রবিবার,২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
হোম / রূপসৌন্দর্য / এই গরমে শীতল মাস্ক
০৫/২৪/২০১৭

এই গরমে শীতল মাস্ক

-

এই গরমে শীতল পানি বা শরবত যেমন প্রাণ জুড়ায় তেমনি ত্বকের যত্নেও চাই ঠান্ডা কিছু।

ফেইস মাস্ক ত্বকের নানান সমস্যার সমাধানে বেশ সহায়ক। তেমনি ত্বকে পুষ্টি যোগানোর পাশাপাশি এই গরমে ত্বক শীতল রাখতেও ফেইস মাস্ক ব্যবহার করা যেতে পারে। কারণ গরমের কারণে ত্বকে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। ফুসকুড়ি ওঠা, এমনকি ব্রণ বেশি হওয়ার প্রবণতাও দেখা দেয় এই সময়। তাই ত্বকের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে। আর এক্ষেত্রে শুধু পানির ঝাপটা অনেক সময় যথেষ্ট নয়।

এ-ধরনের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে এবং গরমের কারণে হওয়া ত্বকের সমস্যা দূর করতে শীতল উপাদানে তৈরি মাস্ক বেশ উপযোগী। ত্বকের যত্নে কয়েকটি ঠান্ডা মাস্ক তৈরির প্রণালি এখানে তুলে ধরা হলো।

দই ও তরমুজের মাস্ক
টকদই ত্বকের জন্য বেশ উপকারী আর অন্যদিকে তরমুজ শীতল রাখতে সাহায্য করবে। রোদে পোড়া ত্বকের যত্নে এই দুই উপাদানে তৈরি মাস্ক দারুণ সহায়ক। প্রয়োজন বুঝে কয়েক টুকরা তরমুজ এবং দই ভালোভাবে ব্লেন্ড করে পেস্ট তৈরি করে নিন। ব্রাশের সাহায্যে ওই মিশ্রণ ত্বকে লাগান। ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। চাইলে প্রতিদিন রোদ থেকে ঘরে ফিরে এই মাস্ক ব্যবহার করতে পারবেন।

অ্যালোভেরা এবং লেবু
লেবু ত্বকের অতিরিক্ত তেল দূর করে এবং এর প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান রং উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে। অন্যদিকে অ্যালোভেরা ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখে। দুই চামচ অ্যালোভেরা জেলের সঙ্গে দুই চামচ তাজা লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ মুখে ও গলায় ব্যবহার করুন। ২০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। লেবু ব্যবহারের পরপরই রোদে বের হওয়া ঠিক নয় তাই এই মাস্ক রাতে ব্যবহার করা ভালো। তবে অনেকের কাঁচা অ্যালোভেরা জেল ত্বকে ব্যবহারের ফলে অস্বস্তি অনুভূত হতে পারে, এক্ষেত্রে প্রক্রিয়াজাত অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করা যেতে পারে।

পুদিনা ও মুলতানি মাটি
পুদিনার শীতলকারী উপাদান গরমের কারণে হওয়া জ্বলুনি উপশমে সহায়ক। অন্যদিতে ত্বকের যত্নে মুলতানি মাটির জনপ্রিয়তা দীর্ঘদিনের। এই মাটি ত্বকের কোমলতা ধরে রেখে অতিরিক্ত তেল দূর করে এবং ত্বক উজ্জ্বল করে তুলে। এক মুঠো পুদিনাপাতা ভালোভাবে ধুয়ে ব্লেন্ড করে নিন। এবার মুলতানি মাটির সঙ্গে মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরি করুন। মুখে ও গলায় লাগিয়ে অপেক্ষা করুন। শুকিয়ে গেলে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

শসা ও মধু
শসা ত্বক শীতল করে এবং মধু ত্বকের আর্দ্রতা যোগায়। একটি শসার খানিকটা অংশ নিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে ব্লেন্ড করে নিন। এবার শসার পেস্টের সঙ্গে এক টেবিল চামচ মধু মিশিয়ে নিন। পুরো ত্বকে লাগিয়ে ৩০ মিনিট অপেক্ষা করে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

গোলাপজল এবং চন্দন
চন্দন ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখার পাশাপাশি শীতল রাখতেও সাহায্য করে। গোলাপজলও গরমে স্বস্তি আনে। দুই টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়ার সঙ্গে পরিমাণমতো গোলাপজল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। গরমে ক্লান্ত ও প্রাণহীন ত্বকের যত্নে এই মাস্ক দারুণ উপকারী।

- বেলা দত্ত