বুধবার,২৬ Jul ২০১৭
হোম / খাবার-দাবার / ঐতিহ্যের ঢাকাই মিষ্টি
০৬/২২/২০১৭

ঐতিহ্যের ঢাকাই মিষ্টি

-

ঢাকাবাসীর সামাজিক অনুষ্ঠান বিশেষ করে যে কোনো শুভ কাজ মিষ্টি ছাড়া সম্পন্ন হয় না। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে মিষ্টি সমানভাবে প্রিয়। ইতিহাস বলে ভারতবর্ষের সবচেয়ে প্রাচীন মিষ্টি হচ্ছে মতিচূরের লাড্ডু, যা প্রায় দুই হাজার বছরের পুরোনো। সে হিসেবে ঢাকার মিষ্টান্নের ইতিহাস খুব প্রাচীন নয়। আমাদের অতি প্রিয় আধুনিক সন্দেশ-রসগোল্লার বয়স মাত্র দুই-আড়াইশ’ বছর। আরবীয়-পারস্য ঘরানায় প্রভাবিত, মোঘল আমলে এখানে আসা বিভিন্ন আমির আর সৌখিনদের অনেক মিষ্টি, স্থানীয়দের মাঝে আজও বিশেষ জনপ্রিয়। যার মধ্যে রয়েছে বরফি, শাহী টুকরা, জিলাপি, মোতানজান, ক্ষীর, দরবেশ ইত্যাদি ছাড়াও নানারকম হালুয়া।

বুড়িগঙ্গার তীরে গড়ে উঠা ঐতিহ্যবাহী পুরান ঢাকা দেশের প্রধান ব্যবসায়িক কেন্দ্র বলে এখানে আগে থেকেই রয়েছে নানা জনপ্রিয় মিষ্টির ঠিকানা। নিউমার্কেট, চকবাজার, সুত্রাপুর, ইসলামপুর, বংশাল, গেন্ডারিয়াসহ নানা স্থানে রয়েছে জনপ্রিয় মিষ্টির দোকান, যা বছর জুড়ে নানা সামাজিক অনুষ্ঠান, ধর্মীয় উৎসব ছাড়াও দৈনন্দিন কাজে মিষ্টি জোগান দিয়ে থাকে। ঐতিহ্যের পুরান ঢাকায় মিষ্টির জনপ্রিয় কিছু ঠিকানায় ঘুরে আসা যাক।

আলাউদ্দিন সুইটমিট
পুরান ঢাকার ব্যবসায়ের প্রাণকেন্দ্র চকবাজারে গেলেই শাহী মসজিদের পাশে চোখে পড়বে আলাউদ্দিন সুইটমিটের জনপ্রিয় দোকানটি যা ১৮৯৪ সাল থেকে প্রিয় একটি নাম।

পুরান ঢাকার বিয়ে-শাদি, সামাজিক যে কোনো অনুষ্ঠানে আলাউদ্দিন সুইটমিট ছিল এক সময় একচেটিয়া নাম যার মিষ্টি না হলে ঘরে ঘরে যেন শুভ কাজ অসম্পূর্ণ থাকতো।

ভোজনরসিক পুরান ঢাকার আদি মানুষদের কাছে ঐতিহ্যবাহী আলাউদ্দিন সুইটমিট একটি অতি পছন্দনীয় ও সেরা মিষ্টির ঠিকানা। মিষ্টির জগতে এই প্রতিষ্ঠানটিকে পথিকৃৎ বলা যায়। আলাউদ্দিন সুইটমিটের রয়েছে অনেকগুলো শাখা, যা বিদেশেও সমাদৃত। আলাউদ্দিনের মিষ্টি সব সময়ই মানসম্মত ও দৃষ্টিনন্দন তাদের পরিবেশনায়। স্বাধীনতাপরবর্তী ঢাকাতে বহু মিষ্টির দোকান হলেও আলাউদ্দিন সুইটমিটের জনপ্রিয়তা কমেনি এতটুকু বরং মিষ্টির জগতে অপ্রতিদ্ব›দ্বী ও অগ্রণী ভূমিকা সমাদৃত হয়ে আসছে দীর্ঘ সময় ধরে।

১১৭ বছরের ঐতিহ্যবাহী আলাউদ্দিন সুইটমিট রসগোল্লা, গোলাপ বরফি, পান বরফি, কাজু বরফি, গুলাব জাবন, লালমোহন, মতিচুর লাড্ডু, রসকদম, বড় চমচম, হাফসি হালুয়া, দই, কালোজাম, মালাইকারি, দুদিয়া সন্দেশ, কাঁচা সন্দেশ, রসমালাই, জিলাপিসহ ইত্যাদি অনেক ধরনের মিষ্টি তৈরি করে থাকে। আলাউদ্দিনের নেশেস্তার হালুয়া যাকে মাসকাট হালুয়াও বলা হয়ে থাকে, অত্যন্ত জনপ্রিয়।

পুরান ঢাকার চকবাজারে দুটি শাখাসহ, নারিন্দা, মগবাজার, ইসলামপুর, মৌচাকসহ ইত্যাদি স্থানে এর শাখা রয়েছে।

শাহী দিল্লি
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন পুরান ঢাকার ২৮/১, পাটুয়াটুলীতে শাহী দিল্লির অবস্থান। মজাদার শন-পাপড়ি, বরফি, গাজর বরফি, নারকলি বরফি, বালুসাই, ছানা, হালুয়া, লাড্ডুসহ অনেক ধরনের মিষ্টান্নের জন্য প্রসিদ্ধ। সকাল-বিকাল লুচি, ডাল, ভাজি আর নানা ধরনের সেরা মিষ্টান্ন তৈরির জন্য যুগের পর যুগ ধরে বিখ্যাত, এমনকি শাহী দিল্লির চা অত্যন্ত জনপ্রিয়। প্রতিদিন আশপাশের সহ বহু মানুষ দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন এই জনপ্রিয় দোকানটির মজাদার নাশতার স্বাদ নিতে। এই প্রতিষ্ঠানের নেশেস্তার হালুয়া অত্যন্ত জনপ্রিয় ও তাদের রয়েছে বহু সুস্বাদু আইটেম, যা পুরান ঢাকার নাশতার জন্য প্রিয় একটি ঠিকানা।

তানয়ীম'স সুইটমিট অ্যান্ড বেকারি
পুরান ঢাকার ৮৬/এ নারিন্দায় অবস্থিত তানয়ীম'স সুইটমিট জনপ্রিয় একটি নাম। মিষ্টির জগতে তানয়ীম'স এর পথচলা খুব বেশির দিনের না হলেও মানসম্মত মিষ্টি তৈরিতে সুনাম অর্জন করেছে ইতোমধ্যেই। তানয়ীম'স সুইটমিট সাদা রসগোল্লা, কালোজাম, মতিলাড্ডু, মাওয়ার লাড্ডু, সরমালাই, আফলাতুন, লাবড়ি, চমচম, আঙুরী চমচম, কাঁচা ছানা, লাচ্ছা সেমাইসহ সব ধরনের মিষ্টি তৈরি করে থাকে। রমজানে তাদের আইটেম ইরানিভোগ, জাফরানভোগ ও শাহী টুকরা অত্যন্ত জনপ্রিয় আইটেম। নানা সামাজিক অনুষ্ঠানে তানয়ীম'স সুইটমিট অ্যান্ড বেকারি চাহিদা অনুযায়ী মিষ্টি সরবরাহ করে থাকে।

দয়াল ভান্ডার
পুরান ঢাকার ৮৯, আবুল হাসনাত রোডে অবস্থিত দয়াল ভান্ডার মিষ্টির জগতে প্রসিদ্ধ নাম। রসগোল্লা, রাজভোগ, ডিমভোগ, মতিচুর লাড্ডু, মৌচাক, সাদা চমচম, মালাইচপ, মাওয়া লাড্ডু, বালুসাই, রসমালাই, কাঁচাগোল্লা, লাবাড়ী, খিরসা, মোরব্বা, জিলাপি, ঘিসহ নানা ধরনের মিষ্টান্ন তৈরি করে থাকে। দয়াল ভান্ডারের স্বত্বাধিকারী ভোলানাথ ঘোষের প্রতিষ্ঠান প্রায় ৩০ বছর ধরে সুনামের সঙ্গে মিষ্টি তৈরি করে আসছে।

গ্রীন সুইটমিট
পুরান ঢাকার নবাবপুর ও ওয়ারীসংলগ্ন ৯. বিসিসি রোড ঐতিহ্যবাহী গ্রীন সুইটমিট-এর অবস্থান। পুরান ঢাকার অন্যতম জনপ্রিয় জিলাপি আর মিষ্টি প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান যার সুনাম বহু বছর আগে থেকে। গ্রীন সুইটমিট মানেই মজার সব মিষ্টির সমারোহ ঐতিহ্যে আর স্বাদে। অপ্রতিদ্ব›দ্বী গ্রীন সুইটস-এর নানাপদের মিষ্টি সবারই প্রিয়। গাজর বরফি, সাদা গাজর বরফি, চালকুমড়া বরফি, ছানামন্ডা, ছানা, হালুয়া, জিলাপি, মিষ্টি সিঙ্গারা, আমিত্তিসহ নানাধরনের মিষ্টি প্রস্তুত করে থাকে। মিষ্টি তৈরির পাশাপাশি সকালে মজাদার নাশতা তৈরি করে থাকেন। ছোট্ট এই দোকানটিতে বসে খাবার ব্যবস্থা না থাকলেও প্রতিদিন নানা স্থান থেকে লোকজন ভিড় করেন প্রিয় মিষ্টি বা জিলাপির জন্যে।

- মোহাম্মদ ওয়াসিম
ক্রিয়েটর ফেইসবুক গ্রুপঃ Puran Dhakar Khabar