টো পোচ করে নিন। ইচ্ছা হলে ডিম সিদ্ধ করে স্লাইস করেও নিতে পারেন।

বার্গার বানের দুইদিকে লেটুস পাতা দিন। ২ স্লাইস টমেটোও একইভাবে দিন। ডিম দিয়ে দই ও সরিষা সস ছড়িয়ে দিন।

একটির উপর আরেকটি বান দিয়ে সসের সঙ্গে পরিবেশন করুন মজাদার ডিম বার্গার।

৭। টুনা বার্গার

উপকরণ
টুনা ফিশ- ১টিন
কাঁচামরিচ কুচি - ১/৪ টেবিল চামচ
আদা বাটা- ১/৪ টেবিল চামচ
রসুন বাটা- ১/৪ টেবিল চামচ
পেঁয়াজ কুচি- ১/৪ কাপ
ধনেপাতা- ২ টেবিল চামচ
লেবুর রস- ১ টেবিল চামচ
ডিম- ১টি
লবণ স্বাদমতো
তেল পরিমাণমতো
বার্গার বান

প্রণালি
টুনা ফিশ টিন থেকে বের করে চেপে চেপে তেল আর পানি ঝরিয়ে নিন। সব উপকরন এর সাথে মাছ মিশান। বার্গার প্যাটির আকারে গড়ে নিন।

ননস্টিক প্যানে তেল গরম করুন। বার্গারগুলো তেলে ভাজুন গোল্ডেন ব্রাউন রং হওয়া পর্যন্ত। এরপর দুপাশ ভালো করে ভেজে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

এবার বার্গার বান-এ বাটার লাগিয়ে নিন। লেটুস, টমেটোর টুকরো সাজান। তার উপর টুনা স্টেক দিন।

এবার স্বাদমত কেচাপ, মেয়নেজ দিয়ে বানিয়ে ফেলুন টুনা বার্গার

৮। চিজি জালি কাবাব বার্গার

উপকরণ
গরুর কিমা- আধা কেজি
পাউরুটি- ৩ পিস
বিস্কুটের গুঁড়ো- ১/৪ কাপ
কাঁচামরিচ বাটা- ২টি
পুদিনাপাতা বাটা- ২ টেবিল চামচ
পুদিনাপাতা কুচি- ১/৪ কাপ
জিরা বাটা- ১ চা চামচ
আদা বাটা- ১ টেবিল চামচ
রসুন বাটা- ১ টেবিল চামচ
লাল মরিচ গুঁড়া- ১ চা চামচ
গোল মরিচের গুঁড়া- ১ চা চামচ
পেঁয়াজ বেরেস্তা- ১/২ কাপ
ধনেপাতা কুচি- ১/৪ কাপ
টমেটো সস- ২ টেবিল চামচ
চিলি সস- ১ টেবিল চামচ
সয়া সস- ১ টেবিল চামচ
ডিম ফেটানো- ২টি
লবণ- ১ চা চামচ
গরম মশলা বাটা- (এলাচ ৩+দারুচিনি ২+জায়ফল অর্ধেক+ জয়ত্রি ১ চা চামচ)
বার্গার বান
চেডার চিজ
মোজ্জারেলা চিজ
মেয়নেজ, কেচাপ, টমেটো, লেটুস সাজানোর জন্য
ডিম- ৪টি
বিস্কুটের গুঁড়ো করা- ১কাপ
সয়াবিন তেল- ১/২ লিটার বা প্রয়োজনমতো

প্রণালি
পাউরুটি পানিতে ভিজিয়ে হাত দিয়ে চেপে পানি নিংড়ে নিতে হবে। ডিম ভালো করে ফেটিয়ে সব উপকরণ একসঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে হাত দিয়ে করে বার্গার প্যাটির শেপ-এ বানিয়ে নিন।

এবার কাবাব বিস্কুটের গুঁড়ায় মাখিয়ে ফ্রিজে ১৫ মিনিট রাখতে হবে।

কড়াইতে তেল গরম করে ডিমে চুবিয়ে তেলে দিয়ে দিতে হবে। আঙুলের সাহায্যে উপরে ডিম ছিটিয়ে দিন যাতে করে জালি হবে।

অন্যপাশ উল্টিয়ে আবার উপরে ডিম ছিটিয়ে দিন। বাদামি করে ভেজে তুলুন।

এবার বার্গার বানে বাটার লাগিয়ে নিন। এক টুকরো চেডার চিজ রাখুন। তার উপর দিন জালি কাবাব। উপরে গ্রেট করে মোজ্জারেলা চিজ দিন।

গ্রিল প্যানে বার্গারটা একটু গরম করে নিন। যেন চিজগুলো একটু মেল্ট করে।

এবার লেটুস, টমেটোর টুকরো সাজান। স্বাদমতো কেচাপ, মেয়নেজ দিয়ে বানিয়ে ফেলুন জালি কাবাব বার্গার।

৯। সুইট পটেটো ফ্রাইস

উপকরণ
মিষ্টি আলু (বড়)- ২টি, ছেলা এবং এক ইঞ্চি বাই তিন ইঞ্চি করে কাটা
সয়াবিন তেল- ৩ টেবিল চামচ
লবণ- আধা চা চামচ
গোল মরিচের গুঁড়া- আধা চা চামচ
প্যাপরিকা - ১/৪ চা চামচ
রসুনবাটা- ১/৪ চা চামচ

প্রণালি
ওভেনকে ৪২৫ ডিগ্রি ফারেনহাইটে গরম করুন। একটি বড় বাটিতে মিষ্টি আলু এবং সয়াবিন তেল মাখান।

লবণ, গোলমরিচ এবং প্যাপরিকা ছিটিয়ে দিন। বেকিং ট্রে-এর উপরে তেল-লবণ মাখানো আলু রেখে ১৮-২৪ মিনিট বেক করুন । মাঝে মাঝে উল্টিয়ে দিন। পরিবেশনের আগে ৫ মিনিট ঠান্ডা হতে দিন।

এই ফ্রাইস ইচ্ছা হলে ডুবোতেলে ভেজেও করতে পারেন। তবে বেকড ফ্রাইস অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর।

১০। পটেটো ওয়েজেস

উপকরণ
আলু- ৪ টা
গোলমরিচ গুঁড়ো- ১ টেবিল চামচ
লালমরিচ গুঁড়ো- আধা টেবিল চামচ
লবণ

প্রণালি
আলু মোটা মোটা করে কেটে নিন। খোসা ফেলবেন না।

এরপর কাটা টুকরোগুলো লবণ পানিতে দু’ঘণ্টার মতো ভিজিয়ে রাখুন। আলু পানি থেকে তুলে পানি শুকিয়ে নিন।

শুকনো আলুতে এবার লবণ, লালমরিচ গুঁড়ো মিশিয়ে দশ মিনিট রেখে দিন এবার ডুবোতেলে কম আগুনে ভেজে গরম গরম পরিবেশন করুন।

যারা ওভেনে করতে চান তারা একই ভাবে পানি ঝরিয়ে ১ টেবিল চামচ তেল মাখিয়ে নিন আলুতে। ওভেন ২০০ডিগ্রি/৪০০ডিগ্রিতে প্রিহিট করুন ১৫ মিনিট।

তারপর বেকিং ট্রেতে আলু ছড়িয়ে ৩৫/৪০ মিনিট বেক করুন যতক্ষণ না আলু সোনালি রং হচ্ছে।