শুক্রবার,২০ অক্টোবর ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / ঈদ রেসিপি - রীপা হক
০৬/২২/২০১৭

ঈদ রেসিপি - রীপা হক

-

১. ফ্রুটস রাইতা

উপকরণ
দই- ২ কাপ
আনারস - ১ কাপ, ছোট কিউব করে কাটা
বেদানার দানা- আধা কাপ
মরিচ গুঁড়া বা ফ্লেইক- ১/৮ চা চামচ
ভাজা জিরার গুড়া- ১ চা চামচ
চিনি-২ টেবিল চামচ বা স্বাদ অনুয়ায়ী
বিট লবণ- ১ চা চামচ বা স্বাদমতো
ধনিয়া/ পুদিনা পাতা কুচি সামান্য
সাজানোর জন্য
কয়েকটা ধনিয়া পাতা
বেদানার দানা, আনারস সামান্য

প্রণালি
একটা বাটিতে টকদই নিয়ে ফেটে নিতে হবে। সব মশলা, চিনি ও লবণ দিয়ে ভালো করে মিশাতে হবে।
এবার আনারসের টুকরা ও বেদানার দানা দিয়ে মিশিয়ে রেফ্রিজারেটরে রেখে ঠান্ডা করে নিতে হবে।
রেফ্রিজারেটর থেকে বের করে ধনিয়া/ পুদিনা পাতা কুচি দিয়ে মিশিয়ে পরিবেশনের পাত্রে ঢেলে উপরে কিছু আনারস কুচি, বেদানার দানা ও ধনিয়া/ পুদিনা পাতা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন দারুন মজাদার ফ্রুটস রাইতা।

(২) কেবাব পোলো

কাবাব- উপকরণ
মাংসের কিমা- আধা কেজি
পেঁয়াজ- ১টা (মধ্যম) (দেশি হলে ৪/৫ টা)
টমেটো- ১টা
ধনিয়া পাতা- ১ মুঠো
কাঁচামরিচ- ২/৩টা
ডিম- ১টা
রসুন বাটা- ১ চা চামচ
সুমেক- ১ টেবিল চা (ইচ্ছানুযায়ী)
হলুদ- ১/২ চা চামচ
ব্রেডক্রাম্ব- ১/৪ কাপ
গোলমরিচ গুঁড়া- ১ চা চামচ
জিরা গুঁড়া- আধা চা চামচ
ধনিয়া গুঁড়া- আধা চা চামচ
লবণ - আধা চা চামচ বা স্বাদমতো
টমেটো- ৮টা
ক্যাপসিকাম- ৮-১০টা

প্রণালি
পেঁয়াজ গ্রেটারে গ্রেট করে রস ফেলে দিতে হবে। টমেটো ছোট কিউব করে কেটে রস ফেলে দিতে হবে। কাঁচা মরিচ ও ধনিয়াপাতা ব্লেড করে নিতে হবে।
একটা বোলে মাংসের কিমা নিয়ে তাতে বাকি সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে মেখে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দুই ঘণ্টা রেফ্রিজারেটরে রাখতে হবে।
এবার কাবাবের মতো করে বানায়ে অল্প তেলে বাদামি করে ভেজে নিতে হবে।
টমেটো ও ক্যাপসিকাম হাল্ক করে ভেজে বা গ্রিল করে নিতে হবে।

পোলাও- উপকরণ
বসমতি চাল- ৩ কাপ
টকদই- ২ টেবিল চামচ
চিনি- ১ চিমটি
তেল- ৫ টেবিল চামচ
লবণ সামান্য
জাফরান সামান্য

প্রণালি
চাল খুব ভালো করে ধুয়ে নিয়ে সামান্য লবণ পানিতে ডুবিয়ে ভিজিয়ে রাখতে হবে কয়েক ঘণ্টা।
ছোট একটা বাটিতে চিনি, জাফরান ও ২ টেবিল চা গরম পানি দিয়ে গলিয়ে নিতে হবে। সামান্য ঠান্ডা হলে তাতে ইয়োগার্ট দিয়ে মিশাতে হবে।
একটা পাতিলে ৯ কাপ পানি দিয়ে চুলায় দিয়ে ফুটে উঠলে লবণ ও চাল দিয়ে ফুটে উঠলে কয়েকবার নেড়ে ৮০- ৯০ ভাগ সিদ্ধ করে নিতে হবে। ঝাঝরিতে চাল ঢেলে পানি দিয়ে ধুয়ে পানি ঝরাতে হবে।
ইয়োগার্ট মিশ্রণ ৩ টেবিল চামচ ভাত দিয়ে মিশায়ে নিতে হবে। এবার পাতিলে ১ টেবিল চা পানি ও ৩ টেবিল চামচ তেল দিয়ে মিশিয়ে তার উপর ইয়োগার্ট এর মিশ্রণ ও পরে চাল দিয়ে পিরামিডের মতো করে উঁচু করে নিয়ে চামচের হাতল দিয়ে কয়েকটা ফাঁক বা গর্ত দিতে হবে যেন নিচ থেকে বাস্প হয়ে উপর উঠতে পারে।
৭-৮ মিনিট রান্না করার পর বাষ্প উঠে আসলে ২ টেবিল চামচ তেল ও ১/৪ কাপ পানি দিয়ে চালের উপর দিয়ে পাতিলের ঢাকনা একটা কাপড় দিয়ে মুড়িয়ে পাতিল ঢেকে অল্প আঁচে ৫০ মিনিট রান্না করতে হবে।
এবার পরিবেশনের পাত্রে পোলাও দিয়ে উপরে কেবাব ও সবজি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন মজার কেবাব পোলো।

(৩) কোফতা

উপকরণ
মাংসের কিমা- আধা কেজি
পেঁয়াজ - আধা কাপ
ধনিয়া পাতা - ১ মুঠো
কাঁচামরিচ - ২টা
আস্ত জিরা - আধা চা চামচ
আস্ত ধনিয়া - দেড় টেবিল চামচ
শুকনা মরিচ -২টা
ডিম - ১টা
টমেটো- ১টা
রসুন বাটা- আধা চা চামচ
আদা বাটা- ২ টেবিল চামচ
ব্রেডক্রাম্ব - ১/৪ কাপ
গোলমরিচ গুঁড়া - ১ চা চামচ
লবণ- আধা চা চামচ বা স্বাদমতো
চিনি সামান্য

প্রণালি
ফুড প্রসেসরে কাঁচা মরিচ, ধনিয়া পাতা, শুকনা মরিচ, আস্ত জিরা ধনিয়া দিয়ে আধা ভাঙা করে নিতে হবে। বা পাটায় আধা বাটা করে নিতে হবে। অর্ধেক কিমাও ফুড প্রসেসরে দিয়ে পেস্ট করে নিতে হবে।
টমেটো ছোট কিউব করে কেটে রস ফেলে দিতে হবে।
একটা বোলে মাংসের কিমা নিয়ে তাতে বাকি সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে মেখে নিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দুই ঘণ্টা রেফ্রিজারেটরে রাখতে হবে।
এবার গোল গোল করে কোপ্তা বানায়ে অল্প তেলে বাদামি করে ভেজে নিতে হবে।
সব ভাজা হলে সালাদ ও পিঠা ব্রেড/পরোটা/পোলাও’র সঙ্গে পরিবেশন করুন মজার মাংসের কোফতা।

(৪) চিকেন রোস্ট

উপকরণ
মুরগি- ১টা
পেঁয়াজ বাটা- ২ টেবিল চামচ
পেঁয়াজ কুচি- ২/৩ কাপ
আদা বাটা- ২ টেবিল চামচ
রসুন বাটা- ১ টেবিল চামচ
জিরা গুঁড়া- আধা টেবিল চামচ
ধনে গুঁড়া- আধা টেবিল চামচ
পোস্ত বাটা- আধা চামচ চামচ
লবণ পরিমাণমতো
তেল- ১/৩ কাপ
লবঙ্গ, এলাচ , দারুচিনি- ২ টা করে
কালো এলাচ- অর্ধেকটা
মরিচ গুঁড়া- ১ চা চামচ
হলুদ- ১ চা চামচ
ভিনিগার- ১/৩ কাপ
কাঁচামরিচ- ২টা
টমেটো পিউরি-১/৩ কাপ বা টমেটো-১ টা
আলু বোখারা- ৩-৪ টা (ইচ্ছানুযায়ী)
চিনি- ১ চামচ

প্রণালি
প্রথমে মুরগির গলা কেটে নিয়ে নিতে হবে। এবার মুরগির গায়ে ছুরি দিয়ে কয়েকটা আড়াআড়ি করে গভীর করে দাগ দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। এবার পা দুটো সুতা দিয়ে বেঁধে দিতে হবে। এবার মুরগিতে লবণ, ভিনিগার দিয়ে কাঁটা চামচ সামান্য দিয়ে কেচে নিয়ে আধা ঘণ্টা রেখে দিতে হবে। মুরগি ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিতে হবে।
মুরগি মরিচ ও সামান্য লবণ মেখে নিতে হবে। একটা ফ্রাইপ্যানে তেল গরম করে তাতে পেঁয়াজ কুচি দিয়ে সামান্য ভেজে বাকি মশল্লা দিতে হবে। সামান্য পানি দিয়ে ভালো করে কষিয়ে তেল উপরে উঠে আসলে নামিয়ে নিতে হবে। ঠান্ডা হলে মুরগির গায়ে ভালো করে মেখে নিতে হবে।
এবার বেকিং ট্রেতে বা রোস্টিং প্যান মশলা দিয়ে তার উপরে বুকের অংশ উপরের দিকে দিয়ে মুরগি দিতে হবে। প্রি-হিটেড ওভেনে ১৮০ ডিগ্রিতে ৪৫ মিনিট রোস্ট/বেইক করতে হবে। হয়ে গেলে চারপাশ থেকে যে মশলা থাকবে তা মুরগি গায়ে নিতে হবে।
এবার পরিবেশনের পাত্রে নিয়ে তাতে সালাদ সহ পরিবেশন করুন মজার স্পাইসি রোস্ট চিকেন।

(৫) স্ট্রবেরি বাভারোস

উপকরণ
দুধ- ২০০ মিলি
ফ্রেশ ক্রিম- ২০০ মিলি
স্ট্রবেরি- ২০০ গ্রাম
চিনি- ১০০ গ্রাম বা স্বাদমতো
জেলাটিন- ১০ গ্রাম
পানি- ১০০ মিলি

স্ট্রবেরি সস-
স্ট্রবেরি- ৭৫ গ্রাম
চিনি- ১৫ গ্রাম
লেবুর রস- সামান্য
স্পঞ্জকেক- ১ স্লাইস বা পাউন্ড কেক - কয়েক স্লাইস
স্ট্রবেরি- সাজানোর জন্য

প্রণালি
পানিতে জেলাটিন দিয়ে ভিজিয়ে রাখতে হবে। জমে গেলে গরম পানির উপর জেলাটিন রাখা বাটি বসায়ে গলায়ে নিতে হবে।
বেøন্ডারে স্ট্রবেরি, চিনি, দুধ, ফ্রেশ ক্রিম দিয়ে ভালোভাবে বেøন্ড করে নিতে হবে। এবার গলানো জেলাটিন দিয়ে মিশিয়ে নিতে হবে।
কেকের বাটি ধুয়ে নিচে কেক পাতলা স্লাইস করে কেটে বিছিয়ে তাতে স্ট্রবেরির মিশ্রণটি ঢেলে রেফ্রিজারেটরে রেখে জমাতে হবে।
এবার বেøন্ডারে সসের স্ট্রবেরি, চিনি, লেবুর রস দিয়ে বেøন্ড করে সস বানাতে হবে।
বাভারোস জমে গেলে কেকের বাটি থেকে ঢেলে বাভারোস-এর চারদিকে স্ট্রবেরি স্লাইস করে লাগিয়ে উপরে ও স্ট্রবেরি স্লাইস বসিয়ে ডেকোরেশন করতে হবে।
তারপর চামচ দিয়ে স্ট্রবেরি সস দিয়ে পরিবেশন করুন দারুণ মজার স্ট্রবেরি বাভারোস।

(৬) পারসিয়ান হালুয়া

উপকরণ
ময়দা- ৩ কাপ
ঘি- ৩ কাপ
চিনি- ৩ কাপের চেয়ে সামান্য কম বা স্বাদ অনুয়ায়ী
পানি- ৩ কাপ
গোলাপ জল সামান্য
স্যাফরন সামান্য
বাদাম, দারুচিনি, এলাচ

প্রণালি
একটি পাত্রে পানি নিয়ে বাদাম, ঘি ও ময়দা ছাড়া সব উপকরণ দিয়ে মাঝারি আঁচে জ্বালে বসাতে হবে। চিনি গলে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে নিতে হবে।
অন্য চুলায় পাত্রে ঘি নিয়ে তাতে ময়দা দিয়ে অল্প মধ্যম আঁচে ভাজতে ধৈর্য্য ধরে ভাজতে হবে। ময়দার রং বাদামি আকার ধারণ করলে তাতে চিনির পানি বা সিরা ঢেলে দ্রুত নাড়তে হবে। হালুয়া পাত্রের গায়ে থেকে আলাদা হয়ে এলে নামিয়ে নিতে হবে।
এবার আপনার পছন্দমতো পাত্রে বা পরিবেশনের পাত্রে ঢেলে উপরে বাদাম কুচি, ড্রাই ফ্রুট বা নারিকেল গুঁড়া দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন দারুণ পারসিয়ান হালুয়া।