শনিবার,১৮ নভেম্বর ২০১৭
হোম / ফ্যাশন / বর্ষায় শাড়িতে নীলাঞ্জনা
০৮/১৭/২০১৭

বর্ষায় শাড়িতে নীলাঞ্জনা

-

নীল শাড়ির সঙ্গে বৃষ্টির কোথায় যেন রয়েছে এক অদ্ভুত যোগাযোগ। মেঘলা আকাশ, ঝুম বৃষ্টি আর এমন দিনে পরনে নীল শাড়ি -- কল্পনায় যেন এক ভালোবাসার সৃষ্টি করে। কিন্তু বাস্তবে এই বৃষ্টির দিনগুলোতে শাড়ি পরার কথা অনেকে চিন্তাও করেন না। তবে কিছু ক্ষেত্রে শাড়ি তো পরতেই হয় অথবা শখ পূরণের জন্য হলেও শাড়ি বেছে নেওয়া যেতেই পারে।

সুন্দরভাবে আয়রন করা মাড় দেওয়া সুতি শাড়ি এই মৌসুমের জন্য একদমই উপযোগী নয়। কারণ সুতি শাড়ি ভিজে গেলে সহজে শুকাবে না এবং পরে তা পরিষ্কার করতেও বেশ ঝামেলা পোহাতে হয়। এই ক্ষেত্রে বেছে নিন সফ্ট সিল্ক, জর্জেট, টিস্যু ইত্যাদি শাড়িগুলো। এই ধরনের শাড়িতে পানি জমে থাকে না এবং ভিজলেও হালকা বাতাসেই শুকিয়ে যায়। ময়লা হলে ধুয়ে ফেলাও বেশ সহজ। সব মিলিয়ে বর্ষায় জর্জেট বা শিফন শাড়িগুলো বেশি উপযোগী। কাপড়ের ধরনের পাশাপাশি আরও কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে হবে শাড়ি বাছাইয়ের ক্ষেত্রে।

রং বাছাই
বর্ষায় শাড়ির ক্ষেত্রে বেছে নিন গাঢ় নীল, লাল, কমলা, বেগুনি, মেরুন ইত্যাদি রং। মোটকথা এই আবহাওয়ায় এড়িয়ে চলুন হালকা রং। গাঢ় রংয়ের পোশাক এই আবহাওয়ার জন্য উপযুক্ত। কারণ হালকা রংয়ের পোশাকে হালকা একটু কাদা বা পানির ঝাপটাও চোখে লাগবে, যা গাঢ় রংয়ের ক্ষেত্রে এড়ানো যাবে।

সঠিক স্যান্ডেল বাছাই
হিল ছাড়া শাড়ি বেশ বেমানান, কিন্তু এই মৌসুমে উঁচু জুতা মোটেও উপযোগী নয়। তাই ফ্ল্যাট স্যান্ডেল পরাই ভালো। তবে একদম ফ্ল্যাট স্যান্ডেল পরতে না চাইলে প্লাটফর্ম হিল বেছে নেওয়া যেতে পারে। অফিসে শাড়ি পরার ক্ষেত্রে একজোড়া হিল আপনার ড্রয়ারে রেখে দিতে পারেন, অফিসে গিয়ে স্যান্ডেল বদলে নিন।

হালকা মেকআপ
ওয়াটারপ্রুফ মেকআপও বৃষ্টির ঝাপটায় কিছুটা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই এই মৌসুমে সাজগোজ করুন হালকা। চোখের নিচে গাঢ় কাজল ব্যবহার না করাই ভালো। মাস্কারা ব্যবহার করুন ওয়াটারপ্রুফ। হালকা ফাউন্ডেশন বা বিবি ক্রিম লাগাতে পারেন এবং অবশ্যই পাউডারের সাহায্যে মেকআপ সেট করে নিন। আর বর্ষায় আকাশ মেঘলা দেখে সানস্ক্রিন ব্যবহারের চিন্তা বাদ দিলে চলবে না। ঘর থেকে বের হওয়ার আগে অবশ্যই সানস্ক্রিন লাগিয়ে নিন।
সব শেষে এবং অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো সঠিকভাবে শাড়ি পরা। খেয়াল রাখুন শাড়ি যেন বেশি নিচু না হয়ে যায়। কুচি ভালোভাবে গুঁজে পিন দিয়ে আটকে নিন। আঁচলও ভালোভাবে ভাঁজ করে পিন করে নিন। এতে বৃষ্টিতে শাড়ি সামলাতে বেগ পেতে হবে না।

শাড়ির সঙ্গে ছোট বা মাঝারি আকারের ব্যাগ নিন। ঘাড়ে ঝোলানোর বা লম্বা বেল্টওয়ালা ব্যাগ ব্যবহার করুন। এতে হাতে ব্যাগ ধরে রাখতে হবে না। অফিসে যাওয়ার ক্ষেত্রে গয়না বেছে নিন হালকা ধরনের, তবে অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে নিজের পছন্দমতো অলঙ্কার পরা যেতে পারে।

বর্ষায় আলমারিতে পরে থাকা শাড়ি স্যাঁতসেঁতে হয়ে যেতে পারে। তাই সময় সুযোগ বুঝে সেগুলো বের করে বাতাসে ছড়িয়ে দিন। তাছাড়া শাড়ি পরার পর ঘরে ফিরে তা ভালোভাবে ধুয়ে বাতাসে শুকিয়ে তারপর তুলে রাখুন। এই আবহাওয়ায় কাপড়ের প্রতিএকটু বেশীই যত্নশীল হতে হয়।

সামিরা আহসান
ছবিঃ সাইমুম সাঈদ